Advertisement
০৫ ফেব্রুয়ারি ২০২৩
rape

Jhansi woman: বিয়ের নিমন্ত্রণ করার সময় অপহৃত, উত্তরপ্রদেশে গণধর্ষণের পর বিক্রি করা হল তরুণীকে

দাতিয়ায় ওই ব্যক্তির কাছে কিছু দিন থাকার পর নির্যাতিতা কোনও রকমে তাঁর বাবাকে ফোন করে সব খুলে বলেন। এর পর তাঁকে উদ্ধার করা হয়।

প্রতীকী ছবি।

সংবাদ সংস্থা
ঝাঁসি শেষ আপডেট: ১০ মে ২০২২ ০৯:৫৬
Share: Save:

ফের নারী-নিরাপত্তার করুণ ছবি ধরা পড়ল উত্তরপ্রদেশে। ঝাঁসিতে ১৮ বছরের এক তরুণী নিজের বিয়ের নিমন্ত্রণ করতে বেরিয়েছিলেন। সেই সময় কয়েক জন তাঁকে অপহরণ করেন। অপহৃত তরুণীকে করা হয় গণধর্ষণ। এর পর মধ্যপ্রদেশের এক ব্যক্তির কাছে বিক্রি করে দেওয়া হয় তাঁকে। এমনই অভিযোগ করেছেন নির্যাতিতা।

সোমবার পুলিশ জানায়, নির্যাতিতা অভিযোগে জানিয়েছেন, প্রথমে তাঁকে এক রাজনৈতিক নেতার কাছে নিয়ে যাওয়া হয়। পরে অন্য এক জনের সঙ্গে ঝাঁসির পাশের জেলা মধ্যপ্রদেশের দাতিয়ায় থাকতে বাধ্য করা হয়। অভিযোগপত্রে নির্যাতিতা জানিয়েছেন, গত ১৮ এপ্রিল গ্রামেরই তিন যুবক তাঁকে অপহরণ করেন। ২১ এপ্রিল নিজের বিয়ে উপলক্ষে যাচ্ছিলেন নিমন্ত্রণ করতে। অভিযোগ, প্রথম কয়েক দিন তাঁকে একটি জায়গায় রাখার পর এক রাজনৈতিক নেতার হাতে তুলে দেওয়া হয়। পুলিশের দাবি, ওই রাজনৈতিক নেতা কিছু দিন নির্যাতিতাকে নিজের কাছে রাখেন এবং তার পর দাতিয়া জেলার এক ব্যক্তির কাছে বিক্রি করে দেন। নিজের ইচ্ছের বিরুদ্ধে নির্যাতিতাকে ওই ব্যক্তির সঙ্গেই থাকতে বাধ্য করা হয়।

Advertisement

দাতিয়ায় ওই ব্যক্তির কাছে কিছু দিন থাকার পর নির্যাতিতা কোনও রকমে তাঁর বাবাকে ফোন করে সব খুলে বলেন। এর পর পুলিশের সাহায্য নিয়ে নির্যাতিতাকে পাথারি গ্রাম থেকে উদ্ধার করা হয়।

তেহরাউলির সার্কল অফিসার (সিও) অনুজ সিংহ জানিয়েছেন, নির্যাতিতার অভিযোগের ভিত্তিতে অপহরণ, গণধর্ষণ এবং বিক্রি করে দেওয়ার মামলা রুজু করা হয়েছে। ম্যাজিস্ট্রেটের সামনে নির্যাতিতার বয়ান নথিভুক্ত করার কাজও সারা। অভিযুক্তদের বিরুদ্ধে কড়া ব্যবস্থা নেওয়া হবে বলেও জানিয়েছেন তিনি। যদিও এখনও অভিযুক্তরা অধরা।

Advertisement
(সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের Google News, Twitter এবং Instagram পেজ)
Follow us on: Save:
Advertisement
Advertisement

Share this article

CLOSE
Popup Close
Something isn't right! Please refresh.