Follow us on

Download the latest Anandabazar app

© 2021 ABP Pvt. Ltd.

Advertisement

২৬ অক্টোবর ২০২১ ই-পেপার

রাজীব-স্মরণ ঘিরে বিরোধী ঐক্যের সুর রাজধানীতে

নিজস্ব সংবাদদাতা
নয়াদিল্লি ২২ মে ২০১৭ ০২:৫৫
শ্রদ্ধা: রাজীব গাঁধীর মৃত্যুবার্ষিকীতে তাঁর সমাধিস্থল বীরভূমিতে সনিয়া। রবিবার দিল্লিতে। ছবি: পিটিআই।

শ্রদ্ধা: রাজীব গাঁধীর মৃত্যুবার্ষিকীতে তাঁর সমাধিস্থল বীরভূমিতে সনিয়া। রবিবার দিল্লিতে। ছবি: পিটিআই।

রাষ্ট্রপতি নির্বাচনকে কেন্দ্র করে আগামী সপ্তাহে রাজধানীতে বসছে বিরোধী দলগুলির বৈঠক। লক্ষ্য সার্বিক বিরোধী ঐক্য গঠন। তার ঠিক আগে আজ রাজীব গাঁধীর প্রয়াণ দিবসকে সামনে রেখে সেই সুরই বাজল বিরোধী মঞ্চে।

এখনও পর্যন্ত রাষ্ট্রপতি নির্বাচনকে উপলক্ষ করে মোদী বিরোধী জোট তৈরির লক্ষ্যে সবচেয়ে বেশি সক্রিয় মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। গত সপ্তাহে এসে দশ জনপথে সনিয়া গাঁধীর সঙ্গে বৈঠক করেছেন তিনি। আর আজ টুইট করে রাজীব প্রসঙ্গে স্মৃতিকাতর হয়েছেন তৃণমূল নেত্রী। বলেছেন, ‘রাজীবজীর ২৬তম প্রয়ান দিবসে হৃদয়ের শ্রদ্ধার্ঘ্য জানাই। কত স্মৃতি জমা রয়েছে।’’

এটা ঘটনা যে রাজ্যে রাজ্যে বিজেপি-কে ঠেকাতে বিরোধী শিবিরের অনেকেই এই মুহূর্তে ঐক্যের প্রয়োজনীয়তা অনুভব করছেন। আর তাই পশ্চিমবঙ্গে কংগ্রেস এবং তৃণমূল— এই দুই শিবিরের যুদ্ধ সত্ত্বেও জাতীয় স্তরে রাজীব গাঁধীর পরিবার তথা সনিয়া গাঁধীর সঙ্গে নিজের ব্যক্তিগত রসায়নকে সামনে নিয়ে এসেছেন মমতা। দিল্লিতে এসে একদিকে তিনি মনে করিয়ে দিয়েছেন যে, তিন দশক আগে রাজধানীতে জোট নিরপেক্ষ আন্দোলনের (ন্যাম) সম্মেলন মঞ্চে তাঁর সঙ্গে আলাপ হয়েছিল সনিয়ার। মমতার কথায়, ‘‘সনিয়া গাঁধী বিরোধী শিবিরের নেত্রী থাকাকালীন কখনও সংসদে তৃণমূল নেতৃত্বের প্রতি অসৌজন্য দেখাননি। উনি একজন পোড় খাওয়া রাজনীতিক।’’

Advertisement

আরও পড়ুন: মোদীর ‘মন কি বাত’ জনপ্রিয় বিদেশেও

আগামী সপ্তাহে ফের সনিয়ার সঙ্গে বৈঠকে বসার কথা মমতার। পাশাপাশি মায়াবতীর সঙ্গে রাষ্ট্রপতি নির্বাচন নিয়ে ফোনে দীর্ঘ কথা বলেছেন মমতা। কথা বলেছেন বিজেডি নেতা নবীন পট্টনায়কের সঙ্গেও। লালু প্রসাদের জনসভায় নিজে হাজির থাকতে না পারলেও পাঠাচ্ছেন রাজ্যসভার নেতা ডেরেক ও ব্রায়েনকে। তৃণমূল সূত্রের খবর, মমতাকে এই বিরোধী জোট গঠনের প্রশ্নে পাশে থাকার আশ্বাস দিয়েছেন মায়াবতী এবং নবীন দু’জনেই।

আজ বীরভূমিতে গিয়ে রাজীবের প্রয়াণ দিবসে শ্রদ্ধার্ঘ্য জানিয়েছেন সনিয়া, রাহুল, প্রিয়ঙ্কা, মনমোহন সিংহ-সহ কংগ্রেসের শীর্ষ নেতারা। গিয়েছেন রাষ্ট্রপতি প্রণব মুখোপাধ্যায়ও। পাশাপাশি শরদ পওয়ার তাঁর সঙ্গে রাজীব গাঁধীর একটি ছবি দিয়ে টুইট করেছেন। তাৎপর্যপূর্ণ ভাবে শরদ পওয়ার নিজে রাষ্ট্রপতি হতে ইচ্ছুক হলেও সনিয়া গাঁধী সম্প্রতি মমতাকে স্পষ্ট জানিয়ে দিয়েছেন যে পওয়ারের নামটি ধর্তব্যের মধ্যেই আসছে না। এনসিপি-র অন্য নেতা প্রফুল্ল পটেলের সঙ্গে যোগাযোগ করা হয়েছে কংগ্রেসের তরফে। বিরোধী দলগুলির এই ঐক্য গঠনের প্রশ্নে এনসিপি-কেও সামিল হতে অনুরোধ করা হয়েছে।

আরও পড়ুন

Advertisement