জল্পনার অবসান, বারাণসীতে লড়বেন না প্রিয়ঙ্কা, মোদীর বিরুদ্ধে কংগ্রেসের প্রার্থী অজয় রাই
উত্তরপ্রদেশের বারাণসীতে মোদীর বিরুদ্ধে অজয় রাইকেই প্রার্থী করছে কংগ্রেস, তা জানিয়ে দেওয়া হল সরকারি ভাবে।
Priyanka Gandhi

নরেন্দ্র মোদী এবং প্রিয়ঙ্কা গাঁধী। ফাইল চিত্র।

জল্পনার শেষ। উত্তরপ্রদেশের বারাণসী কেন্দ্রে বিজেপি প্রার্থী এবং প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর বিরুদ্ধে দাঁড়াচ্ছেন না প্রিয়ঙ্কা গাঁধী। মোদীর বিরুদ্ধে অজয় রাইকে প্রার্থী করার কথা জানিয়ে দিল কংগ্রেস। গত লোকসভা নির্বাচনেও এই কেন্দ্রে মোদীর বিরুদ্ধে তাঁকে প্রার্থী করেছিল কংগ্রেস।

মোদীর বিরুদ্ধে ভোটে দাঁড় করানো হতে পারে সদ্য সক্রিয় রাজনীতিতে যোগ দেওয়া কংগ্রেসের সাধারণ সম্পাদক প্রিয়ঙ্কা গাঁধীকে— এই জল্পনা গত বেশ কিছুদিন ধরেই জোরদার হচ্ছিল দেশের রাজনীতিতে। আর এই জল্পনা বিভিন্ন সময় উস্কে দেওয়া হয়েছিল কংগ্রেস শিবির থেকেই। কোন কেন্দ্র থেকে দাঁড়ানোর কথা ভাবছেন, জিজ্ঞেস করা হলে প্রিয়ঙ্কার উত্তর ছিল, ‘‘বারাণসী থেকে নয় কেন?’’। একই ইঙ্গিত পাওয়া দিয়েছিল রাহুলের কাছ থেকেও। যদিও তা যে জল্পনাই ছিল, তা স্পষ্ট হল আজকেই। উত্তরপ্রদেশের বারাণসীতে মোদীর বিরুদ্ধে অজয় রাইকেই প্রার্থী করছে কংগ্রেস, তা জানিয়ে দেওয়া হল সরকারি ভাবে।

এই নির্বাচনে কংগ্রেসের হয়ে পূর্ব উত্তরপ্রদেশের দায়িত্বভার সামলাচ্ছেন প্রিয়ঙ্কা। মন্দিরনগরী বারাণসী পড়ে উত্তরপ্রদেশের এই অঞ্চলেই। সেই কারণেই মোদীর বিরুদ্ধে প্রিয়ঙ্কা নামের ব্রহ্মাস্ত্র ব্যবহার করা হতে পারে, বাড়ছিল সেই জল্পনা। এই নিয়ে প্রশ্ন করা হলে কংগ্রেস সভাপতি রাহুল গাঁধীও বলেছিলেন, ‘‘এই নিয়ে রহস্যে রাখছি আপনাদের। কখনও কখনও রহস্য থাকা ভাল।’’ যদিও রাজনৈতিক বিশেষজ্ঞদের একাংশ মনে করছিলেন, প্রিয়ঙ্কা বারণসীতে কোনও ভাবেই দাঁড়াতেন না। মোদীকে চাপে রাখতেই চলছিল এই কৌশল। তাঁদের বক্তব্য ছিল, রাজনৈতিক জীবনের শুরুতেই অনিশ্চিত কোনও আসনে গাঁধী পরিবারের কোনও সদস্যকে প্রার্থী করার কোনও সম্ভাবনা নেই। সেই বক্তব্যকেই কার্যত মান্যতা দিল কংগ্রেসের আজকের ঘোষণা।

আরও পড়ুন: ধনী ও ক্ষমতাবানদের হস্তক্ষেপ বিচারব্যবস্থায়, ষড়যন্ত্রের অভিযোগে তদন্তের নির্দেশ শীর্ষ আদালতের

বারাণসী শহরকে মোদীময় করে তুলতে আজকেই মেগা রোড-শো-এর আয়োজন করছে বিজেপি ব্রিগেড। কংগ্রেসের এই ঘোষণায় সেই বর্ণাঢ্য রোড-শো’র জৌলুস নিশ্চিত ভাবেই আরও কিছুটা বাড়ল। কারণ, ২০১৪ সালেও মোদীর বিরুদ্ধে লড়ে মাত্র ৭৫,০০০ ভোট পেয়েছিলেন কংগ্রেস প্রার্থী অজয় রাই। সেখানে মোদী পেয়েছিলেন প্রায় ৫ লক্ষ ৮০ হাজার ভোট। সেই নির্বাচনে প্রায় দু’লক্ষ ভোট পেয়ে এখানে দ্বিতীয় স্থানে ছিলেন আম আদমি পার্টির প্রার্থী অরবিন্দ কেজরিওয়াল।

আরও পড়ুন: মোদীর বিরুদ্ধে বিধিভঙ্গের নালিশ, সমাধান না করেই কমিশনের ঘোষণায় বিভ্রান্তি

নির্বাচনী নির্ঘণ্ট

২০১৪ লোকসভা নির্বাচনের ফল

  • সকলকে বলব ইভিএম পাহারা দিন। যাতে একটিও ইভিএম বদল না হয়।

  • author
    মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় তৃণমূলনেত্রী

আপনার মত