×

আনন্দবাজার পত্রিকা

Advertisement

২০ এপ্রিল ২০২১ ই-পেপার

কঙ্গনার জন্য সময় আছে কৃষকদের জন্য নেই, মহারাষ্ট্রের রাজ্যপালকে শরদ-কটাক্ষ

সংবাদ সংস্থা
মুম্বই ২৫ জানুয়ারি ২০২১ ১৮:১৩
কৃষক সমাবেশে শরদ পওয়ার।

কৃষক সমাবেশে শরদ পওয়ার।
ছবি: পিটিআই।

বিতর্কিত ৩ কৃষি আইনের বিরুদ্ধে আন্দোলনকারী কৃষক সংগঠনগুলির প্রতিনিধিদের সঙ্গে দেখা না করার মহারাষ্ট্রের রাজ্যপাল ভগৎ সিংহ কোশিয়ারিকে নিশানা করলেন এনসিপি প্রধান শরদ পওয়ার। সোমবার মুম্বইয়ের আজাদ ময়দানে কৃষক সংগঠনগুলির সভায় তাঁর কটাক্ষ, ‘‘কঙ্গনা রানাউতের সঙ্গে দেখা করার সময় হয় রাজ্যপালের। কিন্তু কৃষকদের সঙ্গে দেখা করার সময় হয় না।’’

গত সেপ্টেম্বরে অভিনেত্রী কঙ্গনা রাজ্যপাল কোশিয়ারির সঙ্গে দেখা করে অভিযোগ করেন, সুশান্ত সিংহ রাজপুতের ‘খুনের ঘটনা’ নিয়ে সরব হওয়ায় তাঁকে নিশানা করার চেষ্টা করছে মহারাষ্ট্র সরকার। মুখ্যমন্ত্রী উদ্ধব ঠাকরের বিরুদ্ধেও কঙ্গনা অভিযোগ জানিয়েছিলেন রাজ্যপালের কাছে। মহারাষ্ট্রে কৃষি বিলের বিরুদ্ধে আন্দোলনকারী কৃষক সংগঠনগুলির যৌথ মঞ্চ ‘সম্মুখ ক্ষেতকারী কামগর মোর্চা’-র পরিকল্পনা ছিল, মহারাষ্ট্রের রাজ্যপালের কাছে গিয়ে কৃষি বিল প্রত্যাহারের দাবিতে স্মারকলিপি দেওয়ার। কিন্তু রাজ্যপাল গোয়া সফরে যাওয়ার কারণে সময় দিতে পারেননি।

কৃষক সমাবেশের বক্তৃতায় বিষয়টি নিয়ে রাজ্যপালকে কঙ্গনা-প্রসঙ্গ তুলে খোঁচা দেন শরদ। পাশাপাশি, সোমবার এনসিপি প্রধান বলেন, ‘‘সংসদে সংখ্যাগরিষ্ঠতার সুযোগ নিয়ে কোনও আলোচনা ছাড়াই ৩টি বিতর্কিত বিল পাশ করিয়েছে নরেন্দ্র মোদী সরকার। আমাদের কোনও আপত্তিতে কর্ণপাত করা হয়নি। আজ দেশের প্রত্যেক কৃষক চাইছেন, ৩টি বিল প্রত্যাহার করা হোক।’’

Advertisement

দু’মাসেরও বেশি সময় ধরে দিল্লির সীমানায় কৃষি আইন প্রত্যাহারের দাবিতে অবস্থান-আন্দোলন চালিয়ে যাচ্ছেন পঞ্জাব-হরিয়ানা-উত্তরপ্রদেশ-রাজস্থানের কৃষকেরা। তাঁদের সমর্থনে পথে নেমেছে মহারাষ্ট্রের ২১টি জেলার কৃষক সংগঠন। রাজ্যের শাসক জোট ‘মহা বিকাশ আগাড়ি’র ৩ শরিক, শিবসেনা, এনসিপি এবং কংগ্রেসও এই আন্দোলনকে সমর্থন জানিয়েছে। শনিবার নাসিকের গল্‌ফ ক্লাব ময়দান থেকে ১৫ হাজারেরও বেশি কৃষকের পদযাত্রা রওনা হয়েছিল আজাদ ময়দানের উদ্দেশে।

Advertisement