রাজনীতিতে পা রাখলেন অভিনেতা সলমন খানের দেহরক্ষী তথা বিশ্বস্ত বন্ধু শেরা ওরফে গুরমীত সিংহ। মহারাষ্ট্র বিধানসভা নির্বাচনের আগে শিবসেনায় যোগ দিলেন তিনি।

আগামী ২১ অক্টোবর অর্থাৎ সোমবার বিধানসভা নির্বাচন মহারাষ্ট্রে। ভোট গণনা হবে ২৪ অক্টোবর। তার আগে, শুক্রবার সেনাপ্রধান উদ্ধব ঠাকরে এবং দলের শাখা সংগঠন যুবসেনার সভাপতি আদিত্য ঠাকরের উপস্থিতিতে মুম্বইয়ে তাঁদের বাসভবন ‘মাতশ্রী’-তে শিবসেনায় যোগদান করেন শেরা। পরে শিবসেনার তরফে টুইটারে সেই খবর প্রকাশ করা হয়।

গত দুই দশকেরও বেশি সময় ধরে সলমন খানের দেহরক্ষী শেরা। বিপদে-আপদে বরাবর খান পরিবারের পাশে থেকেছেন তিনি। যে কারণে ২০১১ সালে ‘বডিগার্ড’ ছবিটি শেরাকেই উৎসর্গ করেন সলমন। তাতে মুখ দেখান শেরা নিজেও। সলমনের প্রতি আন্তরিকতা দেখাতে পিছপা হন না শেরাও। আইনি ঝামেলা চলাকালীনও সলমনের পাশে থেকেছেন তিনি। নিয়মিত জেলে দেখা করতে গিয়েছেন।

শিবসেনার টুইট

আরও পড়ুন: রিয়েলিটি শো-র মঞ্চে নেহা কক্করকে জোর করে চুমু প্রতিযোগীর!​

অন্য দিকে, সলমনের দেহরক্ষী হিসাবে পরিচিতি পেলেও, তাতেই নিজেকে সীমাবদ্ধ রাখেননি শেরা। ‘টাইগার সিকিয়োরিটি সার্ভিসেস’ নামে নিজের একটি সংস্থা চালান তিনি। সঞ্জয় দত্ত-সহ একাধিক হাই-প্রোফাইল বলিউড তারকার নিরাপত্তা দেয় ওই সংস্থা।

আরও পড়ুন: বাংলা সিনেমার গোয়েন্দারা​

সলমনের মতো একাধিক বার বিতর্কে জড়িয়েছেন শেরাও। সলমনকে ছেঁকে ধরা পাপারাৎজিদের ধাক্কা দেওয়ার অভিযোগ উঠেছে তাঁর বিরুদ্ধে। বছর দু’য়েক আগে তাঁর বিরুদ্ধে ধর্ষণের হুমকি দেওয়ার অভিযোগও তোলেন এক মহিলা। যার ভিত্তিতে শেরার বিরুদ্ধে মামলাও দায়ের করে পুলিশ। শেরা নিজে অবশ্য সেই অভিযোগ অস্বীকার করেছেন।