দেশের ২৬ তম বায়ুসেনা প্রধান হিসেবে সোমবার দায়িত্ব গ্রহণ করলেন এয়ার চিফ মার্শাল রাকেশকুমার সিংহ ভাদৌরিয়া। এয়ার চিফ মার্শাল বিএস ধানোয়ার স্থলাভিষিক্ত হলেন তিনি। বায়ুসেনায় ৪১ বছরের চাকরি থেকে অবসরগ্রহণ করলেন এয়ার চিফ মার্শাল ধানোয়া।

এয়ার মার্শাল ভাদৌরিয়া এর আগে বহু গুরুত্বপূর্ণ পদের দায়িত্বভার পালন করেছেন। ন্যাশনাল ডিফেন্স অ্যাকাডেমির এই প্রাক্তনী ১৯৮০ সালে বায়ুসেনার ফাইটার স্ট্রিমে যোগ দেন। কৃতিত্বের স্বীকৃতি হিসাবে পেয়েছেন  ‘সোর্ড অব অনার’ সম্মান।

সুদীর্ঘ চার দশকের কেরিয়ারে তিনি জাগুয়ার স্কোয়াড্রনের প্রধান ছিলেন। জিপিএস বা গ্লোবাল পজিশনিং সিস্টেম ব্যবহার করে জাগুয়ার এয়ারক্র্যাফ্ট থেকে বোমাবর্ষণের নিখুঁত পদ্ধতি নির্ধারণে তাঁর অবদান আছে। ১৯৯৯ সালে অপারেশন ‘সফেদ সাগর’-এ তাঁর নির্ধারিত পদ্ধতি বিশেষ কার্যকর হয়েছিল। ২৬ ধরনের উড়ান নিয়ে ৪২৫০ ঘণ্টা আকাশে ওড়ার অভিজ্ঞতা আছে ভাদৌরিয়ার। বায়ুসেনা মেডেল, অতি বিশিষ্ট সেবা মেডেল, পরম বিশিষ্ট সেবা মেডেল-সহ বিভিন্ন পুরস্কারে ভূষিত হয়েছেন তিনি।

দায়িত্ব গ্রহণ করে নতুন বায়ুসেনা প্রধান বলেছেন, যুদ্ধবিমান রাফাল অত্যন্ত কার্যকর। রাফালের জোরে পাকিস্তান ও চিনের থেকে এগিয়ে থাকবে ভারত। ভবিষ্যতেও ভারত বালাকোটের মতো অভিযানের জন্য প্রস্তুত। ভবিষ্যতেও যে কোনও চ্যালেঞ্জ গ্রহণের জন্য প্রস্তুত। জানাচ্ছেন প্রত্যয়ী নতুন বায়ুসেনা প্রধান।

আরও পড়ুন : ফিরে এল কড়া নিয়ন্ত্রণ, পাক প্রধানমন্ত্রীর বক্তৃতায় আবার অশান্ত উপত্যকা

আরও পড়ুন: নেহরুর ‘ভুল’ শুধরে কাশ্মীরের ‘সত্যি’ ইতিহাস লিখতে চান অমিত