সন্তান আনার কথা ভাবছেন। কিন্তু একটি বড়সড় বাধার কথাও শুনিয়েছেন চিকিত্সকেরা। আপনার যে স্পার্ম বা শুক্রাণুর সংখ্যা খুবই কম। চিন্তা করবেন না। বরং হাত বাড়ান আখরোটের দিকে। প্রতিদিনের ডায়েটে একমুঠো এই শুকনো ফল খেলে বাড়বে আপনার শুক্রাণুর সংখ্যা। ক্যালিফোর্নিয়া বিশ্ববিদ্যালয়ের অধ্যাপক ওয়েন্ডি রবিন্সের দাবি, পুরুষের উর্বরতা বাড়াতে সাহায্য করে আখরোট।

আজকের দিনে বন্ধ্যাত্ব একটি গুরুতর সমস্যা। ব্যস্ত জীবনযাপনে স্ট্রেসের কারণে দিন কে দিন বাড়ছে এই সমস্যা। ‘বায়োলজি অফ রিপ্রোডাকশন’-এর জার্নালে প্রকাশিত হয়েছে একটি চাঞ্চল্যকর তথ্য। সেই তথ্যে সত্যিই ঘুম উড়ে যাওয়ার জোগাড়। সারা বিশ্বে প্রায় ৭০ মিলিয়ন মানুষ বন্ধ্যাত্বের শিকার। এর মধ্যে ৩০-৫০ শতাংশ বন্ধ্যাত্বের জন্য দায়ী পুরুষরাই। অধ্যাপক ওয়েন্ডির নেতৃত্বে ২০১২ সাল থেকে এক দল গবেষক দাওয়াই হিসেবে আখরোট নিয়ে শুরু করেন তাঁদের গবেষণা। তাঁদের দাবি, প্রতিদিন যদি অন্তত ৭৫ গ্রাম করে আখরোট খাওয়া যায় তবে পুরুষদের বন্ধ্যাত্বের সমস্যা কমবে। কারণ আখরোট বাড়িয়ে দেবে স্পার্ম কাউন্ট বা শুক্রাণুর সংখ্যা। শুধু শুক্রাণুর সংখ্যাই নয় তার কার্যকারীতা, সক্রিয়তাও বাড়িয়ে দেয় আখরোট। তবে এর জন্য আখরোট খেয়ে যেতে হবে টানা তিন মাস।

কিন্তু কী ভাবে কাজ করবে আখরোট?

অধ্যাপক ওয়েন্ডি জানান, ওমেগা ৩-ফ্যাটি অ্যাসিড আলফা-লিনোলেনিক অ্যাসিড বা সংক্ষেপে এএলএ-তে সমৃদ্ধ আখরোট। এএলএ-র মতো ওমেগা অ্যাসিডের পাশাপাশি আখরোটে আছে উচ্চমাত্রায় অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট এবং বহু মূল্যবান মাইক্রো নিউট্রিয়েন্টস। পুরুষদের উর্বরতা বাড়াতে সাহায্য করে এই সব উপাদনগুলি।  ২১ থেকে ৩৫ বছর বয়সী এক দল যুবকের উপর চালানো হয় এই গবেষণা। পরীক্ষায় দেখা যায় যে সব পুরুষ আখরোট খাননি তাঁদের তুলনায় আখরোট খাওয়া ব্যক্তিদের শুক্রাণুর কার্যক্ষমতা বৃদ্ধি পেয়েছে কয়েক গুণ। নিউট্রিশনিস্টদের মতে উর্বরতা বৃদ্ধি করতে যতটা জোর নারীদের খাওয়া-দাওয়ার উপর দেওয়া হয় ততটা দেওয়া হয় না পুরুষদের খাদ্যে।  তাই ওয়েন্ডির গবেষণার কথা শোনার পরই আশায় বুক বেঁধেছেন পুরুষেরা।