• সংবাদ সংস্থা
সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে

টিকটক স্টার বিজেপি নেত্রীর চপ্পলের ঘা আধিকারিকের মাথায়, ভাইরাল ভিডিয়ো

BJP leader Sonali Phogat beating up official
হরিয়ানার এক আধিকারিককে চপ্পলপেটা করলেন বিজেপি নেত্রী সোনালি ফোগত। ছবি: সংগৃহীত।

মাথায় হাত দিয়ে প্রাণপণে চপ্পলের আঘাত থেকে নিজেকে বাঁচানোর চেষ্টা করছেন এক ব্যক্তি। তবে তা সত্ত্বেও এড়ানো যাচ্ছে না চপ্পলের মার। মুখে, পিঠে, পেটে নেমে আসছে এক মহিলার চপ্পলের এলোপাথাড়ি আঘাত। শুক্রবার হরিয়ানার কৃষক মার্কেটে গিয়ে এ ভাবেই এক আধিকারিককে চপ্পলপেটা করলেন বিজেপি নেত্রী সোনালি ফোগত। নীরব দর্শক হয়ে থাকল পুলিশ। ওই আধিকারিককে নিগ্রহের পাশাপাশি ক্যামেরার সামনে অশ্রাব্য ভাষায় কটূক্তি করতেও শোনা যায় তাঁকে। গোটা ঘটনাটাই ভাইরাল সোশ্যাল মিডিয়ায়। ইতিমধ্যেই এ নিয়ে সমালোচনা করে হরিয়ানা সরকারকে আক্রমণ করতে শুরু করেছে রাজ্যের বিরোধী দল কংগ্রেস।

ঘটনার সূত্রপাত হরিয়ানার হিসার জেলায় এক কৃষক মার্কেটে। এ দিন ওই জেলার আদমপুরে পাঁচ-ছ’জন সঙ্গীকে নিয়ে ক়ৃষক মার্কেট পরিদর্শনে গিয়েছিলেন বিজেপি নেত্রী সোনালি। টিকটক ভিডিয়োর সৌজন্যে নেটদুনিয়ায় জনপ্রিয় ওই নেত্রীর হাতে ছিল কৃষকদের অভিযোগের দীর্ঘ তালিকা। তা নিয়েই মার্কেট সচিব সুলতান সিংহের কাছে গিয়েছিলেন তিনি। সোনালির অভিযোগ, সুলতান তাঁকে ‘ড্রামাবাজ’ বলে কটূক্তি করেন। এবং তা শুনেই নাকি রাগে ফেটে পড়েন সোনালি। এর পর ক্যামেরার সামনেই নিজের চপ্পল খুলে তা দিয়ে পেটাতে থাকেন সুলতান সিংহকে। ভিডিয়োতে দেখা গিয়েছে, সোনালির চপ্পলের ঘা এড়াতে নিজের মাথা-মুখ ঢেকে বসে রয়েছেন সুলতান। তবে তাতেও এড়ানো যাচ্ছে না পিটুনি। চপ্পলপেটার সঙ্গে সঙ্গে শোনা যায় সোনালি বলছেন, ‘‘তোমার গালি শোনার  জন্য কাজ করছি?’’ সেই সঙ্গে তিনি আরও বলতে থাকেন, ‘‘আমি বাইরে বেরিয়ে কাজ করছি... কী ভেবেছেন আমাকে? তোমাদের মতো মানুষের বেঁচে থাকার অধিকারই নেই!’’ গত বছরে হরিয়ানার আদমপুর বিধানসভা কেন্দ্রের পরাজিত প্রার্থী সোনালির রুদ্রমূর্তির হাত থেকে বাঁচতে সুলতানের কাকুতিমিনতিও কাজে আসেনি।

সুলতানের বিরুদ্ধে পুলিশের কাছেও অভিযোগ করতে শোনা যায় সোনালিকে। ঘটনাস্থলে দাঁড়িয়ে থাকা এক পুলিশ আধিকারিককে তিনি বলেন, ‘‘এঁর বিরুদ্ধে রিপোর্ট লিখুন... কুকথা বলেছে আমার বিরুদ্ধে।’’ যদিও সুলতানের দাবি, সোনালি যা যা করতে বলেছেন, তা সব কিছুই লিখে করে রেখেছেন তিনি। তখনকার মতো ওই বিজেপি নেত্রীর কাছে ক্ষমা চেয়ে ছাড় পেলেও এই ঘটনায় পুলিশের কাছে অভিযোগ দায়ের করেছেন সুলতান।

এই ঘটনার ভিডিয়ো ভাইরাল হতেই হরিয়ানার মনোহরলাল খট্টর সরকারের প্রবল সমালোচনা করেছে কংগ্রেস। দলীয় মুখপাত্র রণদীপ সিংহ সুরজেওয়ালা নিজের টুইটার হ্যান্ডেলে ভিডিয়োটি শেয়ার করে সোনালির বিরুদ্ধে শাস্তির দাবি তুলেছেন। সেই সঙ্গে তাঁর মন্তব্য, ‘‘খট্টর সরকারের নেতাদের কীর্তিকলাপ।’’ সুরজেওয়ালার প্রশ্ন, ‘‘হিসারের আদমপুরের বিজেপি কমিটি ( কমিটির সদস্য) মার্কেট কমিটির সচিবকে পশুর মতো পেটাচ্ছেন। সরকারি কাজ করা কি অপরাধ? খট্টর সাহেব কি পদক্ষেপ করবেন? মিডিয়া কি এখনও চুপ করে বসে থাকবে?’’

আরও পড়ুন: জর্জ ফ্লয়েডের কথা মনে করিয়ে দিল জোধপুর, যুবককে হাঁটু দিয়ে চেপে মারধর পুলিশের!

আরও পড়ুন: এক সঙ্গে ২৫ স্কুলে চাকরি! বেতন এক কোটি, তদন্ত শিক্ষিকার বিরুদ্ধে​

হরিয়ানা সরকারের বিরুদ্ধে সুরজেওয়ালা ছাড়াও ময়দানে নেমেছেন স্থানীয় স্তরের নেতারাও। জোনাল মার্কেটিং এনফোর্সমেন্ট অফিসার সাহেব রামের মতে, গোটা ঘটনাটাই আসলে ‘পূর্বপরিকল্পিত এবং রাজনৈতিক ফায়দা তোলার জন্য’ করা হয়েছে।

সবাই যা পড়ছেন

সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে
আরও পড়ুন

সবাই যা পড়ছেন

আরও পড়ুন