Follow us on

Download the latest Anandabazar app

© 2021 ABP Pvt. Ltd.

Advertisement

১৪ অগস্ট ২০২২ ই-পেপার

URL Copied
Something isn't right! Please refresh.

Ashis Mitra: জেলের ফটক এড়িয়ে মুক্তি অজয়-পুত্রের

চার মাস ধরে লখিমপুর খেরির জেলে বন্দি আশিসকে সম্প্রতি জামিন দিয়েছিল ইলাহাবাদ হাই কোর্টের লখনউ বেঞ্চ।

সংবাদ সংস্থা
লখিমপুর খেরি ১৬ ফেব্রুয়ারি ২০২২ ০৯:২৪
Save
Something isn't right! Please refresh.
ফাইল চিত্র।

ফাইল চিত্র।

Popup Close

মূল গেট নয়, সাংবাদিকদের প্রশ্ন থেকে বাঁচতে আজ জেলের পিছনের দরজা দিয়ে বেরিয়ে গেল লখিমপুর খেরিতে কৃষক হত্যার ঘটনায় মূল অভিযুক্ত, কেন্দ্রীয় মন্ত্রী অজয় মিশ্রের পুত্র আশিস মিশ্র। সাধারণ কয়েদিরা অবশ্য এমন সুযোগ পান না।

চার মাস ধরে লখিমপুর খেরির জেলে বন্দি আশিসকে সম্প্রতি জামিন দিয়েছিল ইলাহাবাদ হাই কোর্টের লখনউ বেঞ্চ। তবে অন্য ধারাগুলিতে জামিন মিললেও আদালতের আদেশে খুন ও ষড়যন্ত্রের ধারাগুলির উল্লেখ ছিল না। ফলে জামিন মেলার পরেও কয়েকদিন জেলেই কাটাতে হয়েছে মন্ত্রী-পুত্রকে। ওই জটিলতা কাটাতে গত শুক্রবার হাই কোর্টে আবেদন করেছিল আশিস। আদালত সেই রায় সংশোধন করে দেওয়ার পর আজ জেল থেকে বার হওয়ার সুযোগ পায় সে। জেলের মূল ফটকের সামনে তার জন্য আজ অপেক্ষা করছিলেন সাংবাদিকেরা। হাজির জনতাও। কিন্তু জেল সুপারের বাসভবনের পাশের গেট দিয়ে আশিসকে বার করে দেয় জেল কর্তৃপক্ষ। অজয় মিশ্র আজ লখিমপুরে উপস্থিত থাকলেও সাংবাদিকদের সঙ্গে দেখা করেননি।

আশিস জেল থেকে বার হওয়ার আগেই সংযুক্ত কিসান মোর্চার নেতা রাকেশ টিকায়েত জানিয়েছেন, মন্ত্রী-পুত্রের জামিনের বিরোধিতা করে শীঘ্রই সুপ্রিম কোর্টে যাবেন তাঁরা। লখিমপুর খেরিতে কৃষক নেতাদের এক বৈঠকে আজ এই সিদ্ধান্ত হয়েছে। কৃষক নেতাদের অভিযোগ, রাজনৈতিক চাপের মুখে পুলিশ আশিসের বিরুদ্ধে মামলা দুর্বল করাতেই জামিন পেয়ে গিয়েছে সে। এর পিছনে যোগী আদিত্যনাথ সরকারের ভূমিকা নিয়ে প্রশ্ন তুলেছেন কৃষক নেতারা।

Advertisement

উত্তরপ্রদেশের ভোটের মধ্যেই ছেলের জামিন মেলায় মুখে হাসি ফুটেছে অজয় মিশ্রের। হাই কোর্টে জামিন মেলার পরদিনই বিজেপির হয়ে প্রচারে বেরিয়ে পড়েন মন্ত্রী। লখিমপুরের ভোট ২৩ ফেব্রুয়ারি, চতুর্থ পর্বে। রাকেশ টিকায়েত অবশ্য দাবি করেছেন, রাজ্যের মানুষ বিজেপির থেকে মুখ ফিরিয়ে নেবে। উত্তর কোরিয়ার একনায়ক কিম জং উনের তুলনা টেনে তিনি বলেন, ‘‘আমজনতার কথা ভাবেন, এমন নেতাদের তাঁরা প্রধানমন্ত্রী বা মুখ্যমন্ত্রী পদে দেখতে চাইবেন নাকি দ্বিতীয় কিমকে চাইবেন— সেটা মানুষকেই ঠিক করতে হবে।...সেজন্যই আমরা ভোটারদের বলছি ভেবেচিন্তে ভোট দিতে।’’

(সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের Google News, Twitter এবং Instagram পেজ)


Something isn't right! Please refresh.

Advertisement