×

আনন্দবাজার পত্রিকা

Advertisement

২৩ জানুয়ারি ২০২১ ই-পেপার

চিট ফান্ড আইন সংশোধনে বিল

নিজস্ব সংবাদদাতা
নয়াদিল্লি০১ অগস্ট ২০১৯ ০৩:৩৩

সারদা-রোজ ভ্যালির মতো বেআইনি অর্থলগ্নি সংস্থাগুলি সাধারণ ভাবে ‘চিট ফান্ড’ বলে পরিচিত হলেও তারা আদতে চিট ফান্ড নয়। গরিব মানুষ বা ছোট ব্যবসায়ীদের আর্থিক প্রয়োজনের সময় সাহায্যের হাত বাড়িয়ে দেয় যে সব চিট ফান্ড সংস্থা, তাদের ব্যবসা আদৌ বেআইনি নয়। এই সব ফান্ডে মূলত আমজনতা অল্প অল্প করে অর্থ সঞ্চয় করেন এবং প্রয়োজনমতো ঋণ নেন।

এই সব চিট ফান্ডের অপব্যবহার রুখতে এবং গরিব আমানতকারীদের অর্থ সুরক্ষিত রাখতে পুরনো আইন সংশোধন করতে চলেছে মোদী সরকার। গত লোকসভায় বিল এলেও সময়ের অভাবে তা পাশ হয়নি। আজ মন্ত্রিসভায় অনুমোদনের পর চলতি অধিবেশনেই বিল পেশ হবে। তথ্য-সম্প্রচার মন্ত্রী প্রকাশ জাভড়েকর বলেন, ‘‘অর্থ মন্ত্রকের সংসদীয় স্থায়ী কমিটির সুপারিশ অনুযায়ী বিলের খসড়ায় বদল হয়েছে। অনিয়ন্ত্রিত সঞ্চয় প্রকল্পে নিষেধাজ্ঞা আইনের সঙ্গে চিট ফান্ড আইনে সংশোধন করে বেআইনি অর্থলগ্নি সংস্থার কারবার পুরোপুরি বন্ধ করা যাবে।’’

বিল অনুযায়ী, বিভ্রান্তি রুখতে চিট ফান্ডের বদলে ‘ফ্রেটারনিটি ফান্ড’ বা ‘রোসকা’ (রোটেটিং সেভিংস অ্যান্ড ক্রেডিট অ্যাসোসিয়েশন) শব্দটি ব্যবহার করা যাবে। পাশাপাশি, ব্যক্তিগত আমানতের ঊর্ধ্বসীমা ১ থেকে বাড়িয়ে ৩ লক্ষ টাকা এবং সংস্থার ক্ষেত্রে ৬ থেকে বাড়িয়ে ১৮ লক্ষ টাকা করা হচ্ছে।

Advertisement
Advertisement