Advertisement
০৪ মার্চ ২০২৪
COVID-19

Intake of Kadha: করোনা আবহে কাড়া পান করছেন বার বার? হিতে বিপরীত হচ্ছে না তো

গত দু’বছরে ঘন ঘন কাড়া পান করা অভ্যাসে দাঁড়িয়ে গিয়েছে অনেকের। কিন্তু জানেন কি অতিরিক্ত কাড়া পান করলে সমস্যাও হতে পারে?

জানেন কি যে অতিরিক্ত কাড়া পান করলে শারীরিক সমস্যাও হতে পারে?

জানেন কি যে অতিরিক্ত কাড়া পান করলে শারীরিক সমস্যাও হতে পারে?

নিজস্ব সংবাদদাতা
কলকাতা শেষ আপডেট: ২৩ জানুয়ারি ২০২২ ১৩:৪৬
Share: Save:

বাড়িতে তৈরি রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বৃদ্ধিকারী কাড়া এই দেশের বেশির ভাগ মানুষেরই পরিচিত। করোনা ছড়িয়ে পড়ার পর থেকে অনেকেই এই উষ্ণ ঔষধি তরল বাড়িতে বানিয়ে পান করছেন। অতিমারি ছাড়াও যে সব অসুখের উপসর্গগুলি সাধারণ সর্দি-কাশির মতো হয়, তখন দারচিনি, তুলসি পাতা, আদা, মধুর মতো নানা ভেষজ-সহ কাড়া পান করার উপদেশ মা-ঠাকুরমারা দিয়ে থাকেন। প্রায় ম্যাজিকের মতোই কাজ হয় এতে। আয়ুর্বেদে এই তরলের গুরুত্ব অসীম। ফলে গত দু’বছরে ঘন ঘন কাড়া পান করা অনেকের অভ্যাসে দাঁড়িয়ে গিয়েছে। কিন্তু জানেন কি যে অতিরিক্ত কাড়া পান করলে শারীরিক সমস্যাও হতে পারে? চিকিৎসকরা কিন্তু বলছেন এই কথাই। ফলে ঘন ঘন কাড়া পান করার আগে একটু সতর্ক হয়ে নেওয়াই ভাল। না হলে হিতে বিপরীত হওয়াও অসম্ভব নয়।

১। আপনি যদি প্রতিদিন এটি খেয়ে থাকেন, তবে মশলার উপস্থিতির কারণে দেহে এক ধরনের প্রদাহ তৈরি হয়। যা অম্বল, বুক জ্বালার মতো সমস্যা উৎপন্ন করতে পারে। কাড়ার মশলাগুলি শরীরে তাপ তৈরি করে, যা আপনার অন্ত্রের পিএইচ স্তর পরিবর্তন করে। যা অ্যাসিড রিফ্লাক্সের কারণ হতে পারে।

কাড়া আপনার ত্বকে ব্রণ বা বিবিধ চর্মরোগের কারণ হতে পারে

কাড়া আপনার ত্বকে ব্রণ বা বিবিধ চর্মরোগের কারণ হতে পারে

২। কাড়ার ভেষজ শরীরে অতিরিক্ত তাপ দেয়। যার ফলে লিভারের সংক্রমণ হতে পারে।

৩। অতিরিক্ত কাড়া পান করলে এক সময়ে নাক দিয়ে রক্তপাত হতে পারে। গোলমরিচ এবং দারচিনির মতো মশলা দিয়ে তৈরি কাড়া ডেকে আনতে পারে পাইলসের মতো রোগও।

৪। কাড়া আপনার ত্বকে ব্রণ বা বিবিধ চর্মরোগের কারণ হতে পারে। শুধু তা-ই নয়, ত্বকে গুরুতর ঘা বা অন্যান্য সমস্যাও দেখা দিতে পারে।

৫। মশলার কিছু সংমিশ্রণ আপনার মুখের বায়োমগুলিকে ব্যাহত করে, যা মাড়ি থেকে রক্তপাত এবং নিঃশ্বাসের দুর্গন্ধের মতো সমস্যাও সৃষ্টি করতে পারে।

(সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের Google News, X (Twitter), Facebook, Youtube, Threads এবং Instagram পেজ)
Follow us on: Save:
Advertisement

Share this article

CLOSE