×

আনন্দবাজার পত্রিকা

Advertisement

০৭ মার্চ ২০২১ ই-পেপার

হাসি কম, কিন্তু চলনসই

মধুমন্তী পৈত চৌধুরী
১০ ডিসেম্বর ২০২০ ০০:০২

ভাগ বিনি ভাগ
পরিচালনা: দেবী রাও
অভিনয়: স্বরা, বরুণ, রবি, ডলি
৫.৫/১০

নেটফ্লিক্সের নতুন সিরিজ় ‘ভাগ বিনি ভাগ’-এর ট্রেলার দেখে নেটিজ়েনের একাংশের মত ছিল, এটি জনপ্রিয় সিরিজ় ‘দ্য মার্ভেলাস মিসেস মেইজ়েল’-এর দেশি ভার্সন। বিষয়গত মিল থাকলেও, এই সিরিজ় সর্বাঙ্গে দেশজ। মূল চরিত্র বিনি ভাটনগরের (স্বরা ভাস্কর) প্রথম পর্বেই স্বগতোক্তি, ‘‘যার পরিবার সামোসার মতো, তাকে সালসার স্বপ্ন দেখা মানায় না...’’

Advertisement

মধ্যবিত্ত বাড়ির মেয়ে বিনি কর্পোরেট সংস্থায় চাকরি করে। প্রেমিক অরুণ (বরুণ ঠাকুর) ধনী পরিবারের। কেরিয়ার, প্রেম, বাবা-মায়ের স্বপ্ন পূরণ করার পাকেচক্রে বিনির স্ট্যান্ড-আপ কমেডি করার ইচ্ছে জায়গা পেয়েছিল পিছনের সারিতে। তবে অরুণের বিয়ের প্রস্তাব, আগামীর পরিকল্পনা, তড়িঘড়ি বাগ্‌দান বিনিকে ফিরে যেতে বাধ্য করে তাঁর প্যাশনের কাছে। বাগ্‌দানের রাতেই বিনি পার্টি ছেড়ে হাজির হয় স্ট্যান্ড-আপের মঞ্চে। তবে যেমনটা সে ভেবেছিল, তেমন আর হল কই!

ছ’টি পর্বের মিনি সিরিজ়ে প্রথম তিনটি বেশ গতে বাঁধা। তবে শেষ তিনটি পর্বে গল্প গতি পায়, তৈরি হয় ভাল লাগার বেশ কয়েকটি মুহূর্ত। বিনির এই সফরের সাথী বান্ধবী কপি (ডলি সিংহ) এবং রবি (রবি পটেল)। সোশ্যাল মিডিয়া ইনফ্লুয়েন্সার ডলির নাম বদলে দেওয়া হলেও, তাঁর বাস্তবের পেশা জায়গা পেয়েছে পর্দায়। আমেরিকান অভিনেতা রবি পটেলকে দেখানো হয়েছে স্বনামে। স্বরা ছাড়া এই তিন অভিনেতার (বরুণ, ডলি, রবি) নির্বাচন শোয়ের ইউএসপি। তাঁরা তিন জনেই নিজ নিজ চরিত্রে বেশ ভাল। বিনির বাবার চরিত্রে গিরিশ কুলকার্নি এবং মায়ের চরিত্রে মোনা অম্বেগাঁওকর দারুণ। তবে শোয়ের সবচেয়ে বড় প্রাপ্তি, স্বরা। তাঁকে দেখতে স্টাইলিশ লেগেছে। অভিনয় খুব প্রাণবন্ত। হাসি-কান্না, মান-অভিমানের প্রতিটি মুহূর্ত ভারী সুন্দর ফুটিয়ে তুলেছেন তিনি।

তবে স্ট্যান্ড-আপ-কমেডি নির্ভর শোয়ে তেমন পাঞ্চলাইন পাওয়া গেল না! মিলল না হাসির খোরাকও। বিশেষত, এ দেশে স্ট্যান্ড-আপ কমেডিয়ানের পেশা এখন উঠতি। সেখানে এক নারী কতটা জায়গা করে নিতে পারছে, তা দেখানো যেত। শেষ পর্বে স্বরার ‘বিয়ে ও নারী’ প্রসঙ্গে উপস্থাপনা ছাড়া তেমন জোরদার স্ট্যান্ড-আপ শোয়ে নেই। লেখনীর দুর্বলতাও সে ক্ষেত্রে নজর কাড়ে। গল্প হিসেবে বিনির স্ট্যান্ড-আপের চেয়ে বেশি জায়গা পেয়েছে বাগ্‌দান ভাঙার পরে তাঁর নতুন জীবনধারা ও জীবনবোধ। বিনির ভাষায় বললে, ‘বিনি টু পয়েন্ট ও’। তা দেখতে খারাপ লাগে না। তবে গল্প হিসেবে নতুন নয়।

এর আগে নেটফ্লিক্স সিরিজ় ‘হসমুখ’ও ছিল স্ট্যান্ড-আপ নির্ভর। কিন্তু সেখানে মুখ্য হয়ে উঠেছিল খুন ও ডার্ক হিউমর। সেই নিরিখে বিচার করলে, স্বরার সিরিজ় ভাল লাগার পরিসর বাঁচিয়ে রাখে।

Advertisement