Follow us on

Download the latest Anandabazar app

© 2021 ABP Pvt. Ltd.

Advertisement

০১ ডিসেম্বর ২০২১ ই-পেপার

খাবারে ধর্ম মেশাই না, টুইট বিতর্কে কেরলের মন্ত্রী

সংবাদ সংস্থা
তিরুঅনন্তপুরম ১৮ জানুয়ারি ২০২০ ০৫:১১

মকর সংক্রান্তির পর্যটন দফতরের টুইটারে শেয়ার করা হয়েছিল গো-মাংসের একটি পদ। সঙ্গে তার রন্ধন প্রণালী। তাতেই ক্ষিপ্ত হিন্দুত্ববাদীরা। নেটিজেনদের একাংশও এ নিয়ে ক্ষোভ জানান। পরিস্থিতি সামাল দিতে এবার উদ্যোগী হলেন রাজ্যের পর্যটন মন্ত্রী কে সুরেন্দ্রন। শুক্রবার তিনি বলেন, ‘‘কোনও ধর্মের বিশ্বাসকে আঘাত করা কেরল সরকারের অভিসন্ধি না।’’ সূত্রের খবর, তাঁর দফতরই সে দিন ওই মাংসের পদটি রান্নার প্রণালী সোশ্যাল সাইটে দিয়েছিল। সুরেন্দ্রনের দাবি, কেরলে খাদ্যের সঙ্গে ধর্মের কোনও যোগ নেই। সে দিন ওই রাজ্যের পর্যটন দফতর টুইটারে যে ছবি শেয়ার করেছিল, সেই ‘বিফ উলারথিয়াতু’ কেরলের অন্যতম জনপ্রিয় খাবার।

এ নিয়ে সরব বিজেপি নেতারা। অনেকে কেরলে বেড়ানো বয়কটের ডাকও দেন। উদুপির বিজেপি সাংসদ শোভা কারান্ডলাজে সুর চড়িয়ে বলেছেন, মকর সংক্রান্তির দিন এমন প্রচার করে কেরল সরকার রাজ্যের হিন্দুদের বিশ্বাসে আঘাত হেনেছে। অভিযোগ খারিজ করে সুরেন্দ্রন বলেন, ‘‘এ সব ভিত্তিহীন বিতর্ক।’’ খাবারের মতো বিষয়কে সাম্প্রদায়িক চোখে দেখা নিন্দনীয় বলেই দাবি তাঁর। তাঁর কথায়, ‘‘যাঁরা এই বিতর্কে সাম্প্রদায়িক রং ঢালছেন, তাঁরা বলছেন শুয়োরের মাংসের ছবি দিতে। আমাদের ওয়েবসাইটে সেই ছবিও আছে। ওরা হয়তো সেটা দেখেননি। বিফ মানে মোষের মাংসও হয়। কিন্তু অনেকে সেটা চেপে গরুর মাংস বলে প্রচার করেন।’’ রাজ্যের পর্যটন মন্ত্রীর দাবি, ‘‘দেশে আমাদের রাজ্য বেশি পর্যটক-বান্ধব। তাই পর্যটনের প্রচারে খাবারের সঙ্গে আরও অনেক কিছুর প্রচারই আমরা করে থাকি।’’

Advertisement

আরও পড়ুন

Advertisement