Follow us on

Download the latest Anandabazar app

© 2021 ABP Pvt. Ltd.

Advertisement

৩০ নভেম্বর ২০২১ ই-পেপার

বিনোদন

প্রথম ছবিতেই সুপারস্টার, নারীহৃদয়ে ঝড় তোলা ‘ইলু ইলু নায়ক’ অকালেই পার্শ্বচরিত্রে

নিজস্ব প্রতিবেদন
০৬ অগস্ট ২০২০ ১২:০৫
অনেক বছর বলিউডে কাটিয়েও যে সুযোগ অনেকের কাছে অধরা থেকে যায়, তা তিনি পেয়েছিলেন প্রথম ছবিতেই। নামী পরিচালক, বড় ব্যানার এবং বক্স অফিসে সাফল্য। এই তিনের সন্ধিক্ষণের সাক্ষী ছিল বিবেক মুশরানের প্রথম ছবি। কিন্তু তার পরেও তিনি ইন্ডাস্ট্রির নিরিখে ব্যর্থ অভিনেতা।

বিবেকের জন্ম ১৯৬৯ সালের ৯ অগস্ট, উত্তরপ্রদেশের রেণুকোটে। অভিনয়ের সুযোগ এসেছিল হঠাৎই। নৈনিতালের শেরউড কলেজ থেকে পাশ করার পরে প্রস্তাব পান সুভাষ ঘাইয়ের পরিচালনায় ‘সওদাগর’ ছবিতে অভিনয়ের।
Advertisement
ছবিতে বিবেকের বিপরীতে ছিলেন নবাগতা মনীষা কৈরালা। তাঁদের জুটি, ছবির গল্প এবং গান, সবই সুপারহিট হয়েছিল। এই ছবিতে ছিলেন দিলীপকুমার, রাজকুমারের মতো অভিনেতাও।

প্রথম ছবি বক্স অফিসে অসাধারণ পারফরম্যান্সের পরে বিবেকের কাছে সুযোগ আসতে দেরি হয়নি। ইন্ডাস্ট্রির ধারণা ছিল তিনি লম্বা রেসের ঘোড়া। কিন্তু সেই ধারণা ভুল প্রমাণিত হল। কিছু দূর এগিয়ে সমসাময়িকদের তুলনায় পিছিয়ে পড়লেন তিনি।
Advertisement
প্রথম ছবির পর ‘ফার্স্ট লভ লেটার’, ‘প্রেম দিওয়ানে’, ‘বেওয়াফা সে ওয়াফা’, ‘দিল হ্যায় বেতাব’, ‘ইনসানিয়ৎ কে দেবতা’-সহ বেশ কিছু ছবিতে অভিনয় করেন বিবেক।

কিন্তু বিবেকের নিষ্পাপ মুখ এবং রোমান্টিক নায়কের ভাবমূর্তি বেশি দিন বাজিমাত করতে পারল না। কয়েক বছরের মধ্যেই নায়ক থেকে তিনি চলে গেলেন পার্শ্বচরিত্রে।

১৯৯৫ সালে মুক্তিপ্রাপ্ত ‘রাম জানে’ ছবিতে শাহরুখ খান নায়ক ছিলেন। বিবেক ছিলেন সেকেন্ড লিডে। এর পর আরও কিছুতে অভিনয় করেছিলেন বিবেক। কিন্তু প্রথম ছবির মতো সাফল্য আর ফিরে পাননি।

নব্বইয়ের দশকের শেষ থেকে বিবেক ক্রমশ হারিয়ে যান বলিউড থেকে। তার পরের দশকে, ২০০০ সালে তিনি অভিনয় করেন ‘অনজানে’ ছবিতে।

এর পর ২০০১-এ ‘উলঝন’ এবং তার চার বছর পরে ‘কিসনা দ্য ওয়ারিয়র পোয়েট’। তার পর দীর্ঘদিন বিবেকের কাছে কোনও সিনেমায় অভিনয়ের সুযোগ পৌঁছয়নি।

দীর্ঘ এক দশক পরে বিস্মৃত বিবেক আবার ফিরে আসেন ইন্ডাস্ট্রিতে। এ বার তাঁকে দেখা যায় ‘তামাশা’ ছবিতে, রণবীর কপূরের  পাশে চরিত্রাভিনয়ে।

