• সংবাদ সংস্থা
সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে

রাশিয়ার ‘বিকাশে’ ঋণ, সাত হাজার কোটি টাকা বরাদ্দ করলেন নরেন্দ্র মোদী

PM Modi says at EEF:India to give $1 billion line of credit for development of Russia’s Far East dgt
সৌহার্দ্য বিনিময়। নরেন্দ্র মোদী ও ভ্লাদিমির পুতিন। পিটিআই

Advertisement

রাশিয়ার পূর্ব প্রান্তের বিকাশের জন্যে আনুমানিক সাত হাজার কোটি টাকার ঋণ দেবে ভারতবর্ষ। পঞ্চম ইস্টার্ন ইকনমিক ফোরামে সর্বসমক্ষে এমনটাই ঘোষণা করলেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। 

এ দিন প্রধানমন্ত্রী ইস্টার্ন ইকনমিক ফোরামে ভারত-রাশিয়ার সম্পর্কের অতীত টেনে এনে বলেন, ‘‘ভারতের সঙ্গে রাশিয়ার সম্পর্ক আজকের নয়। রাশিয়ার রাজধানী ভ্লাদিভস্তকে প্রথম কনস্যুলেট করেছিল ভারতই। অন্য সমস্ত দেশের উপর তদানীন্তন সোভিয়েত ইউনিয়ন নিষেধাজ্ঞা চাপালেও ভারতের জন্য ভ্লাদিভস্তকের দরজা সব সময় খোলা ছিল।’’ এর পরেই তিনি এই ঋণদানের কথা ঘোষণা করেন। নরেন্দ্র মোদীর দাবি,  ‘অ্যাক্ট ইস্ট’ নীতির অংশ হিসেবেই রাশিয়ার উন্নতিতে সক্রিয় ভাবে অংশগ্রহণ করতে চায় ভারত। রাশিয়ার প্রধানমন্ত্রী ভ্লাদিমির পুতিনের প্রশাসনিক দক্ষতার প্রশংসাও শোনা গেল এ দিন তাঁর মুখে। রাশিয়ার উন্নয়নে পুতিনের ভূমিকার তারিফ করে তিনি বলেন, ‘‘পুতিন তুষারাবৃত রাশিয়াকে ফুলের বাগানে পরিণত করেছেন। সুন্দর ভবিষ্যতের পথপ্রদর্শক তিনি।’’ বক্তব্যের শেষে প্রধানমন্ত্রী আরও জানান,  রাশিয়ার সঙ্গে যৌথ ভাবে অদূর ভবিষ্যতে মহাকাশ ও সমুদ্র গবেষণায় ভারত আগ্রহী।

ভারতে উন্নয়ন সুনিশ্চিত করতে তাঁর সরকারের নয়া মন্ত্র ‘সবকা সাথ সবকা বিকাশ’ এ দিনও শোনা গিয়েছে প্রধানমমন্ত্রীর মুখে। কেন্দ্রীয় সরকার ২০২৪ সালের মধ্যে ৫ লক্ষ কোটি ডলারের অর্থনীতি হিসেবে আত্মপ্রকাশ করতে চায়। প্রধানমন্ত্রীর দাবি এই বিকাশ শুধু ভারতবর্ষ কেন্দ্রিক নয়। মিত্রশক্তির বিকাশও সুনিশ্চিত করতে চান তিনি। সেই কারণেই ঋণদানের এই উদ্যোগে আগ্রহ ভারতের। 

আরও পড়ুন:তিহাড় জেলেই যেতে হচ্ছে পি চিদম্বরমকে, আইএনএক্স মামলায় ১৪ দিনের জেল হেফাজতের নির্দেশ
আরও পড়ুন:জলে ভাসল অমিতাভের বাড়ি, টানা বর্ষণে বিপর্যস্ত মুম্বই​

পঞ্চম ইস্টার্ন ইকনমিক ফোরামে প্রধান অতিথি ভারত। মস্কোতে গিয়ে রাশিয়ার প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে একাধিক বিষয় নিয়ে আলোচনা করেছেন নরেন্দ্র মোদী। এসেছে কাশ্মীর প্রসঙ্গও। আন্তর্জাতিক সংবাদমাধ্যম সূত্রে খবর কাশ্মীর পরিস্থিতিতে ভারতের অবস্থান বিস্তারিত ভাবে পুতিনকে বুঝিয়েছেন মোদী। প্রধানমন্ত্রীর পুতিনকে আশ্বস্ত করে বলেছেন, মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র ও রাশিয়ার সম্পর্কের টানাপোড়েন নয়াদিল্লি ও মস্কোর সম্পর্কে কোনও প্রভাব ফেলবে না। ইতিমধ্যেই দুই দেশের মধ্যে সম্পাদিত তেল, গ্যাস, প্রতিরক্ষা ও তথ্যপ্রযুক্তি চুক্তিগুলিকেই কথাও উল্লেখ করেছেন নরেন্দ্র মোদী। বুধবারও বেশ কয়েকটি আর্থিক চুক্তি হয়েছে ভারত ও রাশিয়ার মধ্যে।  

সবাই যা পড়ছেন

Advertisement

সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে
আরও পড়ুন

সবাই যা পড়ছেন

আরও পড়ুন