সোশ্যাল মিডিয়ায় প্রতিনিয়ত অনেকরকম ছবি করেন নেটিজেনরা। কিন্তু কখনও কি সেই ছবি তে লাইক না পাওয়ার জন্য কেঁদেছেন? এমনই ঘটনা ঘটালেন একজন অস্ট্রেলিয়ান মডেল।

ইনস্টাগ্রামে লাইক না পাওয়াতে এ বার কান্না জুড়লেন একজন অস্ট্রেলিয়ান ইনস্টাগ্রাম মডেল ম্যাকেলা টেসটা। সম্প্রতি ইনস্টাগ্রাম‌ তার পোস্টে লাইক দেখানো বন্ধ করায় কান্নায় ভেঙে পরলেন ম্যাকেলা।

ইনস্টাগ্রামকে ‘মানসিক সমস্যা’ দাবি করে ম্যাকেলা তাঁর ‘স্ক্যান্ডেলিয়াস এক্স’ নামে ইনস্টাগ্রাম প্রোফাইলে একটি ভিডিও পোস্ট করেন। এই ভিডিওতে তাঁকে একভাবে কাঁদতে এবং বলতে দেখা যায় যে তিনি আর সোশ্যাল মিডিয়া ব্যবহার করবেন না।

আরও পড়ুন: বিতর্ক সঙ্গে নিয়েই বরিসের মন্ত্রিসভায় মোদী-ভক্ত প্রীতি

 

ম্যকেলা ইনস্টাগ্রাম মোট দুটি অ্যাকাউন্ট ব্যবহার করেন। একটি তাঁর নামে যার ফলোয়ার ৪৫ হাজার, অপরটি ‘স্ক্যান্ডেলিয়াস এক্স’ নামে যার ফলোয়ার ১৩ হাজার। তিনি সম্প্রতি তাঁর এই অ্যাকাউন্ট এর নাম পরিবর্তন করে রেখেছেন ‘ফাকমিক’।

এই সপ্তাহের শুরুতে জানা যায় ইনস্টাগ্রাম ব্যবহারকারীদের জন্য একটি নতুন ফিচার আনতে চলেছে যেখানে ব্যবহারকারী তাঁর পোস্টের কমেন্টকে হাইড করতে পারবে। তারই পরীক্ষামূলক পর্যবেক্ষণ চলছে অস্ট্রেলিয়া-সহ আরও ছ’টি দেশে।

টেসটা তাঁর এই ইনস্টাগ্রাম অ্যাকাউন্ট থেকে প্রত্যেকটি পোস্টে ১০০০ লাইকের বদলে অস্ট্রেলিয়ান মুল্যে এক হাজার ডলার( ভারতীয় মুল্যে যা ৪৭ হাজার ৮৪৯ টাকা) পায়। ইনস্টাগ্রামের এই নতুন ফিচার এলে টেসটার জন্য খুব একটা লাভজনক হবে না। কারণ তাঁর পোস্ট সেই পরিমাণে আর লাইক পাবে না। সেই জন্যেই মডেল টেসটা তাঁর ইনস্টাগ্রামে কাঁদতে কাঁদতে একটি ভিডিয়ো পোস্ট করেন।

 

শুধু এইখানেই ইতি নয়, ফেসবুকে পোস্ট করে টেসটা লিখেছেন, ‘অনেকেই ইনস্টাগ্রামে কাজ হিসেবে গণ্য না করলেও আমারা যারা এই ইন্ডাস্ট্রিতে কাজ করি তাঁরা নিজেদের জায়গা তৈরি করার জন্য যথেষ্ট পরিশ্রম করি। আমি নিজেও আমার জায়গা তৈরি করার জন্য রক্তজল করা পরিশ্রম করেছি’।

পরে টেসটা তাঁর ইনস্টাগ্রামে ভিডিও পোস্টটিতে আবার লিখেছেন, এই ভিডিওটিকে অনেকে ভুল বুঝেছেন। তাদের জানাচ্ছি এই ভিডিয়োটি ইনস্টাগ্রামে লাইক অপশন হাইড করে দিয়েছে তার জন্য নয়। এই ভিডিয়োটি তাদের জন্য, যারা আমার পোস্টে কুমন্তব্য এবং অশ্লীল মন্তব্য করেন তাদের জন্য।

বর্তমানে সোশ্যাল মিডিয়া একটি ব্যবসা কেন্দ্র হয়ে উঠেছে। যেখানে বিভিন্ন ব্রান্ড  টাকার বিনিময়ে বিভিন্ন মডেলকে দিয়ে সকলকে প্রভাবিত করার চেষ্টা করছে। এই সপ্তাহের শুরুতে আরেক ইনস্টাগ্রাম মডেল তাঁর প্রেমিকের সঙ্গে সম্পর্ক ভেঙেছেন। কারণ তাঁর প্রেমিক চেয়েছিলেন তাঁর সঙ্গে ইনস্টাগ্রামে ছবি দিতে। নিজের জনপ্রিয়তা কমে যাওয়ার ভয়ে তাঁর এই সিদ্ধান্ত।

আরও পড়ুন:ইনস্টাগ্রামে ফলোয়ার হারানোর ভয়ে প্রেমিকের সঙ্গে ব্রেকআপ করলেন জনপ্রিয় মডেল!