Follow us on

Download the latest Anandabazar app

© 2021 ABP Pvt. Ltd.

Advertisement

০১ ডিসেম্বর ২০২১ ই-পেপার

Afghanistan-Kashmir: কাশ্মীর সতর্ক হোক, আফগানিস্তানের সন্ত্রাস যে কোনও মুহূর্তে ছড়াতে পারে, বলল রাশিয়া

সংবাদ সংস্থা
নয়াদিল্লি ০৭ সেপ্টেম্বর ২০২১ ১১:২৮
তালিবান ক্ষমতায় আসায় ভারতের বিপদ কি বাড়ল?

তালিবান ক্ষমতায় আসায় ভারতের বিপদ কি বাড়ল?
ফাইল চিত্র

আফগানিস্তানের সন্ত্রাস কাশ্মীরেও ছড়াতে পারে, ভারতকে সতর্ক করে জানাল রাশিয়া। এ ব্যাপারে নয়াদিল্লিকে সতর্ক করেছেন রাশিয়ার রাষ্ট্রদূত নিকোলাই কুদাশেভ। তবে একইসঙ্গে তিনি আশ্বস্ত করে জানিয়েছেন, তেমন পরিস্থিতি তৈরি হলে রাশিয়া এবং ভারত একত্রে সন্ত্রাসের মেকাবিলা করবে। কারণ বিষয়টি দু’দেশের কাছেই সমান উদ্বেগের।

আফগানিস্তানের তালিবান পরিস্থিতি নিয়ে সম্প্রতি ভারতকে বাদ দিয়ে একের পর এক বৈঠক করেছে রাশিয়া। তা-ও আবার পাকিস্তানের সঙ্গে। বিষয়টি নিয়ে নয়াদিল্লি অসন্তোষ প্রকাশ করেছিল বলেও খবর ছিল। আন্তর্জাতিক পর্যবেক্ষকরা তাই মনে করছেন, সন্ত্রাস প্রশ্নে ভারতকে দেওয়া রাশিয়ার এই বার্তা তাৎপর্যপূর্ণ।

সোমবার ভারতে রাশিয়ার রাষ্ট্রদূত নিকোলাই বলেন, ‘‘আফগানিস্তান থেকে অন্যান্য দেশে সন্ত্রাস ছড়ানোর যে আশঙ্কা রয়েছে তা নিয়ে ভারতের মতোই রাশিয়াও উদ্বিগ্ন। এই সন্ত্রাস যেমন রাশিয়ায় ছড়াতে পারে, তেমনই ভারতের কাশ্মীরেও এই সন্ত্রাস প্রভাব বিস্তার করতে পারে।’’ ভারত এবং রাশিয়া দ্বিপাক্ষিক সহযোগিতার অন্যতম প্রধান বিষয় হল সন্ত্রাসের মোকাবিলা করা। সে কথা উল্লেখ করে কুদাশেভ বলেন, ‘‘আশা করব আফগানিস্তানের মাটিকে ব্যবহার করে অন্য দেশে সন্ত্রাস ছড়ানো হবে না। কিন্তু যদি তা হয় তবে সেটা ভারত এবং রাশিয়া উভয়ের পক্ষেই উদ্বেগের এবং তার জন্য প্রয়োজনে যা যা পদক্ষেপ করা দরকার একত্রে তা করা হবে।’’

Advertisement

উল্লেখ্য, কিছুদিন আগে আফগানিস্তানে রাশিয়ারই বিশেষ রাষ্ট্রদূত জামির কাবুলোভ বলেছিলেন, তালিবানের উপর ভারতের কোনও প্রভাব নেই। তাই আফগানিস্তান নিয়ে রাশিয়া এবং পাকিস্তানের বৈঠকে ভারতকে ডাকা হয়নি। তাঁর সেই বক্তব্যের দিন কয়েকের মধ্যেই আফগানিস্তানের সন্ত্রাস প্রসঙ্গে ভারতের সঙ্গে সহযোগিতার বার্তা দিল রাশিয়া।

আন্তর্জাতিক পর্যবেক্ষকদের মতে, যেহেতু আফগান সীমান্ত পেরিয়ে কাশ্মীরে সন্ত্রাসবাদী কার্যকলাপ চালাতে হলে পাক অধিকৃত কাশ্মীর হয়েই ভারতের মাটিতে প্রবেশ করতে হবে, তাই পাকিস্তানের ভূমিকা এবং পাকিস্তানের সঙ্গে আলোচনায় বসা রাশিয়ার অবস্থানও এ ক্ষেত্রে গুরুত্বপূর্ণ।

আরও পড়ুন

Advertisement