নির্বাচনী প্রচারে মাত্রাতিরিক্ত খরচ করে বিপাকে অভিনেতা তথা বিজেপির নবনির্বাচিত সাংসদ সানি দেওল। ইতিমধ্যেই তাঁকে নোটিস ধরিয়েছে নির্বাচন কমিশন। অভিযোগ প্রমাণিত হলে তাঁর বিরুদ্ধে কড়া পদক্ষেপ করা হতে পারে বলে জানা গিয়েছে। এমনকি সাংসদ পদটিও খোয়াতে হতে পারে সানিকে। 

প্রত্যেক রাজনৈতিক দলের প্রার্থীর জন্য নির্দিষ্ট নির্বাচনী খরচ বেধে দিয়েছে কমিশন। যার আওতায়, এক জন প্রার্থী ৭০ লক্ষ টাকা পর্যন্ত খরচ করতে পারেন। কিন্তু সানি দেওল প্রায় ৮৬ লক্ষ টাকা খরচ করেছেন বলে সম্প্রতি একাধিক অভিযোগ জমা পড়ে কমিশনের কাছে। তার পরই অভিনেতাকে নোটিস পাঠানো হয় বলে জানা গিয়েছে।

নির্বাচনী খরচ সংক্রান্ত নিয়মাবলী লঙ্ঘন করলে বিজয়ী প্রার্থীর সাংসদ পদ পর্যন্ত বাতিল করেত পারে কমিশন। সেই জায়গায় দ্বিতীয় স্থানাধিকারীকতে বিজয়ী ঘোষণা করা যেতে পারে। তাই দুশ্চিন্তা বাড়ল সানির। 

আরও পড়ুন: রাম আর আল্লাকে মিলিয়ে দিয়ে সংসদে নতুন ইনিংসের শুরুতেই সেঞ্চুরি অধীরের​

আরও পড়ুন: মোদীর বৈঠক: মমতার পাশে মায়াবতী, বললেন, ইভিএম নিয়ে কথা হলে যেতাম, অনিশ্চিত কংগ্রেস​

তিন দশকেরও বেশি সময় ধরে অভিনয়ের সঙ্গে যুক্ত সানি দেওল। একাধিক সফল ছবি উপহার দিয়েছেন তিনি। তবে বাবা ধর্মেন্দ্র এবং সৎ মা হেমা মালিনীকে অনুসরণ করে সম্প্রতি রাজনীতিতে পা একাধিক সফল ছবি উপহার দিয়েছেন সানি দেওল। বাবা ধর্মেন্দ্র এবং সৎ মা হেমা মালিনীকে অনুসরণ করে সম্প্রতি বিজেপির হাত ধরে রাজনৈতিক যাত্রা শুরু করেন সানি। পঞ্জাব কংগ্রেসের প্রধান সুনীল জাখরকে ৮০ হাজার ভোটে হারিয়ে গুরুদাসপুর থেকে জয়লাভ করেন তিনি। গত মঙ্গলবার সাংসদ হিসাবে শপথ নেন।

এবার শুধু খবর পড়া নয়, খবর দেখাও। সাবস্ক্রাইব করুন আমাদের YouTube Channel - এ।