Advertisement
২৩ জুন ২০২৪
Coronavirus Lockdown

পুলিশের তৃষ্ণা মিটিয়ে প্রশংসিত লোকমণি

অন্ধ্রপ্রদেশের পূর্ব গোদাবরী জেলার টুনি এলাকায় জাতীয় সড়কে, গত ১৫ এপ্রিল ওই প্রৌঢ়া ও পুলিশের কথোপকথনের মিনিট চারেকের ভিডিয়ো ভাইরাল হয়েছে।

ভাইরাল সেই ভিডিয়োতে আভভারি লোকমণি।

ভাইরাল সেই ভিডিয়োতে আভভারি লোকমণি।

মেহবুব কাদের চৌধুরী
কলকাতা শেষ আপডেট: ২২ এপ্রিল ২০২০ ০৫:৪২
Share: Save:

লকডাউনে দেশজুড়ে দুঃস্থ মানুষের হাতে খাবার তুলে দিচ্ছে পুলিশ। আর প্রবল গরমে রাস্তায় কর্তব্যরত পুলিশকে ঠান্ডা পানীয়ের বোতল দিয়ে সংবর্ধিত হলেন এক দরিদ্র মহিলা।

অন্ধ্রপ্রদেশের পূর্ব গোদাবরী জেলার টুনি এলাকায় জাতীয় সড়কে, গত ১৫ এপ্রিল ওই প্রৌঢ়া ও পুলিশের কথোপকথনের মিনিট চারেকের ভিডিয়ো ভাইরাল হয়েছে। অন্ধ্রপ্রদেশের ডিজিপি গৌতম সাওয়ান প্রত্যন্ত গ্রামের ওই বাসিন্দা— আভভারি লোকমণিকে খুঁজে বের করে, তাঁর বাড়িতে গিয়ে তাঁকে সংবর্ধিত করেছেন। গৌতম ফোনে বলেন, ‘‘মাত্র সাড়ে তিন হাজার টাকা বেতনে, বেসরকারি বিদ্যালয়ে আয়ার কাজ করেন ওই মহিলা। গরমে কাবু পুলিশের হাতে তিনি যে ভাবে সহমর্মিতার সঙ্গে ঠান্ডা পানীয়ের বোতল তুলে দিয়েছিলেন, তা দৃষ্টান্তমূলক। ওঁর মাতৃসুলভ মানসিকতায় সারা দেশ মুগ্ধ। ওঁকে খুঁজে বের করে আমরা প্রণাম জানালাম।’’ ভিডিয়োর শেষে পুলিশ অফিসারকে বলতে শোনা গিয়েছে, ‘‘আম্মা, তুমি রোজ এক বার দেখা দেবে। তুমি আমাদের মা।’’ কলকাতার পুলিশ কমিশনার অনুজ শর্মা ওই ভিডিয়ো দেখে বলেন, ‘‘ওই মহিলা প্রণম্য। ওঁর মানবিক বোধ থেকে আমাদের প্রত্যেকের শেখার আছে।’’

সোশ্যাল মিডিয়ায় ভিডিয়ো দেখে অন্ধ্রপ্রদেশের ডিজিপি ওই মহিলাকে খুঁজে বের করতে তাঁর বাহিনীকে নির্দেশ দেন। চার সন্তানের জননী, বছর পঞ্চান্নের আভভারি বিশাখাপত্তনম জেলার মণ্ডল এলাকার বাসিন্দা। স্বামী মিষ্টির প্যাকেট তৈরির কাজ করেন। মোবাইলে ওঁর সঙ্গে কথোপকথনে তর্জমায় সাহায্য করছিলেন পাশে থাকা পুলিশ আধিকারিক। লোকমণির কথায়, ‘‘লকডাউনে আমরা বাড়িতে থাকলেও পুলিশ, স্বাস্থ্যকর্মীরা অনলস কাজ করে চলেছেন। গরমে পুলিশকে কষ্ট পেতে দেখে খুব মায়া হয়েছিল। সে দিনের পাওয়া বেতনের টাকা থেকে দোকান থেকে কোল্ড ড্রিঙ্কস পুলিশের হাতে দিয়েছিলাম। সেই সামান্য কাজের জন্য ডিজিপি স্যার আমাকে যে ভাবে স্যালুট করলেন, তাতে আমি অভিভূত।’’

মনোবিদ নীলাঞ্জনা সান্যালের পর্যবেক্ষণ, ‘‘মাতৃসুলভ মানসিকতায় স্বতঃস্ফূর্ত ভাবে পুলিশকে সাহায্য করেছেন অন্ধ্রের ওই মহিলা। আর্থিক ক্ষমতা না-থাকলেও ওই মহিলার মন অনেক বড়। উনি মনোসম্রাজ্ঞী।’’

আরও পড়ুন: সাংবাদিক-স্বাধীনতা: কাশ্মীর-পরিস্থিতির কারণেই আরও পতন ভারতের!

আরও পড়ুন: গুণমান নিয়ে প্রশ্ন, চিনা কিটে আপাতত করোনা-পরীক্ষা বন্ধের নির্দেশ


(অভূতপূর্ব পরিস্থিতি। স্বভাবতই আপনি নানান ঘটনার সাক্ষী। শেয়ার করুন আমাদের। ঘটনার বিবরণ, ছবি, ভিডিয়ো আমাদের ইমেলে পাঠিয়ে দিন, feedback@abpdigital.in ঠিকানায়। কোন এলাকা, কোন দিন, কোন সময়ের ঘটনা তা জানাতে ভুলবেন না। আপনার নাম এবং ফোন নম্বর অবশ্যই দেবেন। আপনার পাঠানো খবরটি বিবেচিত হলে তা প্রকাশ করা হবে আমাদের ওয়েবসাইটে।)

(সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের Google News, X (Twitter), Facebook, Youtube, Threads এবং Instagram পেজ)

অন্য বিষয়গুলি:

Coronavirus Lockdown
সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের মাধ্যমগুলি:
Advertisement

Share this article

CLOSE