Follow us on

Download the latest Anandabazar app

© 2021 ABP Pvt. Ltd.

Advertisement

০২ ডিসেম্বর ২০২১ ই-পেপার

কাল ঘেরাও, মুম্বইয়ে কৃষক জমায়েত বাড়ছে, চাপে বিজেপি সরকার

সংবাদ সংস্থা
মুম্বই ১১ মার্চ ২০১৮ ১৭:৩৯
মুম্বইয়ে কৃষকদের মিছিল। ছবি- সংগৃহীত।

মুম্বইয়ে কৃষকদের মিছিল। ছবি- সংগৃহীত।

কাঁধে কাস্তে-হাতুড়ি আঁকা লাল ঝাণ্ডা নিয়ে কাতারে কাতারে কৃষক হেঁটে আসছেন মুম্বইয়ের দিকে। সংখ্যাটা ইতিমধ্যেই ৩০ হাজার ছাপিয়ে গিয়েছে। ঋণ মকুব, ফসলের ন্যায্য দাম, লাঙল যার, জমি তার থেকে আদিবাসীদের অরণ্যের জমির উপরে অধিকারের মতো একগুচ্ছ দাবি নিয়ে ৬ মার্চ থেকে পথ হেঁটেছেন ওই কৃষকরা। কলকাতা থেকে দুর্গাপুরের দূরত্ব যতটা, প্রায় ততটা দূরত্ব পায়ে হেঁটে এসে সোমবার তাঁরা ঘেরাও করবেন মহারাষ্ট্রের বিধানসভা ভবন।

ত্রিপুরার ২৫ বছরের দুর্গে ধস নামার পরে এ দেশে বামেরা যখন রীতিমতো কোণঠাসা, তখন বিজেপি শাসিত মহারাষ্ট্রেই সিপিএমের কৃষক সভার ডাকে এ হেন আন্দোলন বিজেপি-র ‘গড়’ মহারাষ্ট্রের দেবেন্দ্র ফডণবীসের সরকারকে চিন্তায় ফেলে দিয়েছে। সোমবার মুম্বইতে আজাদ ময়দানের কাছেই কৃষকদের পদযাত্রা আটকে দেওয়ার পরিকল্পনা নিয়েছে রাজ্য প্রশাসন।

কিন্তু যে ভাবে চাষিরা কৃষক সভার ঝান্ডা হাতে নিয়ে রাস্তায় নেমেছেন, তাতে উদ্বিগ্ন বিজেপি নেতৃত্ব। কৃষক সভার মহারাষ্ট্র রাজ্য কমিটির সাধারণ সম্পাদক অজিত নাওয়ালে বলেছেন, ‘‘হেঁটে আসা কৃষকদের সংখ্যাটা আগামী কাল ৬০ হাজারও ছাপিয়ে যেতে পারে।’’ কৃষক নেতাদের সঙ্গে কথা বলতে মন্ত্রী গিরীশ মহাজনকে দায়িত্ব দিয়েছেন মুখ্যমন্ত্রী দেবেন্দ্র ফডণবীশ।

Advertisement

বুলেট-ট্রেন-সুপার হাইওয়ের মতো প্রকল্প করে বিজেপি সরকার চমক দিতে চাইছিল। সেই প্রকল্পের নামেই জমি অধিগ্রহণের বিরোধিতায় চাষিরা পথে নেমেছেন।

মহারাষ্ট্রে দেবেন্দ্র ফডণবীসের সরকার আগেই ৩৬ হাজার কোটি টাকার ঋণ মকুবের কথা ঘোষণা করে দিয়েছিল। কিন্তু কৃষক সভার যুগ্ম সম্পাদক বিজু কৃষ্ণনের কথায়, ‘‘সরকার এমন সব শর্ত রেখেছে যে ঋণের খুব সামান্য টাকাই মকুব হবে। প্রধানমন্ত্রী ঘটা করে ফসল বিমা যোজনা ঘোষণা করেছেন। কিন্তু প্রাকৃতিক দুর্যোগে ফসল নষ্ট হলেও ক্ষতিপূরণ মিলছে না। বুলেট ট্রেন-সুপার হাইওয়ের নামে আদিবাসীদের জমি কেড়ে নেওয়া হচ্ছে।’’

আরও পড়ুন- কৃষকদের লাল মিছিলে কপালে ভাঁজ বিজেপির​

আরও পড়ুন- ‘বাবাকে বলেছিলাম, তোমায় মরতে হবে’​

কৃষক সভার সাধারণ সম্পাদক হান্নান মোল্লার বক্তব্য, তাঁদের উদ্যোগে রাজস্থান ও মধ্যপ্রদেশে আন্দোলনে সাফল্য মিলেছে। এ বার মহারাষ্ট্রে আন্দোলনকে সমর্থন করতে বাধ্য হয়েছে বিরোধী দলগুলি।

কৃষক সভার এই বিক্ষোভ সমাবেশকে সমর্থন করেছে মহারাষ্ট্র প্রদেশ কংগ্রেস ও শিবসেনা।



Tags:

আরও পড়ুন

Advertisement