গত ফেব্রুয়ারিতে রেডিয়ো অনুষ্ঠান ‘মন কি বাত’-এ বলেছিলেন, শীঘ্রই ফিরে আসবেন। যদিও সে প্রতিশ্রুতি পালন করতে পারবেন কি না, তা নিয়ে অনেকের মনেই আশঙ্কা ছিল। তবে সে কথা রেখেছেন তিনি। লোকসভা নির্বাচনের বিপুল ভোটে জিতে ফের ক্ষমতায় ফিরেছেন নরেন্দ্র মোদী। সেই সঙ্গে ফিরে এসেছেন তাঁর ‘মন কি বাত’-এর সম্প্রচার নিয়েও। মোদী জানিয়েছেন, দেশের মানুষের প্রতি তাঁর আস্থা ছিল বলেই ওই প্রতিশ্রুতি দিয়েছিলেন তিনি।

দ্বিতীয় দফায় প্রধানমন্ত্রী পদে শপথ নেওয়ার পর রবিবার তাঁর প্রথম ‘মন কি বাত’ অনুষ্ঠান ছিল মোদীর। এ দিন সকালে ওই অনুষ্ঠানে তিনি বলেন, ‘‘ফেব্রুয়ারিতে যখন বলেছিলাম, আপনাদের সঙ্গে কয়েক মাস পরেই ফের দেখা করব, অনেকে বলেছিলেন, আমি অতিরিক্ত আত্মবিশ্বাসী। তবে, ভারতের জনগণের উপর আমার সবসময় আস্থা রয়েছে।’’

দেশের জনগণের প্রতি আস্থা রাখা ছাড়াও তাঁদের ভূয়সী প্রশংসা করেছেন প্রধানমন্ত্রী। এ দিন তিনি জানিয়েছেন, ‘মন কি বাত’ অনুষ্ঠানে বহু চিঠি বা টেলিফোন কল পেয়েছেন। তবে তাতে খুব বেশি অনুযোগ নেই বলে দাবি করেছেন মোদী। তাঁর কথায়, ‘‘গত পাঁচ বছরেও আমি এমন কোনও চিঠি পাইনি যাতে মানুষ নিজেদের জন্য কিছু দাবি করছেন। ভাবতে পারেন! মানুষ প্রধানমন্ত্রীকে চিঠি লিখছে, অথচ কোনও দাবি করছে না! দেশবাসীর এমনই মাহাত্ম্য!’’

আরও পড়ুন: ছোট্ট ‘মোদী’কে নিয়ে ঝামেলায় মেহনাজ, এ বার নাম রাখতে চান আফতাব!

আরও পড়ুন: ভাঙন রুখতে মরিয়া তৃণমূল, দিল্লির ডাক পাওয়ার আগেই শোভনের বাড়িতে হাজির মমতার দূত

এ দিনের ‘মন কি বাত’ অনুষ্ঠানের বেশির ভাগ সময়টাই জল সংরক্ষণের গুরুত্বের উপর জোর দেন। তিনি বলেন, ‘‘গত কয়েক মাস ধরেই বহু মানুষ জল সংক্রান্ত বিষয়ে আমাকে লিখেছেন। জল সংরক্ষণ নিয়ে যে সচেতনতা বাড়ছে, তাতে আমি আনন্দিত।’’ তামিলনাড়ু-সহ দেশের বিভিন্ন প্রান্তে প্রবল জলকষ্টের মুখোমুখি হচ্ছেন মানুষ। এ দিন নরেন্দ্র মোদী জানিয়েছেন, জল সংরক্ষণের গুরুত্ব নিয়ে গ্রামপ্রধানদের চিঠি লিখেছেন তিনি। পাশাপাশি, গ্রামীণ এলাকায় এ নিয়ে কী ভাবে সচেতনতা বাড়াতে হবে, তা-ও তাঁদের জানিয়েছেন।

এবার শুধু খবর পড়া নয়, খবর দেখাও। সাবস্ক্রাইব করুন আমাদের YouTube Channel - এ।