Follow us on

Download the latest Anandabazar app

© 2021 ABP Pvt. Ltd.

Advertisement

২৭ অক্টোবর ২০২১ ই-পেপার

পরীক্ষামূলক প্রয়োগের প্রোটোকল বদলাল সিরাম

নিজস্ব সংবাদদাতা
নয়াদিল্লি ৩১ জুলাই ২০২০ ০৪:৩৬
প্রতীকী ছবি

প্রতীকী ছবি

প্রশ্নের মুখে পড়ে ভারতে করোনা টিকার দ্বিতীয় ও তৃতীয় পর্বের পরীক্ষামূলক প্রয়োগের প্রোটোকলে পরিবর্তন আনল সিরাম ইনস্টিটিউট অব ইন্ডিয়া। কী সেই পরিবর্তন তা নিয়ে অবশ্য মুখ খোলেনি ওই সংস্থা।

বিশ্বের যে টিকাগুলি নিয়ে গবেষণা এগিয়ে গিয়েছে তাদের মধ্যে অন্যতম হল অক্সফোর্ড বিশ্ববিদ্যালয়ের কোভিশিল্ড। ইতিমধ্যেই তাদের কোভিশিল্ড টিকার তৃতীয় ধাপের পরীক্ষার ফল আশাব্যঞ্জক বলে দাবি করেছে অক্সফোর্ড বিশ্ববিদ্যালয়। পুণের সিরাম ইনস্টিটিউট অক্সফোর্ড বিশ্ববিদ্যালয়ের হাত ধরে ভারতে টিকা উৎপাদনের পরিকল্পনা নিয়েছে। কিন্তু টিকা বিদেশের হলে তা ভারতে প্রয়োগের আগে দেশীয় জনগোষ্ঠীর উপরে সেই টিকার দ্বিতীয় ও তৃতীয় ধাপের পরীক্ষামূলক প্রয়োগের নিয়ম রয়েছে।

২৫ জুলাই তাই দেশে ওই টিকার পরীক্ষামূলক প্রয়োগের প্রোটোকল জানিয়ে প্রয়োগ শুরুর জন্য দ্য সেন্ট্রাল ড্রাগস স্ট্যান্ডার্ড কন্ট্রোল অর্গানাইজেশন (সিডিএসসিও)-এর অনুমতি চায় সিরাম। কিন্তু মঙ্গলবার সিডিএসসিও-এর বিশেষজ্ঞ কমিটি প্রোটোকলে কিছু পরিবর্তনের সুপারিশ ও বাড়তি কিছু তথ্য চায় সংস্থার কাছে। সূত্রের মতে, সিরাম সংস্থা প্রায় ১৬০০ ব্যক্তির উপরে টিকার পরীক্ষামূলক প্রয়োগের সিদ্ধান্ত নিয়েছে। যাঁদের একাংশকে টিকা ও বাকিদের টিকার পরিবর্তে ক্ষতিকারক নয় এমন তরল দিয়ে প্রতিষেধকের প্রভাব দেখা হবে। সিরাম সংস্থা সূত্রে জানানো হয়েছে, বিশেষজ্ঞ কমিটির পরামর্শ মেনে পরীক্ষামূলক প্রয়োগের প্রোটোকলে পরিবর্তন এনে গত কাল নতুন করে আবেদন করা হয়েছে।

Advertisement

আরও পড়ুন: মণিপুরে নিরাপত্তারক্ষীদের উপর জঙ্গি হামলা, নিহত তিন জওয়ান

কোভিশিল্ড সফল হলে দেশে তা উৎপাদন করবে সিরাম। ভারত কি সেই টিকার ফায়দা পাবে কি না, তা নিয়ে প্রশ্নের উত্তরে কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্যসচিব রাজেশ ভূষণ জানান, ‘‘অবশ্যই পাবে। তবে এখনও এ নিয়ে সিরামের সঙ্গে কোনও চুক্তি হয়নি। কেন্দ্র তাদের সঙ্গে আলোচনা করছে।’’ তিনি আজ স্বীকার করে নেন, দেশে সংক্রমণের পরিস্থিতি যা তাতে দেশবাসীর জন্য প্রচুর সংখ্যক কোভিড-১৯ প্রতিষেধকের প্রয়োজন হবে। স্বাস্থ্য মন্ত্রক জানিয়েছে, ভারত আন্তর্জাতিক সংস্থা কোয়ালিশন ফর এপিডেমিক প্রিপেয়ার্ডনেস ইনোভেশন(সিইপিআই) –এর সঙ্গে হাত প্রতিষেধক আবিষ্কারের লড়াইতে কাজ করছে। ফলে আগামী দিনে বিশ্বের অন্যত্র প্রতিষেধক বেরোলে তার সুফল পাবে ভারত।

আরও পড়ুন

Advertisement