×

আনন্দবাজার পত্রিকা

Advertisement

১৪ জুন ২০২১ ই-পেপার

দেশ

ভারতের সবচেয়ে ধনী পরিবারের আত্মীয়, নীতা অম্বানীর নিজের বোন এতটা সাধারণ জীবন কাটান!

নিজস্ব প্রতিবেদন
০১ অক্টোবর ২০১৯ ১৫:১৫
অম্বানী পরিবারের হাল হকিকত কার অজানা! মুকেশ, নীতা, ঈশা, আকাশ এঁদের প্রায় সকলের সম্বন্ধেই সমস্ত তথ্য দেশবাসীর জানা। নীতা অম্বানীর কতগুলো গাড়ি রয়েছে, কার ডিজাইন করা পোশাক তিনি পরেন, সব খবর ঠিক সময়ে পৌঁছে যায় ভক্তদের কাছে। কিন্তু জানেন কি এত ধনী পরিবারের অত্যন্ত কাছের এক আত্মীয় নিতান্ত সাদামাটা জীবন কাটান?

তিনি নীতা অম্বানীর বোন মমতা দালাল। বোন মমতাকে অনেকটা নীতার মতোই দেখতে। দুই বোনের মুখের অনেক মিল রয়েছে। কিন্তু এটাও ঠিক যে মুখ দেখেই দু’জনের মাঝে লাইফস্টাইলের বিস্তর ফারাকটাও সহজেই বোঝা যায়। সাধারণত কোনও অনুষ্ঠান ছাড়া খুব বেশি সাজগোজও করেন না তিনি।
Advertisement
মুম্বইয়েই জন্ম মমতা দালালের। মমতা লাইমলাইট থেকে নিজেকে সম্পূর্ণ দূরে রাখেন। অম্বানী পরিবারের যে কোনও অনুষ্ঠানে তিনি উপস্থিত থাকলেও,  ক্যামেরায় খুব একটা ধরা দেন না।

বাবা রবীন্দ্রভাই দালাল এবং মা পূর্ণিমা দালাল। তাঁর সম্বন্ধে শুধুমাত্র এটুকু তথ্যই রয়েছে। তাঁর পড়াশোনা, ব্যক্তিগত জীবন, বিয়ে করেছেন কি না, সন্তান রয়েছে কি না এগুলোর কিছুই জানা যায় না।
Advertisement
মমতা দালালের জীবন ধারণও একেবারেই সাধারণ। অম্বানী পরিবারের গ্ল্যামারের ঝলক তাঁর মধ্যে একেবারেই নেই। ২০১৯ সালে মার্চে অম্বানী পুত্র আকাশ তাঁর ছেলেবেলার বান্ধবী শ্লোকা মেহতাকে বিয়ে করেন। সেই অনুষ্ঠানেই মা পূর্ণিমা এবং বোন মমতাকে দেখা গিয়েছিল।

মমতা দালাল একজন শিক্ষিকা। ধীরুভাই অম্বানী ইন্টারন্যাশনাল স্কুলে তিনি পড়ান। নীতা অম্বানীও বিয়ের আগে শিক্ষিকা ছিলেন। এমনকি বিয়ের কয়েক বছর পর পর্যন্তও নীতা অম্বানী শিক্ষকতা করেছেন।

বিয়ের পর ভোগ ম্যাগাজিনে একটা সাক্ষাৎকারে অম্বানী কন্যা ইশা তাঁর মাসি মমতা দালালের কথা উল্লেখ করেন। ইশা জানিয়েছিলেন, তাঁর বাবা-মার বিয়ের সাত বছর পর তাঁদের (ইশা এবং আকাশ) জন্ম হয়।

আইভিএফ পদ্ধতিতে তাঁদের জন্ম হয়েছিল। তখন নাকি দিদা পূর্ণিমা এবং মাসি মমতা দালাল ভীষণ ভাবে সাহায্য করেছিলেন নীতাকে। মাসিই নাকি তাঁদের বড় করে তোলেন। ছেলেমেয়ের দেখভালের জন্য মা নীতা অম্বানীও শিক্ষকতা ছেড়ে দেন।

মমতা দালাল শুধু মাত্র ধীরুভাই অম্বানী ইন্টারন্যাশনাল স্কুলের শিক্ষকতাই করেন না, তিনি স্কুল অ্যাডমিনিস্ট্রেটরও।

এ ছাড়াও তিনি সচিন তেণ্ডুলকরের মেয়ে এবং শাহরুখ খানের মেয়েকেও পড়িয়েছেন। তবে মমতার কাছে এটা আলাদা কোনও বিষয় নয়। সমস্ত পড়ুয়াই তাঁর কাছে সমান, জানিয়েছেন তিনি।

আজকাল যখন সকলেই কমবেশি সোশ্যাল মিডিয়ায় থাকেন, মমতা দালাল কিন্তু একেবারে আলাদা। এখনও পর্যন্ত তাঁর কোনও সোশ্যাল মিডিয়া পেজও নেই।