×

আনন্দবাজার পত্রিকা

Advertisement

০৫ মার্চ ২০২১ ই-পেপার

চুলচেরা বিচারে টিআরপি রেটিংয়ে প্রথম ‘কৃষ্ণকলি’, দ্বিতীয় ‘করুণাময়ী রাণী রাসমণি’

নিজস্ব সংবাদদাতা
কলকাতা ২৬ জুন ২০২০ ২২:০৩
জনপ্রিয়তার নিরিখে প্রথম মেগা সিরিয়াল ‘কৃষ্ণকলি’ এবং দ্বিতীয় ‘করুণাময়ী রাণী রাসমণি’।

জনপ্রিয়তার নিরিখে প্রথম মেগা সিরিয়াল ‘কৃষ্ণকলি’ এবং দ্বিতীয় ‘করুণাময়ী রাণী রাসমণি’।

মাত্র .৫-এর তফাৎ। রেটিংয়ের একচুল এ দিক-ও দিকেই জায়গা বদল হয়ে গেল জনপ্রিয়তার নিরিখে প্রথম ও দ্বিতীয় মেগা ‘করুণাময়ী রাণী রাসমণি’ এবং ‘কৃষ্ণকলি’র। লকডাউনের আগে জি বাংলার এই দুই মেগার মধ্যে হাড্ডাহাড্ডি লড়াই ছিলই। কিন্তু ‘রানিমা’ কিছুতেই তাঁর জায়গা ছাড়ছিলেন না। ফলে, শ্যামারও আর প্রথম হওয়া হয়ে উঠছিল না।

সেটাই হল লকডাউনের পর। এত বড় বদল ঘটল কী করে?

পুরোটাই জানেন জনতা জনার্দন, মত জি এন্টারটেনমেন্টের ক্লাস্টার হেড (ইস্ট) সম্রাট ঘোষের। এই মতের পেছনে যুক্তি আছে। দিন কয়েক আগেই এক পাঠক সংবাদপত্রের পাঠকের কলমে চিঠি লিখে ক্ষোভ প্রকাশ করেছিলেন, ধারাবাহিকের বেশির ভাগ সময় ঠাকুর রামকৃষ্ণদেব একাই বসে ভেবে যাচ্ছেন। ফ্ল্যাশব্যাকে পুরনো দৃশ্য ঘুরে ঘুরে আসছে।

Advertisement

এই একঘেয়েমিই কি দু’টি ধারাবাহিকের মধ্যে রেটিংয়ে ৬.৮, ৬.৩ ফারাক গড়ে দিল?

‘রানিমা’ দিতিপ্রিয়া শুটে ব্যস্ত বলে তাঁর মত জানা যায়নি। তবে রেজাল্ট নিয়ে মুখ খুলেছেন ‘কৃষ্ণকলি’র তিয়াসা। প্রথমেই আন্তরিক ধন্যবাদ জানিয়েছেন দর্শক, প্রযোজক, পরিচালক, চ্যানেল কর্তৃপক্ষকে। তাঁর কথায়, ‘‘টানা দু’বছর ধরে কৃষ্ণকলিকে ভালবেসেছেন সবাই। সেই শুভেচ্ছাতেই দীর্ঘ লকডাউনের পরেও এত ভাল ফল করলাম আমরা। কারণ, আনলক স্তরে দর্শকদের প্রতিক্রিয়া কী হবে সেটা নিয়ে সবাই চিন্তিত ছিলাম।’’

টিআরপি-র চাপ নিয়েই দু’বছর ধরে লড়াই, অভিনয়। প্রতিদ্বন্দ্বী কোন অভিনেত্রী?



চতুর্থ স্থানে রয়েছে ‘ফিরকি’।

বিনয়ের সঙ্গে তিয়াসার জবাব, প্রতিদ্বন্দ্বী তাঁর সবাই। কারণ, তিনি নতুন। টিআরপি-র কথা অভিনয়ের সময় মনেই থাকে না। রেটিং চার্টের শুরুতে থাকলেও যেমন অভিনয় করবেন, শেষের দিকে থাকলেও তাই-ই। একটাই লক্ষ্য, নিজের সেরাটা দেওয়া।

সিরিয়ালের সুবাদে সারা ক্ষণ দিতিপ্রিয়ার সঙ্গে টম অ্যান্ড জেরি রেস তাঁর। তার পরেও প্রতিদ্বন্দ্বী হিসেবে দিতিপ্রিয়ার নাম শোনা গেল না তিয়াসার মুখে! কেন? প্রশ্ন শুনে ভীষণ মজা পেলেন ‘কৃষ্ণকলি’ অভিনেত্রী, ‘‘ও আমার থেকে কত ছোট্ট। ভীষণ মিষ্টি। ওকে কী করে প্রতিদ্বন্দ্বী ভাবব?’’

আরও পড়ুন: ‘ফেয়ার’ সরল, মন থেকে ‘লাভলি’ সরলেও ভাল হত, মনে করছে টলিউড

৮৪ দিনের ফাঁক ভরিয়ে, সুরক্ষার খাতিরে চিত্রনাট্যের প্রয়োজনীয় বদল ঘটিয়ে, সামাজিক দূরত্ব মেনে, টেনশন সামলে এক সপ্তাহ সম্প্রচারণের পর এই রেজাল্টে দারুণ খুশি টিম ‘কৃষ্ণকলি’। বৃহস্পতিবার রেটিং নম্বর জানতে পেরেই নাকি মেগার নায়ক ‘নিখিল’ নীল ভট্টাচার্য খুশির আনন্দে ভাসতে ভাসতে প্রথম খবর জানিয়েছেন ‘কৃষ্ণকলি’, থুড়ি ‘আম্রপালি’-কে।



যুগ্ম ভাবে চতুর্থ স্থানে রয়েছে ‘ত্রিনয়নী’-ও।

দর্শক মতে, এই বদলই নাকি চড়চড়িয়ে টিআরপি বাড়ানোর নেপথ্য নায়ক!

রিপোর্ট কার্ড অনুযায়ী যুগ্ম ভাবে তৃতীয় ‘জয় বাবা লোকনাথ’ আর ‘আলো ছায়া’। এরা পেয়েছে ৩.৯। হাড্ডাহাড্ডি লড়াই করে চতুর্থ স্থানে একসঙ্গে ‘ত্রিনয়নী’ আর ‘ফিরকি’। এদের রেটিং ৩.৮।

আরও পড়ুন: ফর্সা হওয়ার তাগিদে নাকি অস্ত্রোপচার করিয়েছেন এই বলি তারকারা!

Advertisement