Follow us on

Download the latest Anandabazar app

© 2021 ABP Pvt. Ltd.

Advertisement

০৯ অগস্ট ২০২২ ই-পেপার

URL Copied

দেশ

আধার কার্ডে ঠিক কত বার এই তথ্যগুলি বদল করা যাবে, জানেন?

নিজস্ব প্রতিবেদন
১২ নভেম্বর ২০১৯ ১০:১৬
আধার কার্ড তো রয়েছে। কিন্তু, তাতে যদি তথ্য গরমিল থাকে? ভাবছেন তো, তা ঠিক করিয়ে নেবেন। তবে সাবধান! বার বার এই কার্ডের তথ্য বদলের ক্ষেত্রে বিধিনিষেধ জারি করেছেন আধার কর্তৃপক্ষ। কোন তথ্য ঠিক কত বার বদলানো যাবে, সে নিয়মও তৈরি করেছেন তাঁরা। সেগুলি জানেন কি?

সম্প্রতি আধার কার্ডের তথ্য পরিবর্তন সংক্রান্ত নিয়মে বেশ কিছু সংশোধন করেছেন ইউনিক আইডেন্টিটি অথরিটি অব ইন্ডিয়া (ইউআইডিএআই)। নাম, জন্মতারিখ, লিঙ্গ বিষয়ক তথ্য কত বার বদলানো যাবে, তা নিয়েও সীমারেখা টেনে দিয়েছেন তাঁরা।
Advertisement
আধার কার্ড হাতে পেয়েই যদি দেখেন, তাতে আপনার ভুল নাম রয়েছে? তবে তো বেজায় বিপদ। এমন বিড়ম্বনায় অনেকেই পড়েছেন। তবে এ বার থেকে আধার কার্ডে একাধিক বার নামের বদল করা যাবে না। ইউআইডিএআই জানিয়েছে, আধার কার্ডে মাত্র দু’বারই নামের বদল করা যাবে।

বহু নাগরিকেরই আধার কার্ডে জন্মতারিখের তথ্যে গরমিল রয়েছে। তবে এ ক্ষেত্রেও সংশোধনী জারি করেছেন আধার কর্ত়ৃপক্ষ। এখন থেকে আধার কার্ডে মাত্র এক বারই জন্মতারিখের তথ্যে বদল ঘটানো যাবে। তার বেশি নয়।
Advertisement
মাত্র এক বার জন্মতারিখের তথ্যে বদল ঘটাতে পারবেন বটে। তবে এ ক্ষেত্রে নিয়মটি আরও বিশদে জানা প্রয়োজন। নয়া সংশোধনী অনুযায়ী, আধার কার্ডে তৈরি করার সময় যে জন্মসালের উল্লেখ করেছিলেন, তার সর্বাধিক তিন বছর আগের বার পরের সাল, তথ্য হিসাবে বদলাতে পারবেন।

ইউআইডিএআই নয়া সংশোধনীকে জানানো হয়েছে, আধার কার্ড তৈরির সময় জন্মতারিখের প্রমাণপত্র হিসাবে যো শংসাপত্র দাখিল করা হয়েছে, তাকেই প্রামাণ্য হিসাবে ধরা হবে। তবে যদি কেউ সেই প্রমাণপত্র দাখিল করতে না পারেন, তবে জন্মতারিখটি ঘোষিত বা আনুমানিক হিসাবে ধরা হবে।

যাঁদের জন্মতারিখটি ঘোষিত বা আনুমানিক হিসাবে ধরা হবে, তাঁরা যদি ভবিষ্যতে যদি সেই তথ্য আপ়ডেট করতে চান, তবে তাঁকে জন্মতারিখ সংক্তান্ত সুনির্দিষ্ট তথ্যপ্রমাণ দাখিল করতে হবে।

