• সংবাদ সংস্থা
সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে

হরিয়ানার মুখ্যমন্ত্রী হিসাবে শপথ নিলেন খট্টর, উপমুখ্যমন্ত্রী হলেন দুষ্মন্ত

Manohar Lal Khattar
শপথ নিচ্ছেন মনোহরলাল খট্টর। ছবি: টুইটার থেকে সংগৃহীত।

দ্বিতীয় বারের জন্য হরিয়ানার মুখ্যমন্ত্রী হিসাবে শপথ নিলেন মনোহরলাল খট্টর। উপমুখ্যমন্ত্রী হিসাবে শপথ নিলেন এ বারের বিধানসভা নির্বাচনের ‘কিংমেকার’ তথা জননায়ক জনতা পার্টির (জেজেপি) প্রধান দুষ্মন্ত চৌটালা। রবিবার দুপুরে চণ্ডীগড়ে রাজভবনে শপথ নেন তাঁরা।

কেন্দ্রীয় মন্ত্রী জেপি নাড্ডা, শিরোমণি অকালি দলের প্রধান প্রকাশ সিংহ বাদল, তাঁর ছেলে সুখবীর বাদল-সহ বিজেপির শীর্ষ নেতৃত্বের অনেকেই হাজির ছিলেন। উপস্থিত ছিলেন রাজ্যের প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী তথা প্রবীণ কংগ্রেস নেতা ভূপেন্দ্র সিংহ হুডাও।

অন্য দিকে, বিজেপি-জেজেপি জোট কার্যকর হওয়ার পরই তিহাড় জেল থেকে দু’সপ্তাহের ছুটি পেয়ে গিয়েছেন দুষ্মন্তের বাবা অজয় চৌটালা। তিনিও শপথগ্রহণ অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন বলে একটি সর্বভারতীয় সংবাদমাধ্যম সূত্রে জানা গিয়েছে।

আরও পড়ুন: নির্জোট সম্মেলনেও কাশ্মীর কাঁদুনি পাকিস্তানের, সন্ত্রাসের ভরকেন্দ্র পাকিস্তান, পাল্টা তোপ ভারতের

আরও পড়ুন: গতি ঘণ্টায় ২০০ কিমি, ঘূর্ণিঝড় কিয়ারের দাপটে উত্তাল আরব সাগর, ৪ রাজ্যে সতর্কতা জারি

সদ্য সমাপ্ত বিধানসভা নির্বাচনে হরিয়ানায় ৪০টি আসনে জয়ী হলেও, ৯০ আসনের বিধানসভায় সরকার গঠনের জন্য প্রয়োজনীয় ম্যাজিক ফিগার পেরোতে পারেনি বিজেপি। তাই সরকার গড়তে শেষমেশ ১০ আসনে জয়ী দুষ্মন্ত চৌটালার জেজেপির হাত ধরতে হয় তাদের। শুক্রবার রাতে অমিত শাহের সঙ্গে দুষ্মন্তের সাক্ষাতের পরই তাতে সিলমোহর পড়ে।

তবে শুধুমাত্র জেজেপি-ই নয়, সাত নির্দল বিধায়কেরও সমর্থনও পেয়েছে বিজেপি। তাতে এই মুহূর্তে রাজ্য বিধানসভায় তাদের আসন সংখ্যা ৫৭-তে গিয়ে ঠেকেছে। তবে ২০১৪ সালে যেখানে একক সংখ্যাগরিষ্ঠতা পেয়ে রাজ্যে সরকার গড়েছিল বিজেপি, এ বছর সরকার গড়তে শেষমেশ জেজেপির হাত ধরতে হল তাদের।

সবাই যা পড়ছেন

সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে
আরও পড়ুন

সবাই যা পড়ছেন

আরও পড়ুন