কেরিয়ারের দ্বিতীয় ইনিংসেও বিবেক উল্লেখযোগ্য কোনও ভূমিকা পাননি চিত্রনাট্যে। তাঁকে সন্তুষ্ট থাকতে হয় চরিত্রাভিনেতা হয়েই। ২০১৭-এ ‘বেগম জান’ এবং তার পরের বছর ‘ভীরা দি ওয়েডিং’ ছবিতেও অভিনয় করেছেন তিনি।

‘ভীরা দি ওয়েডিং’ ছবিতেই বিবেককে শেষ বার দেখা গিয়েছে। শোনা গিয়েছে আমির খানের পরবর্তী ছবি ‘লাল সিংহ চাড্ডা’-তেও অভিনয় করছেন বিবেক।

ছবিতে সুযোগ না পাওয়ায় বিবেক ছোট পর্দাতেও কাজ করেন। দীর্ঘ দিন তিনি ‘সোনপরী’ সিরিয়ালে কাজ করেছেন।

পরে এক সাক্ষাৎকারে তিনি বলেন, সিনেমার তুলনায় টেলিভিশনে অভিনয় করেই তিনি বেশি জনপ্রিয়তা পেয়েছেন।

সিরিয়ালে অভিনয় করে তৃপ্তি না পেলেও এই পরিচিতি এবং জনপ্রিয়তা তিনি উপভোগ করেছেন। জানান, তাঁকে নতুন প্রজন্মের দর্শক ‘সোনপরী’-র রোহিত হিসেবেই বেশি চিনতে পারে।

কেরিয়ারের সেরা সময়ে প্রথম সারির বেশ কিছু নায়িকার সঙ্গে কাজ করেছেন বিবেক। কিন্তু কোনওদিন তাঁকে জড়িয়ে কোনও গুঞ্জন শোনা যায়নি।

মনীষা কৈরালার সঙ্গে পর পর কিছু ছবিতে কাজের সূত্রে দু’জনের সম্পর্ক নিয়ে মৃদু গুঞ্জন অবশ্য ভেসে উঠেছিল। কিন্তু তা কর্পূরের মতো মিলিয়ে যায় বিবেকের কেরিয়ারগ্রাফ নীচের দিকে নামতেই।

ব্যক্তিগত জীবনকে পর্দার আড়ালে রাখতেই ভলবাসেন বিবেক। তবে তিনি যে স্ত্রী এবং পরিবারের বাকি সদস্যদে সঙ্গে কোয়ালিটি টাইম কাটাতে ভালবাসেন, সে কথা বোঝা যায় সোশ্যাল মিডিয়ায় তাঁর শেয়ার করা ছবি দেখেই।

তবে বিবেক সোশ্যাল মিডিয়ায় বেশি সময় দেওয়া পছন্দ করেন না। মনে করেন, এই আসক্তি আদতে ক্ষতি ডেকে আনে।

সম্প্রতি একটি শর্টফিল্ম তৈরি করেছেন বিবেক। নতুন ভূমিকা উপভোগ করছেন তিনি। জানিয়েছেন ‘সওদাগর’-এর ‘ভাসু’।

তাঁর সঙ্গে কেরিয়ার শুরু করা অভিনেতারা এখনও নায়িকাদের সঙ্গে রোমান্স করছেন। কিন্তু তিনি এখন পর্দায় নায়ক নায়িকাদের বাবা। এ নিয়ে অবশ্য আক্ষেপ নেই পঞ্চাশোর্ধ্ব বিবেকের।

তাঁর কথায়, তিনি পরিকল্পনাহীন ভাবেই এসে পড়েছিলেন অভিনয় জগতে। কুড়ি-একুশ বছর বয়সে তাঁর পদক্ষেপও হিসেব কষে নিখুঁত ছিল না। স্বীকার করেছেন তিনি। কিন্তু সে সব নিয়ে মনখারাপের অবকাশ নেই। বরং, যা পেয়েছেন, তা-ই নিয়েই খুশি ‘ইলু ইলু’ গানে নারীহৃদয়ে ঝড় তোলা এই সুদর্শন নায়ক।