জন্মতারিখের ক্ষেত্রে যাঁদের তথ্য ঘোষিত বা আনুমানিক হিসাবে ধরা হচ্ছে, তাঁরা মাত্র এক বারই সেই তথ্য আধার কর্তৃপক্ষের কাছে ‘ভেরিফায়েড’ করাতে পারবেন। সে ক্ষেত্রে অবশ্য ওই ‘তিন বছরের আগে বা পরের’ নিয়মটি খাটবে না। যাঁদের জন্মতারিখ আগেই ‘ভেরিফায়েড’ হয়ে গিয়েছে, তাঁরা আর তাতে বদল ঘটাতে পারবেন না।

কোনও নাগরিকের লিঙ্গ সংক্রান্ত তথ্য নিয়েও নিয়ম পাল্টাছে ইউআইডিএআই। নামের মতোই লিঙ্গ নিয়ে তথ্যে মাত্র এক বারই বদল করা যাবে বলে জানিয়েছেন আধার কর্ত়ৃপক্ষ।

নাম, জন্মতারিখ ও লিঙ্গের ক্ষেত্রে এই নির্ধারিত সংখ্যক বিধিনিষেধের বাইরেও যদি কোনও নাগরিক তাঁর তথ্য বদল ঘটাতে চান? তা কি সম্ভব? ইউআইডিএআই জানিয়েছে, সে ক্ষেত্রে ওই নাগরিককে ইউআইডিএআই-এর আঞ্চলিক অফিসে গিয়ে দেখা করতে হবে। সেখানে একটি নির্দিষ্ট প্রক্রিয়ার মাধ্যমে তথ্য বদল করা সম্ভব।

আঞ্চলিক অফিসে কী ভাবে সে কাজ হবে? প্রথমত, নাম, জন্মতারিখ ও লিঙ্গের তথ্য বদলের ক্ষেত্রে নাগরিককে এনরোলমেন্ট বা আপডেট সেন্টারে হাজিরা দিতে হবে। সেখানে তাঁর তথ্য বদল করাতে হবে।

দ্বিতীয়ত, যে সমস্ত নাগরিক নাম, জন্মতারিখ ও লিঙ্গ সংক্রান্ত তথ্য বদলের নির্ধারিত সংখ্যা পেরিয়ে গিয়েছেন, তাঁরা এনরোলমেন্ট বা আপডেট সেন্টারে গিয়ে তথ্যবদলের অনুরোধটি গ্রহণ করার জন্য আঞ্চলিক অফিসে আবেদন করতে পারবেন। অথবা আঞ্চলিক অফিসে চিঠি লিখে বা ইমেলের মাধ্যমেও সেই অনুরোধ করা যাবে।

আঞ্চলিক অফিসে ইমেল করার ঠিকানা help@uidai.in। তবে এর সঙ্গে একটি শর্ত রয়েছে। ইউআইডিএআই জানিয়েছে, এ সব ক্ষেত্রে নাগরিককে চিঠি বা ইমেলে ব্যাখ্যা করতে হবে, কেন তিনি নির্ধারিত সংখ্যার বেশি বার তথ্য বদল ঘটানোর অনুরোধ করছেন এবং কেন সেই আবেদন গ্রাহ্য করা হবে।

আবেদন গ্রহণের ইমেল বা চিঠির সঙ্গে ওই নাগরিককে তাঁর ইউআরএন ( আপডেট রিকোয়েস্ট নম্বর) স্লিপ, আধার কার্ডের ডিটেলস এবং প্রয়োজনীয় তথ্যপ্রমাণাদিও দিতে হবে। তবে আঞ্চলিক অফিস থেকে সশরীরে উপস্থিত হওয়ার কথা না জানালে তা করতে পারবেন না ওই নাগরিক।

নির্ধারিত সময়ের বেশি বার তথ্য বদলের ক্ষেত্রে আঞ্চলিক অফিসের সিদ্ধান্তই চূড়ান্ত। এ ক্ষেত্রে তারা নাগরিকের কাছ থেকে আরও তথ্যপ্রমাণ চাইতে পারে অথবা তদন্ত করে দেখতে পারে, ওই নাগরিকের তথ্যপ্রমাণ সঠিক কি না। আবেদন যথার্থ হলে তথ্যবদলের জন্য নির্দিষ্ট তথ্যকেন্দ্রে তা পাঠিয়ে দেবে আঞ্চলিক অফিস।