ভারতের একমাত্র এয়ারক্র্যাফট ক্যারিয়ার আইএনএস বিক্রমাদিত্যকে আরও শক্তিশালী করার সিদ্ধান্ত নিল ভারতীয় নৌসেনা। বিমানবাহী এই যুদ্ধজাহাজটিতে বসানো হচ্ছে ‘মেরিন হাইড্রলিক সিস্টেম’। এর ফলে আরও সহজে এই রণতরী থেকে যুদ্ধবিমান ও হেলিকপ্টার ওঠানামা করতে পারবে।

টেকনোডায়নামিকা নামের একটি রুশ কোম্পানিকে এই বরাত দেওয়া হয়েছে। ২০১৯ সালের মে মাসের মধ্যেই নতুন সাজে সজ্জিত হয়ে যাবে বিক্রমাদিত্য।  জিএস-১এমএফ এবং জিএস-৩ নামের দুটি হাইড্রলিক সিস্টেম লাগানো হচ্ছে বিক্রমাদিত্যে।  প্রথমটি হেলিকপ্টার ওঠা-নামা, দ্বিতীয়টি যুদ্ধবিমান ওঠা-নামার কাজে সাহায্য করবে। যন্ত্র লাগানোর পর তার মহড়া ভারতেই হবে বলে জানিয়েছে  রুশ সংস্থাটি।

২০১৪ সালে রাশিয়ার থেকে এই এয়ারক্র্যাফ্ট ক্যারিয়ারটি কেনে নৌসেনা। খরচ পড়েছিল ১৬,১২৩ কোটি টাকা। জাহাজটিতে ৩০ টি মিগ যুদ্ধবিমান ও ছ’টি হেলিকপ্টার রাখা যেতে পারে। ২৮৪ মিটার লম্বা ও ৬০ মিটার উচ্চতার এই যুদ্ধজাহাজ ২০ তলা বাড়ির সমান উঁচু, ওজন ৪০০০০ টন। পৃথিবীতে খুব কম দেশের কাছেই আছে বিমানবাহী যুদ্ধজাহাজ বা এয়ারক্র্যাফ্ট ক্যারিয়ার।  বিভিন্ন মহাসাগরে বিস্তীর্ণ অঞ্চল নিয়ন্ত্রণ করা যায় এই রণতরীর সাহায্যে।

আরও পড়ুন: নিয়মিত অডিট করাতে হবে মন্দির, মসজিদ, গির্জার, রায় সুপ্রিম কোর্টের

প্রশ্নাতীত ভাবেই ভারতীয় নৌবাহিনীর সব থেকে উজ্জ্বলতম রত্ন আইএনএস বিক্রমাদিত্য। তবে ২০২৭ সালের মধ্যে আরও দুটি যুদ্ধজাহাজ ভারতে আসবে বলে নৌবাহিনী সূত্রের খবর।

ভারতের রাজনীতি, ভারতের অর্থনীতি- সব গুরুত্বপূর্ণ খবর জানতে আমাদের দেশ বিভাগে ক্লিক করুন।