Follow us on

Download the latest Anandabazar app

© 2021 ABP Pvt. Ltd.

Advertisement

১৯ অক্টোবর ২০২১ ই-পেপার

‘ফ্যাক্ট চেক’ প্রকাশ করে টুইটারে অমিত শাহকে বিঁধলেন ডেরেক

সংবাদ সংস্থা
নয়াদিল্লি ২০ ডিসেম্বর ২০২০ ১৮:২১
ফাইল চিত্র।

ফাইল চিত্র।

মেদিনীপুরের সভা থেকে রাজ্য সরকারকে একের পর এক সমালোচনায় বিদ্ধ করেছেন অমিত শাহ। অমিতের ভাষণে উঠে এসেছে আয়ুষ্মান ভারত থেকে আমপানে কেন্দ্রীয় সরকারের সাহায্যের নানা প্রসঙ্গ। এ বার সেই ভাষণের জবাব দিলেন তৃণমূলের রাজ্যসভার সাংসদ ডেরেক ও ব্রায়েন। টুইটারে ফ্যাক্ট চেক প্রকাশ করলেন তিনি। মোট ১৫টি আলাদা আলাদা পয়েন্টে দাবি করলেন, অমিত শাহের কথা বেশিরভাগই মিথ্যা।

সুব্রত মুখোপাধ্যায় আগেই সাংবাদিক বৈঠকে বলেছিলেন, মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় দলবদল করেননি, কংগ্রেস ছেড়ে বেরিয়ে আলাদা দল তৈরি করেছিলেন। ডেরেকও সে কথা মনে করিয়ে দিলেন। আয়ুষ্মান ভারত নিয়ে ডেরেকের মন্তব্য, কেন্দ্রীয় সরকারের এই প্রকল্পের দু’বছর আগে স্বাস্থ্যসাথী প্রকল্প তৈরি করেছিলেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। তাঁর মোদ্দাকথা রাজ্য সরকার অনেক আগেই এই প্রকল্প চালু করেছে। বিজেপি কর্মীর মৃত্যু প্রসঙ্গেও ডেরেক লিখেছেন, বিজেপির গোষ্ঠীদ্বন্দ্বের ফলে গত দেড় বছরে বেশিরভাগ বিজেপি কর্মীর মৃত্যু হয়েছে।পিএম কিসান ফান্ডের ৬ হাজার টাকার হিসাব ভেঙে দেখিয়ে ডেরেক বলেছেন, একর প্রতি ১,২১৪ টাকা দেয় কেন্দ্রীয় সরকার। কিন্তু রাজ্য সরকার একক ভাবে বার্ষিক একজন কৃষককে পাঁচ হাজার টাকা অনুদান দেয়।

Advertisement

খাদ্যসাথী প্রকল্পের কথা উল্লেখ করে ডেরেক লেখেন, এমনিতেই খাদ্যসাথী প্রকল্পের আওতায় ১০ কোটি মানুষ বিনামূল্যে রেশন পান। ২০২১ সালের জুন পর্যন্ত পাবেন। তাই কেন্দ্রীয় খাদ্যের সাহায্য তৃণমূল নেতারা চুরি করেছেন, এই অভিযোগ ঠিক নয়।এ ছাড়াও গৃহনির্মাণ প্রকল্প থেকে শুরু করে জেপি নড্ডার সফরে নিরাপত্তার অভাব, সব কিছু নিয়েই রবিবার জবাব দিয়েছেন ডেরেক ও ব্রায়েন।

আরও পড়ুন: রাজপথে অমিত, বোলপুরের পাড়ায় পাড়ায় ‘চ্যালেঞ্জ’ মিছিলে অনুব্রত​

আরও পড়ুন: হাওয়ায় ভোট জেতা যাবে না, সংগঠনই মূল, অমিত-পরামর্শ

আরও পড়ুন

Advertisement