Follow us on

Download the latest Anandabazar app

© 2021 ABP Pvt. Ltd.

Advertisement

০১ ডিসেম্বর ২০২১ ই-পেপার

Monsoon Session: নেতৃত্বে তৃণমূল, মমতার দিল্লি সফরের দিনেই শান্তনু প্রসঙ্গে সংসদে উজ্জ্বল বিরোধী ঐক্য

নিজস্ব সংবাদদাতা
নয়াদিল্লি ২৮ জুলাই ২০২১ ০৫:৪৩
রাজ্যসভায় বিরোধীদের প্রতিবাদ। মঙ্গলবার নয়াদিল্লিতে।

রাজ্যসভায় বিরোধীদের প্রতিবাদ। মঙ্গলবার নয়াদিল্লিতে।
ছবি পিটিআই।

মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের দিল্লি সফরের দ্বিতীয় দিনে সংসদে প্রায় নিঃশব্দে বিরোধী জোটের একটি মহড়া হয়ে গেল। যার নেতৃত্বে রইল তৃণমূল।

উপলক্ষ, বাদল অধিবেশনের বাকি দিনগুলিতে তৃণমূলের রাজ্যসভার সাংসদ শান্তনু সেনের সাসপেনশনের নির্দেশ প্রত্যাহারের দাবি। এই মর্মে একটি চিঠি আজ রাজ্যসভার চেয়ারম্যান বেঙ্কাইয়া নায়ডুর হাতে তুলে দিয়েছেন তৃণমূলের রাজ্যসভার মুখ্য আহ্বায়ক সুখেন্দুশেখর রায়। সূত্রের খবর, সেই চিঠিটির খসড়া তিনি দেখিয়ে নিয়েছেন সিপিএমের সাংসদ বিকাশরঞ্জন ভট্টাচার্য এবং কংগ্রেসের পি চিদম্বরমকে। শুধু তা-ই নয়, চিঠিটিতে বিভিন্ন বিরোধী দলের নেতাদের নাম করে বলা হয়েছে, শান্তনুকে যখন ‘নিগ্রহ’ করেছিলেন এক কেন্দ্রীয় মন্ত্রী, তখন তাঁরা উপস্থিত ছিলেন কক্ষে। প্রয়োজনে তাঁদের সবাইকে ডেকে মতামত নেওয়া যেতে পারে। উল্লেখ্য, এই নামগুলির মধ্যে রয়েছেন কংগ্রেসের পি চিদম্বরম, দিগ্বিজয় সিংহ, সমাজবাদী পার্টির রামগোপাল যাদব, ডিএমকে-র তিরুচি শিবা, এমডিএমকে-র ভাইকো, আরজেডি-র মনোজ ঝা, সিপিএমের ই করিম, বিকাশরঞ্জন ভট্টাচার্য, শিবসেনার প্রিয়ঙ্কা চতুর্বেদী এবং অকালির বলবিন্দর সিংহ।

কেন্দ্রীয় তথ্যপ্রযুক্তি মন্ত্রীর হাত থেকে পেগাসাস সংক্রান্ত বিবৃতিটি কেড়ে নিয়ে ছিঁড়ে ফেলার জেরে রাজ্যসভায় সাসপেন্ড হয়েছেন শান্তনু সেন। তৃণমূলের অভিযোগ, সংসদ মুলতুবি হওয়ার পরে শান্তনুকে ডেকে অধিবেশন কক্ষেই গালিগালাজ করেছেন পেট্রোলিয়াম মন্ত্রী হরদীপ পুরী। গোটা বিষয়টি নিয়ে রাজ্যসভার চেয়ারম্যানকে এই চিঠিটি লিখেছেন সুখেন্দু। জানিয়েছেন, দলের নির্দেশে সংশ্লিষ্ট সব বিরোধী নেতার সঙ্গে কথা বলেছেন তিনি। প্রত্যেকেই জানিয়ে দিয়েছেন, শান্তনুকে বহিষ্কারের সিদ্ধান্ত ফিরিয়ে নেওয়ার প্রশ্নে তাঁরা তৃণমূলের পাশে রয়েছেন। পাশাপাশি, সুখেন্দুশেখর তাঁর চিঠিতে হরদীপ পুরীর বিরুদ্ধে তদন্ত করে ব্যবস্থা নেওয়ার দাবিও জানিয়েছেন।

Advertisement

অন্য দিকে, আজ প্রতিরক্ষামন্ত্রী রাজনাথ সিংহ তৃণমূলের লোকসভার নেতা সুদীপ বন্দ্যোপাধ্যায়কে সংসদ চলতে সহযোগিতা করার জন্য ফোনে অনুরোধ করেন। সুদীপ তাঁকে জানিয়েছেন, তৃণমূলও চায় সংসদ চলুক। কিন্তু পেগাসাস প্রসঙ্গে যথেষ্ট সময় নিয়ে পূর্ণাঙ্গ আলোচনা এবং সেখানে প্রধানমন্ত্রী ও কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর উপস্থিতি দাবি করছে তৃণমূল। নজরদারি নিয়ে সুপ্রিম কোর্টের তদন্তও দাবি করা হচ্ছে বলে জানিয়েছেন সুদীপ।

আরও পড়ুন

Advertisement