সুপ্রিম কোর্টে দুঃখপ্রকাশ রাহুল গাঁধীর
হলফনামায় রাহুল বলেছেন, ‘‘দুর্ভাগ্যবশত সুপ্রিম কোর্টের নির্দেশ ও নির্বাচনী প্রচারের মধ্যে করা আমার মন্তব্য মিলেমিশে গিয়েছে। আমি এটা একেবারেই বলতে চাইনি।’’
rahul

রাহুল গাঁধী। ছবি: পিটিআই।

‘চৌকিদার চোর হ্যায়’ মন্তব্যের সঙ্গে সুপ্রিম কোর্টের রায়কে জুড়ে ফেলায় শীর্ষ আদালতে দুঃখ প্রকাশ করলেন রাহুল গাঁধী। সম্প্রতি অমেঠীর একটি সভায় রাহুলের রাফাল-দুর্নীতি নিয়ে রাহুল দাবি করেছিলেন, সুপ্রিম কোর্টও নরেন্দ্র মোদীকে চোর বলেছে। এ নিয়ে আদালত অবমাননার মামলা করেন বিজেপি সাংসদ মীনাক্ষী লেখি। গত সপ্তাহে এ নিয়ে শুনানিতে প্রধান বিচারপতি রঞ্জন গগৈয়ের বেঞ্চ জানায়, আদালত এমন মন্তব্য করেনি। রাহুলের কাছে ব্যাখ্যা চায় কোর্ট।

আজ তাঁর হলফনামায় রাহুল বলেছেন, ‘‘দুর্ভাগ্যবশত সুপ্রিম কোর্টের নির্দেশ ও নির্বাচনী প্রচারের মধ্যে করা আমার মন্তব্য মিলেমিশে গিয়েছে। আমি এটা একেবারেই বলতে চাইনি।’’ রাহুলের বক্তব্য, ‘‘এটা স্পষ্টই বোঝা যাচ্ছে যে কোনও আদালত এমন মন্তব্য করবে না। তাই কোর্টের নির্দেশ ও রাজনৈতিক স্লোগানের এই মিশেল থেকে স্থির করা ঠিক নয় আদালত এই বিষয়ে কোনও সিদ্ধান্ত নিয়েছে। তবে এই মিশেলের জন্য আমি দুঃখিত।’’

হলফনামায় রাহুল এ-ও বলেছেন, ‘‘বিরোধীদের আর্জিতে বোঝানোর চেষ্টা হয়েছে, আমি ইচ্ছে করেই আদালতের নির্দেশের ভুল ব্যাখ্যা করতে চেয়েছি। কিন্তু তেমন উদ্দেশ্য আমার ছিল না।’’

 দিল্লি দখলের লড়াই, লোকসভা নির্বাচন ২০১৯ 

রাহুলের হলফনামা নিয়ে বিজেপি মুখপাত্রের বক্তব্য, ‘‘সম্ভবত এই প্রথম কোনও জাতীয় দলের সভাপতি মিথ্যে বলার জন্য সুপ্রিম কোর্টে ক্ষমা চাইলেন। রাহুল এক নম্বরের মিথ্যেবাদী।’’ রাহুল অবশ্য আজ ফের টুইট করেছেন, ‘‘পদ্ম ব্র্যান্ডের চৌকিদার যে চোর তা ২৩ মে জনতার আদালতে প্রমাণিত হবে।’’

 

২০১৯ লোকসভা নির্বাচনের ফল

আপনার মত