• সংবাদসংস্থা
সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে

অসুস্থ পর্রীকর, গোয়ায় সরকার গড়তে চেয়ে রাজ্যপালের কাছে কংগ্রেস

Manohar Parrikar
অসুস্থ মুখ্যমন্ত্রী মনোহর পর্রীকর।— ফাইল চিত্র।

Advertisement

জটিল থেকে জটিলতর হচ্ছে গোয়ার রাজনৈতিক পরিস্থিতি।

একদিকে, মুখ্যমন্ত্রী মনোহর পর্রীকরের শারীরিক অবস্থা খারাপ। অন্যদিকে, বিজেপি বিধায়ক ফ্রান্সিস ডি’সুজার মৃত্যু এবং মুখ্যমন্ত্রীর শারীরিক পরিস্থিতি খারাপ হওয়ায় ফের একবার সরকার গঠনের দাবি তুলল কংগ্রেস। পরিস্থিতি এতটাই জটিল যে, এই মুহূর্তে দলের বিজেপি বিধায়কদের গোয়া না ছাড়তে অনুরোধ করেছে দল।

গতকাল, শনিবার গোয়ায় সরকার গড়ার দাবি জানিয়ে রাজ্যপালকে চিঠি দিয়েছে কংগ্রেস। রাজ্যপাল মৃদুলা সিনহাকে লেখা চিঠিতে প্রদেশ কংগ্রেস সভাপতি চন্দ্রকান্ত কাভলেকরের দাবি, সম্প্রতি বিজেপি বিধায়ক ফ্রান্সিস ডি’সুজার মৃত্যুতে মনোহর পর্রীকরের সরকার সংখ্যাগরিষ্ঠতা হারিয়েছে। এই অবস্থায় একক বৃহত্তম দল হিসেবে রাজ্যপাল কংগ্রেসকে সরকার গড়ার সুযোগ দিন। সংখ্যালঘু বিজেপি সরকারকে বরখাস্ত করা হোক।

চিঠিতে চন্দ্রকান্তের দাবি, ‘‘আমাদের অনুমান, বিজেপির বিধায়ক সংখ্যা আরও কমতে পারে।’’ রাজ্যপালের কাছে তাঁর অনুরোধ, কোনও সংখ্যালঘু সরকারকে কাজ চালিয়ে যেতে দেওয়া ঠিক নয়। ওই চিঠিতে কাভলেকর বিজেপি বিধায়ক ফ্রান্সিস ডি’সুজার অকালমৃত্যুতে শোক প্রকাশ করেছেন।

আরও পড়ুন: ২০২৫ সালের মধ্যেই পাকিস্তানও মিশে যাবে ভারতে, বললেন আরএসএস নেতা

আরও পড়ুন: প্রয়াগরাজ থেকে বারাণসী, ভোটপ্রচারে কাল গঙ্গায় ১৪০ কিলোমিটার নৌসফর শুরু প্রিয়ঙ্কার

বর্তমানে ৪০ সদস্যের গোয়া বিধানসভায় বিজেপির বিধায়ক সংখ্যা ১৩। অন্য দিকে কংগ্রেসের বিধায়ক সংখ্যা ১৪। বছর দেড়েক আগে গত বিধানসভা ভোটে কংগ্রেস একক সংখ্যাগরিষ্ঠ দল হলেও মনোহর পর্রীকরের নেতৃত্বে সরকার গঠন করে বিজেপি। সে সময় গোয়া ফরওয়ার্ড পার্টি, মহারাষ্ট্রবাদী গোমন্তক পার্টি ও তিন নির্দলের সমর্থনে সরকার গড়েছিলেন পর্রীকর। কিন্তু মাস কয়েক আগে মুখ্যমন্ত্রীকে হাসপাতালে শুয়ে থাকতে দেখেই ক্ষমতার সমীকরণে নতুন মোড় আনার চেষ্টা শুরু হয়।

(ভারতের রাজনীতি, ভারতের অর্থনীতি- সব গুরুত্বপূর্ণ খবর জানতে আমাদের দেশ বিভাগে ক্লিক করুন।)

সবাই যা পড়ছেন

Advertisement

সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে
আরও পড়ুন

সবাই যা পড়ছেন

আরও পড়ুন