Follow us on

Download the latest Anandabazar app

© 2021 ABP Pvt. Ltd.

Advertisement

০৮ অগস্ট ২০২২ ই-পেপার

URL Copied
Something isn't right! Please refresh.

Vice President Election: উপরাষ্ট্রপতি ভোটে গা নেই বিরোধীদের

রাজনৈতিক সূত্রের খবর, উপরাষ্ট্রপতি প্রার্থী নিয়ে বৈঠকে বিরোধীদের শীর্ষ পর্যায়ের নেতারা থাকছেন না।

নিজস্ব সংবাদদাতা
নয়াদিল্লি ০৫ জুলাই ২০২২ ০৬:৫৪
Save
Something isn't right! Please refresh.
ফাইল চিত্র।

ফাইল চিত্র।

Popup Close

রাষ্ট্রপতি নির্বাচনে প্রার্থী মনোনয়নকে ঘিরে বিভিন্ন বিরোধী দলকে এক মঞ্চে দেখা গিয়েছিল। ২০২৪-এর লোকসভা ভোটের আগে তাকে ঐক্যবদ্ধ জোটের প্রথম প্রয়াস হিসাবে দেখানোর চেষ্টাও হয়েছিল। কিন্তু বিরোধী প্রার্থী যশবন্ত সিন্হা রাজ্যে রাজ্যে ভোট চেয়ে ঘুরে বেড়ালেও, বিরোধীরাই বলছেন, জয়ের সামান্য সম্ভাবনাও তাঁর নেই।

রাজনৈতিক শিবিরের বক্তব্য, এর পর উপরাষ্ট্রপতি নির্বাচনে বিরোধীরা প্রার্থী দেবে ঠিকই, কিন্তু এ ক্ষেত্রে তোড়জোড় এবং উৎসাহ আরও কম দেখা যাচ্ছে নয়াদিল্লিতে। প্রথমত, এখনও পর্যন্ত কোনও নাম নিয়ে ভাবনাই শুরু হয়নি। কংগ্রেস সূত্রের বক্তব্য, পরাজয় অনিবার্য জেনে এই নিয়ে বেশি লম্ফঝম্প করতে চাইছে না সনিয়া গান্ধীর দল। তাদের এখনও পর্যন্ত কোনও পছন্দের প্রার্থীও নেই। তারা নাম কে ওয়াস্তে এই নিয়ে বৈঠকে যোগ দেবে মাত্র।

রাজনৈতিক সূত্রের খবর, উপরাষ্ট্রপতি প্রার্থী নিয়ে বৈঠকে বিরোধীদের শীর্ষ পর্যায়ের নেতারা থাকছেন না। সংসদীয় নেতারাই অ্যানেক্সি ভবনে বৈঠক সারবেন ৬ জুলাইয়ের পরে। স্থির হয়েছে, আগে বিরোধীরা বসে নিজেদের মধ্যে মতৈক্য তৈরি করবেন, তার পর একটি নাম স্থির করবেন। শীঘ্রই পওয়ার দিল্লি আসতে পারেন। সে সময়ে কয়েক জন বিরোধী নেতার সঙ্গে তাঁর এ বিষয়ে কথা হতে পারে। তবে রাষ্ট্রপতি পদপ্রার্থী বাছাই করা নিয়ে তৃণমূল নেতৃত্বের অভিজ্ঞতা ভাল নয়। শরদ পওয়ারের নাম ঠিকই করে ফেলেছিল দল, পওয়ারও মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে কথা দিয়েছিলেন। তার ভিত্তিতেই মমতা দিল্লি আসেন, সমস্ত বিরোধী দলকে বৈঠকের আমন্ত্রণ জানান। কিন্তু শেষ মুহূর্তে পওয়ার পিছিয়ে যান, তৃণমূলের প্রস্তাবিত আরও দু’জন ফারুক আবদুল্লা এবং গোপাল গান্ধী নিজেরাই পিছিয়ে যান। আগে থেকে নাম বাছাইয়ের দায় আর ঘাড়ে নিতে চাইছে না তৃণমূল বা অন্য কোনও দল। আর উপরাষ্ট্রপতি নির্বাচনে ভোটার শুধুমাত্র লোকসভা এবং রাজ্যসভার সদস্যরা। এ ক্ষেত্রে এনডিএ-র সংখ্যার ধারে কাছেও নেই বিরোধীরা। সুতরাং পরাজয় অবশ্যম্ভাবী।

Advertisement

সূত্রের খবর, মঙ্গলবার নিজেদের মধ্যে প্রাথমিক আলোচনা করবেন বিরোধী নেতাদের অনেকে। আরও একটি বিষয় মাথায় রাখতে চাইছেন বিরোধীরা। উপরাষ্ট্রপতি পদে শেষ পর্যন্ত বিজেপি নেতৃত্ব কোন তাস আস্তিন থেকে বের করে, সেটাও দেখে নিতে চাওয়া হচ্ছে। মনে করা হচ্ছে, গুলাম নবি আজাদকে উপরাষ্ট্রপতি পদে প্রার্থী হিসাবে ঘোষণা করে একটি ‘মাস্টার স্ট্রোক’ দিতে পারেন নরেন্দ্র মোদী। সে ক্ষেত্রে বিরোধীদের, বিশেষ করে কংগ্রেসের গুলামকে সমর্থন করা ছাড়া উপায় থাকবে না। জম্মু ও কাশ্মীরের কোনও প্রার্থীকে সমর্থন না করার ভুল করতে চাইবে না অন্য বিরোধীরাও। সম্প্রতি দ্রৌপদী মুর্মু রাষ্ট্রপতি পদে প্রার্থী হওয়ার পরে খোদ মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কেই বলতে শোনা গিয়েছে, আগে জানলে তিনি দ্রৌপদীকেই সমর্থন করতেন!

(সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের Google News, Twitter এবং Instagram পেজ)


Something isn't right! Please refresh.

Advertisement