Follow us on

Download the latest Anandabazar app

© 2021 ABP Pvt. Ltd.

Advertisement

২১ জানুয়ারি ২০২২ ই-পেপার

আগামী শিক্ষাবর্ষে কমতে পারে স্কুল-কলেজের সিলেবাস, ইঙ্গিত পোখরিয়ালের

সংবাদ সংস্থা
নয়াদিল্লি ০৯ জুন ২০২০ ১৮:৩২
স্কুল-কলেজ ফের খুললেও আগামী শিক্ষাবর্ষের পাঠ্যসূচি (সিলেবাস)-র বহর কি ছেঁটে ফেলা হবে? ছবি: সংগৃহীত।

স্কুল-কলেজ ফের খুললেও আগামী শিক্ষাবর্ষের পাঠ্যসূচি (সিলেবাস)-র বহর কি ছেঁটে ফেলা হবে? ছবি: সংগৃহীত।

করোনা-সংক্রমণ ঠেকাতে বন্ধ রয়েছে স্কুল, কলেজ, বিশ্ববিদ্যালয়-সহ দেশের সমস্ত শিক্ষা প্রতিষ্ঠান।

তবে স্কুল-কলেজ ফের খুললেও আগামী শিক্ষাবর্ষের পাঠ্যসূচি (সিলেবাস)-র বহর কি ছেঁটে ফেলা হবে? এ বিষয়ে সিদ্ধান্ত না হলেও তেমনটাই চিন্তা-ভাবনা করছে কেন্দ্রীয় সরকার। মঙ্গলবার কেন্দ্রীয় মানবসম্পদ উন্নয়ন মন্ত্রী রমেশ নিশঙ্ক পোখরিয়াল জানিয়েছেন, বর্তমান পরিস্থিতিতে অভিভাবক এবং শিক্ষকদের অনুরোধে পাঠ্যসূচি কমানো যায় কি না, তা ভেবে দেখা হচ্ছে। সেই সঙ্গে শিক্ষণের সময়ও কমিয়ে ফেলা হতে পারে বলে জানিয়েছেন তিনি।

এ দিন একাধিক টুইটে পাঠ্যসূচি কমিয়ে ফেলার বিষয়ে ইঙ্গিত দিয়েছেন কেন্দ্রীয় মন্ত্রী পোখরিয়াল। একটি টুইটে তিনি লিখেছেন, “বর্তমান পরিস্থিতির কথা মাথায় রেখে এবং অভিভাবক ও শিক্ষকদের কাছ থেকে বহু অনুরোধ আসার পর আগামী শিক্ষাবর্ষের সিলেবাস ও শিক্ষণের সময়সীমা কমানোর বিকল্প বিবেচনা করছি আমরা।”

Advertisement


আরও পড়ুন: করোনা আক্রান্ত জ্যোতিরাদিত্য সিন্ধিয়া ও তাঁর মা, ভর্তি দিল্লির হাসপাতালে

পাঠ্যসূচির কমানোর বিষয়ে অভিভাবক এবং শিক্ষা জগতের সঙ্গে যুক্ত সকলের মতামতও জানতে চেয়েছেন পোখরিয়াল। অপর এক টুইটে তাঁর অনুরোধ, “এ বিষয়ে নিজেদের মতামত জানাতে সমস্ত শিক্ষক, শিক্ষাবিদের কাছে আ্রর্জি জানাচ্ছি। আমার ফেসবুক পেজ বা টুইটারে অথবা এমএইচআরডি-তে #সিলেবাসফরস্টুডেন্টস২০২০ ব্যবহার করে নিজেদের মত জানান। যাতে সিদ্ধান্ত গ্রহণের সময় তা বিবেচিত হয়।”

আরও পড়ুন: ২৪ ঘণ্টায় রেকর্ড মৃত্যু, দেশে করোনায় আক্রান্ত ২.৬৬ লক্ষ

দেশ জুড়ে গত ১৬ মার্চ থেকে স্কুল-কলেজ বন্ধ রয়েছে। ৩০ মে লকডাউন শিথিল করার কথা ঘোষণা করা হলেও স্কুল-কলেজ কবে খুলবে, তা নিয়ে কোনও ঘোষণা করা হয়নি। দেশের ৩৩ কোটি পড়ুয়ার অনিশ্চয়তা কাটিয়ে সম্প্রতি একটি সাক্ষাৎকারে পোখরিয়াল জানিয়েছেন, আগামী ১৫ অগস্টের পর স্কুল-কলেজ খোলার সম্ভাবনা রয়েছে। যদিও সে ক্ষেত্রেও পড়ুয়াদের স্বাস্থ্য সংক্রান্ত বিষয়ে সুরক্ষায় কড়া নজর দেওয়া হবে বলে জানিয়েছেন তিনি। তবে সোমবার একটি বৈঠকের পর পোখরিয়াল জানিয়েছেন, স্কুল-কলেজের মতো শিক্ষা প্রতিষ্ঠান খোলার আগে পরিস্থিতি স্বাভাবিক হওয়াটাও জরুরি। এবং এ বিষয়ে রাজ্য সরকারের পাশাপাশি কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্র মন্ত্রক এবং স্বাস্থ্যমন্ত্রকের সঙ্গে পরামর্শ করার পরই সিদ্ধান্ত নেওয়া হবে। গোটা বিষয়ে পড়ুয়াদের স্বাস্থ্যসুরক্ষার বিষয়টি অগ্রাধিকার পাবে।

পোখরিয়াল জানিয়েছেন, সোমবার পড়ুয়াদের স্বাস্থ্যসুরক্ষা-সহ অনলাইন শিক্ষা নিয়ে সমস্ত রাজ্যের সঙ্গে বৈঠক করেন কেন্দ্রীয় স্কুল শিক্ষা সচিব অনিতা করবাল। স্বরাষ্ট্র মন্ত্রক এবং স্বাস্থ্য মন্ত্রকের সবুজ সঙ্কেত পাওয়ার পরই এ নিয়ে চূড়ান্ত নির্দেশিকা জারি করা হবে।

আরও পড়ুন

Advertisement