• সংবাদ সংস্থা
সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে

গরুদের জন্য ‘খাদ্য ব্যাঙ্ক’, খাবার দিয়ে যাচ্ছেন বিভিন্ন ধর্মের মানুষ

Cow
প্রতীকী চিত্র।

গরুরা পর্যাপ্ত খাবার পাচ্ছে না, তাই তাদের জন্য খাদ্য ব্যাঙ্কের ব্যবস্থা করা হয়েছে উত্তর প্রদেশের মহোবা শহরে। উদ্যোক্তা ‘সর্বধর্ম ভোজন’ নামে একটি সংস্থা। শহরের ১০টি জায়গায় খাবার সংগ্রহের পয়েন্ট তৈরি করা হয়েছে, সেখানে বিভিন্ন ধর্মের মানুষ গরুদের জন্য খাবার দিয়ে যাচ্ছেন।

শহরের এই ১০টি জায়গায় যে কেউ এসে রুটি বা অন্যান্য খাবার দিয়ে যেতে পারেন, যা গরুরা খেতে পারে। এই সব জায়গা থেকে খাবার সংগ্রহ করে পৌঁছে দেওয়া হচ্ছে গরুদের খামারে। উদ্যোক্তাদের আবেদনে সাড়া দিয়ে এলাকার প্রচুর মানুষ বাড়ির উদ্বৃত্ত খাবার রোজ সেখানে পৌঁছে দিচ্ছেন খাবার সংগ্রহ পয়েন্টে।

সর্বধর্ম ভোজনের প্রধান বাবলা জানিয়েছেন, গরুদের খাওয়ানোর জন্য সরকারের উদ্যোগই যথেষ্ট নয়। তাই তাঁরা চেষ্টা করছেন বাড়িতে যে খাবার ফেলে দেওয়া হয়, সেগুলি সংগ্রহ করে গরুদের কাছে পৌঁছে দেওয়ার। তাঁরা সব মানুষের কাছে এই উদ্যোগে সামিল হওয়ার আবেদন করেছেন। তাঁর আশা আরও বেশি মানুষ এর সঙ্গে যুক্ত হবেন।

আরও পড়ুন: প্রকাশ্য সৈকতে শরীরী খেলায় মত্ত যুগল, গ্রেফতারের পর পুলিশ ভ্যানেও থামল না!

এক স্থানীয় বাসিন্দা সৈয়দ আফাক হুসেন (কাজি) জানিয়েছেন, মানুষের মতোই গরু বা অন্যান্য পশুদের খাবার প্রয়োজন। কিন্তু মানুষকে খাবার জোগানোর লোক থাকলেও, গরুদের জন্য নির্দিষ্ট কেউ নেই। খাবারের অভাবে গরুদের পলিথিন খেতে দেখা যায়। তাই তাঁরা ঠিক করেছেন শহরের ১০ জায়গায় যে খাবার সংগ্রহের ব্যবস্থা হয়েছে, সেখানে বাড়ির উদ্বৃত্ত খাবার দিয়ে আসবেন।

আরও পড়ুন: ছ’বছর পর কেন ব্যাট হাতে মাঠে নামলেন সচিন!

সৈয়দের মতো একই মত প্রকাশ করেছেন অন্যরাও। সংবাদ সংস্থা এএনআই-কে অরবিন্দ ওআদিত্য নামে দুই ব্যক্তি জানিয়েছেন, তাঁরা নিয়মিত বাড়ির উদ্বৃত্ত খাবার দিয়ে আসছেন। তাঁদের বক্তব্য উদ্বৃত্ত খাবার তো মানুষ ফেলেই দেন, তার বদলে সেগুলি যদি গরুদের খাবার হিসেবে ব্যবহার হয় তবে তো ভালই।

সবাই যা পড়ছেন

সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে
আরও পড়ুন

সবাই যা পড়ছেন

আরও পড়ুন