Advertisement
২১ জুলাই ২০২৪

পটেলের ভিতে গুজরাতে জমি খুঁজছে কংগ্রেস

বিজেপি সভাপতি অমিত শাহ সর্বশক্তি প্রয়োগ করলেও গুজরাত থেকে রাজ্যসভার তৃতীয় আসনটি জিতেছেন সনিয়া গাঁধীর রাজনৈতিক সচিব পটেল।

নিজস্ব সংবাদদাতা
নয়াদিল্লি শেষ আপডেট: ২১ অগস্ট ২০১৭ ০৪:১৮
Share: Save:

অমিত শাহের আত্মবিশ্বাসে জল ঢেলে রাজ্যসভা আসন ছিনিয়ে নিয়েছেন আহমেদ পটেল। তাঁর জন্মদিনকে সামনে রেখেই সনিয়া-রাহুল গাঁধী গুজরাত জয়ের নতুন ছক কষছেন।

বিজেপি সভাপতি অমিত শাহ সর্বশক্তি প্রয়োগ করলেও গুজরাত থেকে রাজ্যসভার তৃতীয় আসনটি জিতেছেন সনিয়া গাঁধীর রাজনৈতিক সচিব পটেল। আগামিকাল তাঁর জন্মদিন। আর এই উপলক্ষে তিনি গুজরাতের ৪৩ জন বিধায়ককে দিল্লিতে মধ্যাহ্নভোজে আমন্ত্রণ জানিয়েছেন। এঁরাই বিজেপির শত প্রলোভনে পা না দিয়ে কংগ্রেসকে ভোট দিয়েছেন রাজ্যসভা নির্বাচনে। পটেলের লক্ষ্য দু’টি। এক, এই সুযোগে সনিয়া-রাহুলের সঙ্গে দলের এই অনুগত সৈনিকদের দেখা করিয়ে দেওয়া। দুই, এঁদের শীর্ষস্থানীয়দের সঙ্গে রাহুলের বৈঠকের ব্যবস্থা করা। তাঁদের সঙ্গে কথা বলে আগামী বিধানসভা নির্বাচনের কৌশল রচনা করতে চান রাহুল।

কংগ্রেসের এক নেতার ব্যাখ্যা, গুজরাতে রাজ্যসভার নির্বাচনকে অমিত শাহ মর্যাদার লড়াইয়ে পরিণত করেছিলেন। এর মধ্যেই পটেলের জয় গোটা দেশেই কংগ্রেসকে অক্সিজেন জুগিয়েছে। লোকসভা ভোটের পর থেকে একের পর এক নির্বাচনে কংগ্রেস সে ভাবে মাথা তুলে দাঁড়াতে পারেনি। পটেলের জয়ে কংগ্রেসের মধ্যে এই বিশ্বাস তৈরি হয়েছে যে, একজোট হয়ে লড়লে বিজেপিকেও অনায়াসে পরাস্ত করা যায়। আর সেই ঐক্যের ছবিটি সামনে রেখেই সামনের নির্বাচনগুলিতে জয় পেতে চায় কংগ্রেস। তাই এই বিধায়কদের শুধু দিল্লিতে নয়, তিরুপতিতেও নিয়ে যাওয়া হবে।

আরও পড়ুন: দায় কার? রেলের মধ্যেই চলছে দোষারোপ, পাল্টা দোষারোপ

এর সঙ্গেই চলবে নির্বাচনী কৌশল রচনার কাজ। গত বুধবারই দিল্লিতে কংগ্রেসের ওয়ার-রুমে গুজরাতের বিধানসভা নির্বাচন নিয়ে বৈঠক করেছেন পটেল। এক বেসরকারি সংস্থাকে দিয়ে সমীক্ষা করিয়ে দেখা গিয়েছে, গুজরাতে বহু বছর ধরে বিজেপি ক্ষমতায় থাকায় যুবকদের মধ্যে কংগ্রেসের প্রতি ঝোঁক তৈরি হয়নি। এই অবস্থায় কী ভাবে যুবকদের আকৃষ্ট করা যায়, তা নিয়ে একপ্রস্ত আলোচনা হয়। গুজরাতের কিছু শীর্ষনেতার সঙ্গে বসে রাহুল নির্বাচনী কেন্দ্র ধরে ধরে ঘুঁটি সাজানোর কাজটিও করেন।

পটেলের জয়কে ঘিরে কংগ্রেসের ঘুরে দাঁড়ানোর এই চেষ্টা অর্থহীন বলেই মনে করছে বিজেপি। তাদের মতে, পটেল রাজ্যসভা নির্বাচনে মাত্র এক ভোটে জিতলেও বিধানসভা নির্বাচনে তার কোনও প্রভাবই পড়বে না। গুজরাতের দায়িত্বপ্রাপ্ত বিজেপির সাধারণ সম্পাদক ভূপেন্দ্র যাদবের কথায়, ‘‘রাজ্যসভা আসনে আহমেদ পটেলের জয়ের কোনও গুরুত্বই নেই। কারণ, গুজরাতে কংগ্রেসের কোনও অস্তিত্বই নেই।’’ বিজেপি নেতাদের আশা, বিধানসভা ভোটের আগে আড়াআড়ি ভাঙন ধরবে কংগ্রেসে। তা ছাড়া, রাজ্যসভা ভোটে কংগ্রেস থেকে বিজেপিতে যোগ দেওয়া তৃতীয় প্রার্থী বলবন্তসিংহ রাজপুত ইতিমধ্যেই নির্বাচন কমিশনের রায়ের বিরুদ্ধে আদালতে গিয়েছেন। তার রায় না আসা পর্যন্ত পটেলের জয়ও ‘নিশ্চিত’ বলে ধরা যায় না।

(সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের Google News, X (Twitter), Facebook, Youtube, Threads এবং Instagram পেজ)
সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের মাধ্যমগুলি:
Advertisement

Share this article

CLOSE