জঙ্গিদের বিরুদ্ধে পদক্ষেপ না করলে  পাকিস্তানকে আর্থিক সাহায্য বন্ধ করা নিয়ে মার্কিন নীতি বদলাবে না বলে ফের জানাল আমেরিকা। 

গত কাল ওয়াশিংটনে মার্কিন বিদেশসচিব মাইক পম্পেয়ো ও জাতীয় নিরাপত্তা উপদেষ্টা জন বোলটনের সঙ্গে বৈঠক করেন পাক বিদেশমন্ত্রী শাহ মেহমুদ কুরেশি। মার্কিন বিদেশ দফতর সূত্রে খবর, তখনই পম্পেয়ো ও বোলটন কুরেশিকে জানান জঙ্গিদের বিরুদ্ধে তেমন কড়া পদক্ষেপ এখনও করেনি পাকিস্তান। আফগানিস্তানে তালিবানকে শান্তি আলোচনায় রাজি করানোর ক্ষেত্রেও পাকিস্তানকে আরও উদ্যোগী হতে হবে বলে জানিয়ে দেন দুই মার্কিন কর্তা।

তাৎপর্যপূর্ণ ভাবে ওই বৈঠকের পরে গভীর রাত পর্যন্ত তার কোনও বিবরণ প্রকাশ করেনি বিদেশ দফতর। বৈঠকের আগে কুরেশি ও পম্পেয়ো করমর্দন করেন। কিন্তু তখনও সাংবাদিকদের সঙ্গে কথা বলেননি তাঁরা। মার্কিন প্রশাসন সূত্রে খবর, নিউ ইয়র্কে এক মধ্যাহ্নভোজে প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের সঙ্গে করমর্দন করেন কুরেশি। আর তার পরে তিনি সংবাদমাধ্যমকে জানান, ট্রাম্পের সঙ্গে তাঁর ‘বৈঠক’ হয়েছে। ফলে কুরেশি সম্পর্কে কিছুটা সতর্ক হয়ে চলতে চায় ট্রাম্প প্রশাসন।

ওয়াশিংটনের পাক দূতাবাস এক বিবৃতিতে জানিয়েছে, কাশ্মীরের সমস্যা না মিটলে যে দক্ষিণ এশিয়ায় শান্তি ফিরবে না তা পম্পেয়োকে জানিয়েছেন কুরেশি। সেই সঙ্গে পাক বিদেশমন্ত্রী জানান, ইসলামাবাদ সব সময়েই ভারতের সঙ্গে আলোচনায় আগ্রহী। আফগানিস্তানে সমস্যার রাজনৈতিক সমাধানের চেষ্টাকেও পাকিস্তান সমর্থন করবে। কারণ, সেখানে বলপ্রয়োগ করে সমস্যার সমাধান করা যায়নি। মার্কিন বিদেশসচিব জানান, নয়া পাক সরকারের সঙ্গে হাত মিলিয়ে কাজ করতে আগ্রহী ট্রাম্প প্রশাসন।