Advertisement
১৩ জুন ২০২৪
Honey

মধুর সঙ্গে মধুর সম্পর্ক অনেক কিছুরই, কিন্তু সে গুণে জীবন আদৌ মধুময় হয়ে উঠছে কি

‘মধু বাতা ঋতায়তে, মধু ক্ষরন্তি সিন্ধবঃ’ অর্থাৎ মাটিতে, জলে, হাওয়ায়— সর্বত্র মধু। সেই জল, মাটি, মানুষকে মধু শক্তি যোগাবেই। কিন্তু এই মধুই কী করে শরীরের জন্য বিষাক্ত হয়?

ছবি- সংগৃহীত

নিজস্ব সংবাদদাতা
কলকাতা শেষ আপডেট: ২৮ সেপ্টেম্বর ২০২২ ২১:২১
Share: Save:

সকালবেলা ঘুম থেকে উঠে গরম জলে মধু, লেবুর রস দিয়ে খাওয়া আপনার বহু দিনের অভ্যাস। রোগা হওয়া ছাড়াও মধু এবং লেবুর রস গরম জল দিয়ে খেলে শরীরের বিপাক হারের উপরও ভাল প্রভাব পড়ে। শুধু খাওয়া নয়, হিন্দুধর্মের যে কোনও শুভ কাজেও মধু থাকা আবশ্যিক। এত গুণ থাকা সত্ত্বেও মধু কখনও কখনও শরীরের জন্য বিষাক্ত হয়ে উঠতে পারে।

মধু কী আদৌ শরীরের জন্য উপকারী?

কিছু কিছু বিশেষ রান্নায়, বেকিং-এ, চায়ে বা শুধু মুখে মধু খাওয়ার চল, পৃথিবীর প্রায় সব দেশেই আছে। শরীরে রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা তৈরি করা ছাড়াও মধুর অ্যান্টি-ইনফ্লেমেটরি এবং অ্যান্টি-বায়োটিক উপাদান যে কোনও ক্ষত সারিয়ে তোলে। আয়ুর্বেদ চিকিৎসাতেও মধুর ব্যবহার বিপুল।

মধু কখন শরীরের ক্ষতিকারক?

একটি গবেষণায় প্রমাণিত হয়েছে, নির্দিষ্ট তাপমাত্রার সংস্পর্শে এলে মধুর সমস্ত গুণাগুণ নষ্ট হয়। ওই অবস্থায় খেলে মধু বিপরীত ক্রিয়া শুরু করে। অর্থাৎ অতিরিক্ত গরম জলে বা চায়ে মধু দিয়ে খাওয়া আদতে শরীরের জন্য খারাপ। সব সময় হালকা গরম জলে বা খাবার ঠান্ডা হওয়ার পর উপর থেকে মধু ছড়িয়ে ব্যবহার করা যেতে পারে।

(সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের Google News, X (Twitter), Facebook, Youtube, Threads এবং Instagram পেজ)

অন্য বিষয়গুলি:

Honey
সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের মাধ্যমগুলি:
Advertisement

Share this article

CLOSE