• নিজস্ব প্রতিবেদন
সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে

ঝকঝকে ও নীরোগ ত্বক চাই? পার্লার নয়, ভরসা রাখুন রান্নাঘরের এ সব সামগ্রীতে

skin care
রান্নাঘরের কিছু সামগ্রীতে ত্বক রাখুন উজ্জ্বল ও ঝকঝকে। ছবি: আইস্টক।

Advertisement

কোমল, উজ্জ্বল ত্বক কে না চান! তবে তার জন্য প্রয়োজন ত্বকের সঠিক যত্ন। কিন্তু কর্মব্যস্ততার মাঝে বেশির ভাগ ক্ষেত্রেই ত্বক পরিচর্যার সময় হয়ে ওঠে না। কিছু সময় বার করে যদিও বা আমরা ত্বকের দেখভাল করি, তখনও আমবা ব্যবহার করি নানা রাসায়নিকযুক্ত উপকরণ। আর এই সব উপকরণ আমাদের ত্বকের খুব ক্ষতি করে। কখনও সরাসরি, কখনও চোরাগোপ্তা পথে।

অনেকেই এই ক্ষতি ঠেকাতে ভরসা রাখেন ঘরোয়া উপায়ে। আবার অনেকে ভাবেন, ঘরোয়া পদ্ধতিতে ত্বকের যত্ন নিতে সময় বেশি লাগে। রূপবিশেষজ্ঞরা কিন্তু সেই যুক্তিতে সায় দিচ্ছেন না। বরং তাঁদের মতে, খুব সহজে এবং অল্প সময় ব্যয় করেই ঘরোয়া উপায়ে ত্বকের যত্ন নেওয়া সম্ভব। আর তাতে ক্ষতিও কম। এই সামগ্রীগুলি প্রাকৃতিক হওয়ায় নেই কোনও পার্শ্বপ্রতিক্রিয়াও।

আপনার রান্নাঘরে থাকা কিছু সামগ্রীই হয়ে উঠতে পারে ত্বক পরিচর্যার কার্যকরী উপাদান। ত্বক উজ্জ্বলও হবে আবার নিরাপদেও থাকবে এমনটা চাইলে ত্বকের যত্ন নিতে ব্যবহার করুন রান্নাঘরের এই সব সামগ্রী।

আরও পড়ুন: লক্ষণ প্রকাশের অনেক আগেই শরীরে স্তন ক্যানসার বাসা বেঁধেছে কি না জানিয়ে দেবে এই রক্ত পরীক্ষা!

আটা-ময়দা-বেসন: এগুলি দিয়ে বানিয়ে ফেলুন ফেস প্যাকের বেস। আটায় ভুষির পরিমান বেশি থাকায় প্রাকৃতিক স্ক্রাব হিসাবেও দারুন কাজ করে। তৈলাক্ত ত্বকের জন্য আটার প্যাক উপযোগী।

মধু: প্রাকৃতিক ময়শ্চারাইজার হিসাবে মধুর কোনও তুলনা হয় না। এ ছাড়া মধুতে থাকা অ্যান্টি ব্যাকটিরিয়াল উপাদান ব্রণ বা ফুসকুড়ি কমাতেও খুর কার্যকরী। যে কোনও ঘরোয়া ফেস প্যাকের সঙ্গে মধু মিশিয়ে লাগালে ত্বক কোমল ও আর্দ্র থাকবে।

দই: মধু এবং দই মিশিয়ে ফেস প্যাক তৈরি করে তা লাগান। ত্বকে পুষ্টি জোগান দেবে। এ ছাড়া ফুল ফ্যাট দুধ থেকে তৈরি দই শুষ্ক ত্বকের জন্য খুব উপকারী।

আরও পড়ুন: এ সব উপায়ে ব্যবহার করুন অ্যালো ভেরা, ঝরবে মেদ, ভাল থাকবে চুল-ত্বক

ওটমিল: ওটমিল খাওয়াই যে শুধু স্বাস্থ্যের পক্ষে উপকারী তা নয়, তৈলাক্ত ত্বকের জন্য এর থেকে তৈরি ফেস মাস্ক অত্যন্ত কার্যকরী। দই ও ওটমিল দিয়ে মাস্ক তৈরি করে মুখে লাগান। ত্বক উজ্জ্বল হবে। এ ছাড়া কোমল স্ক্রাব হিসেবেও খুব ভাল কাজ করে এটি।

নারকেল তেল: ময়শ্চারাইজার হিসেবে নারকেলও অসাধারন কাজ করে। চোখের কোলে কালি, শুষ্ক ঠোঁট কিংবা খসখসে ত্বক— এধরনের যে কোনও সমস্যায় ব্যবহার করুন নারকেল তেল। এ ছাড়া প্রাকৃতিক উপায়ে হেয়ার ট্রিটমেন্ট করতে চাইলে নারকেল তেল গরম করে মাথায় লাগান। এর ফলে চুলের গোড়া পুষ্টি পাবে, কমবে চুল পড়া ও খুশকির সমস্যা।

সবাই যা পড়ছেন

Advertisement

সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে
আরও পড়ুন
বাছাই খবর

সবাই যা পড়ছেন

আরও পড়ুন