• সংবাদ সংস্থা
সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে

সংঘর্ষবিরতি লঙ্ঘন করে সীমান্তে নাগাড়ে গোলাবর্ষণ পাকিস্তানের

army
পাক গোলার জবাব দেয় ভারতীয় সেনাবাহিনী। ফাইল চিত্র।

ফের চার জায়গায় সংঘর্ষবিরতি লঙ্ঘন করল পাকসেনাবাহিনী। নিয়ন্ত্রণরেখা পেরিয়ে পাক গোলা প্রবেশ করল সীমান্তবর্তী গ্রামে।কৃষ্ণা ঘাঁটি সেক্টরে পাক সেনাবাহিনীর মর্টার ও গোলা এসে পড়ে রবিবার সকালেও। ছোট অস্ত্র থেকে গুলি চালাচ্ছে পাক সেনা, জানান এক সেনা আধিকারিক।

কথায় আর কাজের মধ্যে যে বিস্তর ফারাক তা বার বারই প্রমাণ করছে পাকিস্তান। মুখে শান্তির বাণী আওড়াচ্ছেন প্রধানমন্ত্রী। তবে ভারত-পাক সীমান্তের ছবি কিন্তু বাস্তবে অন্য কথাই বলছে! একের পর এক সংঘর্ষবিরতি লঙ্ঘন করে জম্মু-কাশ্মীরে নিয়ন্ত্রণরেখা বরাবর বিভিন্ন সেক্টরে গোলাগুলি ছুড়ে চলেছে পাক রেঞ্জার্স। পাল্টা জবাব দিচ্ছে ভারতও।

শনিবার রাত থেকেই গোলা বর্ষণ শুরু হয়। রবিবার ভোর ৬টা অবধি চলতে থাকে গুলি ও পাল্টা জবাব।  

আরও পড়ুন: মায়ের মৃতদেহের পাশে বসে কাঁদছে শিশু, আগ্রার ঘটনায় ছড়াল আতঙ্ক​

শাহপুর সেক্টর ছাড়াও রবিবার সকালে মেন্ধর সেক্টরের বালনোই ও মানকোটেও পাক সেনাদের মর্টার ও শেল এসে পড়ে সংঘর্ষবিরতি লঙ্ঘনের ফলে। এখনও পর্যন্ত কোনও ক্ষয়ক্ষতির খবর মেলেনি।

আরও পড়ুন: মৃত জঙ্গির সংখ্যা জানতে চাওয়া লজ্জার, ইস্তফা কংগ্রেস নেতার

জম্মু-কাশ্মীরে সীমান্ত লাগোয়া রাজৌরিতে শনিবার সন্ধ্যায় একই দিনে পর পর তিন বার সংঘর্ষ বিরতি লঙ্ঘন করে পাক সেনা। সেনা সূত্রে জানানো হয়েছে, ভোর সাড়ে চারটে থেকে নৌশেরা ও সুন্দরবনিতে মর্টার হামলা চালায় পাক সেনারা। সেনা চৌকি ও বসতি এলাকা লক্ষ্য করে গোলাগুলি ছুড়তে থাকে। পাল্টা জবাব দেয় ভারতীয় সেনাও।

আরও পড়ুন: দিল্লির জিমে গ্যাং ওয়ার, মৃত্যু ছয় বছরের শিশুর​

ভোর থেকে গুলি ও মর্টার ছুড়ছিল পাক সেনারা। বেলা বাড়তেই হামলার বেগ বাড়ে। ভারতীয় সেনাও যোগ্য জবাব দিয়েছে।  পুঞ্চ ও রাজৌরি সেক্টরে সংঘর্ষবিরতি লঙ্ঘন করেই চলেছে পাক সেনা।

আরও পড়ুন: সার্জিক্যাল স্ট্রাইক সম্পর্কে কতটা জানেন? 

বালাকোটে ভারতীয় বায়ুসেনার হামলার পর থেকেই নিয়ন্ত্রণরেখার ওপার থেকে হামলা আরও জোরদার করে পাক সেনা। বার বার সংঘর্ষবিরতি লঙ্ঘন করে। এই হামলায় গত কয়েক দিনে বেশ কয়েক জন জওয়ান ও সাধারণ নাগরিকও আহত হন।পাকিস্তান হামলা চালালে সেনাও যে সর রকম জবাব দিতে প্রস্তুত সে ইঙ্গিতও দিয়েছেন তিনি।  

উইং কমান্ডার অভিনন্দন বর্তমানকে মুক্তি দেওয়ার আগে পাক প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান বলেছিলেন তাঁরা শান্তি চান। তাঁর মুক্তিকে ‘শান্তির বার্তা’  বলে উল্লেখ করেছিলেন ইমরান। বিশেষজ্ঞরা তাই বলছেন, পাকিস্তান যতই মুখে শান্তির কথা বলুক না কেন, সীমান্তে পাক সেনার সংঘর্ষবিরতি লঙ্ঘন বার বারই প্রমাণ করে দিচ্ছে গোটাটাই একটা নাটক ছাড়া আর কিছু নয়।

সবাই যা পড়ছেন

সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে
আরও পড়ুন

সবাই যা পড়ছেন

আরও পড়ুন