তিনি বলিউডের কিং খান। জীবনযাপনও তাঁর একবারে কিং সাইজ। ‘দামি’ জিনিসপত্রে ভর্তি তাঁর বাড়ির গ্যারাজ থেকে আলমারি। এহেন শাহরুখ খানের জীবনের সবচেয়ে দামি জিনিসটি কি জানেন?

সম্প্রতি একটি বেসরকারি এফএম চ্যানেলকে দেওয়া সাক্ষাৎকারে শাহরুখের বক্তব্য, ‘‘আমি দিল্লির মানুষ। দিল্লির মানুষদের কোঠি অর্থাৎ বাংলোতে বসবাস করার অভ্যাস। কিন্তু মুম্বইতে সবাই অ্যাপার্টমেন্টেই থাকেন।’’

সেই শাহরুখকেও একটা সময় অ্যাপার্টমেন্টেই থাকতে হত। কিন্তু তাঁর মন পড়েছিল একটি বাংলোর দিকে। অনেক খুঁজে শেষমেশ তিনি ‘মন্নত’ খুঁজে পান। আর শহরুখের এই মনপসন্দ বাংলোটিই তাঁর সব থেকে দামি জিনিস। যে বাংলোর বর্তমান মূল্য প্রায় ২০০ কোটি টাকা। আর সেই ‘মন্নত’-এর কাহিনি বলতে গিয়ে মুম্বইতে প্রথম দিনগুলোর কথা বললেন শাহরুখ।

শাহরুখের জীবনের সেই দামি জিনিস।

তাঁর কথায়, ‘‘আমি যখন প্রথম মুম্বইতে এলাম, তখন আমার বিয়ে হয়ে গিয়েছে। গৌরীর সঙ্গে ছোট্ট একটা অ্যাপার্টমেন্টে থাকতাম। আমার শাশুড়ি আমাকে দেখলেই বলতেন, এত ছোট একটা বাড়িতে থাকো কী করে? আর ‘মন্নত’ দেখামাত্রই মনে হয়েছিল, এটা এক্কেবারে দিল্লিওয়ালা কোঠির মতো দেখতে। তখনই আমি মন্নত কিনে ফেলি। আর এটাই আমার জীবনের সবচেয়ে দামি জিনিস।’’

আরও পড়ুন: জন্মদিনে সোনালির সাহসকে কুর্নিশ করলেন স্বামী গোল্ডি

আরও পড়ুন: বর্ষবরণের রাতে কার সঙ্গে ছিলেন অমিতাভের নাতনি নভ্যা?

কেকু গাঁধী নামে গুজরাতের এক পারসি ব্যক্তি এই মন্নত-এর মালিক ছিলেন। আর সে সময়ে বাংলোটির নাম ছিল ভিলা ভিয়েনা। শাহরুখ বাড়িটি কেনার পরে নাম ঠিক করেছিলেন ‘জন্নত’। কিন্তু তা বদলে দিয়ে পরে তিনি ‘মন্নত’ রাখেন।