Follow us on

Download the latest Anandabazar app

© 2021 ABP Pvt. Ltd.

Advertisement

১৯ সেপ্টেম্বর ২০২১ ই-পেপার

COVID-19 vaccine: পাকিস্তান হামলা করলে আত্মরক্ষার দায়ও কি রাজ্যের, টিকা সঙ্ঘাতে কেন্দ্রকে আক্রমণ কেজরীর

সংবাদ সংস্থা
নয়াদিল্লি ২৬ মে ২০২১ ১৮:৪৭
মোদীকে আক্রমণ কেজরীর।

মোদীকে আক্রমণ কেজরীর।
—ফাইল চিত্র।

আগেভাগে ঘোষণা হয়ে গেলেও, প্রাপ্তবয়স্কদের টিকাকরণ এখনও অথৈ জলেই। তার মধ্যেই টিকা কেনার দায় রাজ্যগুলির ঘাড়ে ঠেলে দেওয়ার জন্য কেন্দ্রীয় সরকারকে তীব্র আক্রমণ করলেন দিল্লির মুখ্যমন্ত্রী অরবিন্দ কেজরীবাল। তাঁর যুক্তি, এই মুহূর্তে যা পরিস্থিতি, তাতে টিকা কিনতে পরস্পরের সঙ্গে টেক্কা দিতে অক্ষম রাজ্যগুলি। তিনি আরও মন্তব্য করেন, এর পর এমন দিনও আসতে পারে, যে পাকিস্তান হামলা করলেও রাজ্যগুলিকে যার যার মতো অস্ত্রশস্ত্র এবং যুদ্ধ সরঞ্জাম কিনতেও বাধ্য করা হতে পারে।

বুধবারও দিল্লিতে নতুন করে সংক্রমিত হয়েছেন দেড় হাজারের বেশি মানুষ। দৈনিক মৃত্যুও দেড়শোর উপরেই রয়েছে। কিন্তু সার্বিক টিকাকরণ এখনও সে ভাবে গতিই পায়নি। এ নিয়ে কেন্দ্রকে একহাত নেন কেজরীবাল। তিনি বলেন, ‘‘দেশ টিকা কিনছে না কেন? রাজ্যের উপর এ ভাবে দায় চাপিয়ে দেওয়া যায় না। কোভিডের বিরুদ্ধে যুদ্ধে আমাদের। এখন যদি পাকিস্তান হামলা করে, যার যার মতো করে আত্মরক্ষার ভারও কি রাজ্যগুলির উপর ছেড়ে দেবে কেন্দ্র? উত্তরপ্রদেশ কি নিজের জন্য ট্যাঙ্ক কিনবে? দিল্লিকে কি নিজের জন্য বন্দুক কিনতে হবে?’’

করোনার দ্বিতীয় ঢেউ ভয়ঙ্কর আকার ধারণ করার জন্যও কেন্দ্রকেই দায়ী করেছেন কেজরীবাল। তিনি বলেন, ‘‘বাকি দেশগুলি সময় থাকতেই টিকাককরণে উদ্যোগী হয়েছিল। কিন্তু ভারত ছ’মাস দেরি করেছে। ভারতে প্রথম টিকা ভারতীয়রাই তৈরি করেন। তখন থেকেই টিকা মজুত করা উচিত ছিল। তা হলে করোনার দ্বিতীয় ঢেউয়ে কিছু মৃত্যু অন্তত আটকানো যেত।’’

Advertisement

সামান্য ওঠানামা করলেও, গত ১২ মে থেকে অধিকাংশ সময়ই দেশে দৈনিক মৃত্যু ৪ হাজারের উপর রয়েছে। বুধবারও দেশে ৪ হাজার ১৫৭ জন করোনা রোগীর মৃত্যু হয়েছে। কিন্তু তা সামাল দিতে যে পরিমাণ টিকার প্রয়োজন, তার সিকিভাগও নেই বলে অভিযোগ তুলেছে একাধিক রাজ্য। চাহিদার ৫০ শতাংশ টিকা কেনার ভার কেন্দ্রীয় সরকার রাজ্যের উপর ছেড়ে দিলেও, বেশির ভাগ সংস্থাই রাজ্যগুলিকে টিকা দিতে রাজি হচ্ছে না বলেও অভিযোগ সামনে এসেছে। কেন্দ্রের নিষেধ রয়েছে জানিয়ে ভারত বায়োটেক তাদের টিকা দিতে রাজি হয়নি বলে জানিয়েছেন দিল্লির স্বাস্থ্যমন্ত্রী মণীশ সিসৌদিয়া। পঞ্জাবের মুখ্যমন্ত্রী ক্যাপ্টেন অমরেন্দ্র সিংহ জানিয়েছেন, আমেরিকার ফাইজার তাঁদের টিকা বিক্রি করতে রাজি হয়নি।

এমন পরিস্থিতিতে অন্যান্য দেশের মতো কেন্দ্রকেই দেশবাসীর টিকাকরণের ভার নিতে হবে বলে মত কেজরীবালের। তাঁর বক্তব্য, ‘‘আমাদের যুদ্ধ করোনার বিরুদ্ধে। পরস্পরকে টেক্কা দেওয়ার সময় নয় এটা। প্রধানমন্ত্রীকে বলব, টিকা জোগাড় করা আমাদের কাজ নয়। আপনি এনে দিলে তবেই নিজেদের দায়িত্ব পালন করতে পারব।’’

আরও পড়ুন

More from My Kolkata
Advertisement