কোনও প্রশ্ন নয়!
মোদীর নীরবতার একটি ২ মিনিট ১৯ সেকেন্ডের ‘টাইমল্যাপস’ করা ভিডিয়ো ছড়িয়েছে। যেখানে দেখা যাচ্ছে মোদী কেবল এ-দিক ও-দিক মাথা ঘোরাচ্ছেন।
Meme

নরেন্দ্র মোদী ও অমিত শাহের সাংবাদিক বৈঠক নিয়ে সোশ্যাল মিডিয়ায় ছড়াল মিম।

কবিগুরুর অনুরোধ ছিল, ‘তুমি রবে নীরবে’। যেন সেই অনুরোধই রাখলেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী।

শুক্রবারের সাংবাদিক বৈঠকে বেশির ভাগ সময়ে তিনি নিছক দর্শক! তাই এমন ‘অভিনব’ সাংবাদিক বৈঠক শেষ হতেই তা নিয়ে রঙ্গ-রসিকতার বাঁধ ভাঙল সোশ্যাল মিডিয়ায়। ফেসবুক-টুইটার-হোয়াটসঅ্যাপে চলল সরস আলোচনা। টুইটারে এক জনের প্রশ্ন, ‘‘মোদী কি অমিত শাহের সাংবাদিক সম্মেলন দেখতে এসেছেন?’’ আর এক জনের টিপ্পনী, ‘‘মোদী হলেন প্রথম, যিনি ডায়াসে বসে সাংবাদিক সম্মেলন দেখলেন!’’

মোদীর নীরবতার একটি ২ মিনিট ১৯ সেকেন্ডের ‘টাইমল্যাপস’ করা ভিডিয়ো ছড়িয়েছে। যেখানে দেখা যাচ্ছে মোদী কেবল এ-দিক ও-দিক মাথা ঘোরাচ্ছেন। মোদীর নানা ভঙ্গির ছবিতে নানা মন্তব্য জুড়ে ছবি টুইট করেছে কংগ্রেস। কমিক স্ট্রিপের মতো সেই ছবিগুলিতে এক জায়গায় মোদীর মুখে বসানো হয়েছে, ‘‘আমার নোটস্‌ কোথায়?’’ আর একটিতে লেখা, ‘‘আম নিয়ে একটা প্রশ্নও নেই?!’’ আর এক জনের ব্যাখ্যা, ‘‘সিউডো বানানে ‘পি’-এর যা ভূমিকা, এই সাংবাদিক সম্মেলনে মোদীরও তাই!’’ নানা প্রশ্ন এসেছে আমজনতার মনেও। এক জন জিজ্ঞাসা করে বসেছেন, ‘‘ওটা সত্যিই প্রধানমন্ত্রী? নাকি তাঁর কাট-আউট?’’ আর এক জন তো গুগলে ‘প্রেস কনফারেন্স’ লিখলে সেই শব্দের যে অর্থ দেখা যায় তার ছবি পোস্ট করেছেন টুইটারে। সঙ্গে লিখেছেন, ‘‘আমার মনে হয় গুগল এই শব্দের ভুল অর্থ বলেছে।’’ আর এক জনের মতে, ‘‘এ তো এমন ঘটনা, যখন স্নান করলেও গা ভেজে না!’’ মোদীর মুখ থেকে কোনও প্রশ্নের উত্তর না মেলায় ক্ষোভও জানিয়েছেন অনেকে। এক জনের মন্তব্য, ‘‘এটা আদর্শ অচ্ছে দিন। উনি আশা জাগিয়েছিলেন। সবাইকে অপেক্ষায় রেখেছিলেন। কিন্তু কোনও ফল মিলল না।’’ এক জন তো মোদীর মেঘের আড়ালে রাডার ফাঁকি দেওয়ার তত্ত্ব টেনে এনেছেন ছবিতে। ওই ছবিতে মোদীর মুখে এক টুকরো মেঘ! ব্যঙ্গের এমন বান ডাকার জেরেই শুক্রবার রাত থেকেই টুইটার ট্রেন্ডিংয়ে সবার উপরে উঠে আসে #প্রেসকনফারেন্স। ছাড়িয়ে যায় বিরোধীদের #মোদীহ্যায়তোগডসেহ্যায় ও শাসক পক্ষের #দেশকাগৌরবমোদী হ্যাশট্যাগকে। রঙ্গ-রসিকতার পালে হাওয়া দিতে ব্যবহার করা হয়েছে বলিউডের নানা দৃশ্যও। পাশাপাশি মোদী-অমিত শাহের ছবির নীচেই ‘পড়োসন’ ছবির বিখ্যাত গানের লড়াইয়ের দৃশ্যের ছবি রেখে তৈরি হয়েছে মিম, যেখানে 

সুনীল দত্তের পিছনে লুকিয়ে আছেন কিশোর কুমার। ক্লাস রুমে মুন্নাভাইয়ের মুখে বসানো হয়েছে প্রশ্ন, ‘‘ইয়ে প্রেস কনফারেন্স মে আকে কোশ্চেন কা অ্যানসার দেনা জরুরি হ্যায় ক্যায়া?’’ এমন সাংবাদিক সম্মেলন দেখে বাঙালিদের অনেকেরই অবশ্য মনে পড়েছে সত্যজিৎ রায়ের ‘সোনার কেল্লা’র কথা। জটায়ুর সেই বিখ্যাত স্বগতোক্তি, ‘কোনও প্রশ্ন নয়’ ঘুরে বেড়িয়েছে ভার্চুয়াল ভুবনে।

২০১৯ লোকসভা নির্বাচনের ফল

আপনার মত