সময় মতো অ্যাম্বুল্যান্স না পাওয়ায় মৃত্যু হল মরাঠী অভিনেত্রী পূজা জুনজার (২৫)। দু’টি মরাঠী ছবিতে মুখ্য ভূমিকায় অভিনয় করেছিলেন তিনি। 

পুলিশ সূত্রে খবর, সন্তানসম্ভবা হওয়ায় অভিনয় থেকে কিছু সময়ের জন্য বিরতি নিয়েছিলেন পূজা। রবিবার মধ্য রাতে প্রসব যন্ত্রণা ওঠায় মহারাষ্ট্রের গোরেগাঁওয়ে একটি প্রাথমিক স্বাস্থ্যকেন্দ্রে নিয়ে পূজাকে নিয়ে যান তাঁর পরিবারের লোকেরা। সেখানেই একটি সন্তানের জন্ম দেন তিনি। কিন্তু জন্মের কয়েক মিনিটের মধ্যেই মৃত্যু হয় শিশুটির।

পুলিশ আরও জানিয়েছে, সন্তান প্রসবের পর পূজার অবস্থার অবনতি হতে শুরু করে। তখন স্বাস্থ্যকেন্দ্রের চিকিত্সকরা তাঁকে হিঙ্গোলির সরকারি হাসপাতালে স্থানান্তরিত করার পরামর্শ দেন। পূজার অবস্থা দেখে চিকিত্সকদের পরামর্শ শুনে প্রচণ্ড উদ্বিগ্ন হয়ে পড়েন তাঁর পরিবারের লোকেরা। হন্যে হয়ে অ্যাম্বুল্যান্স খুঁজতে থাকেন তাঁরা। শোষমেশ একটি বেসরকারি অ্যাম্বুল্যান্স জোগাড় করে পূজাকে নিয়ে হিঙ্গোলির উদ্দেশে রওনা দেয় তাঁর পরিবার। কিন্তু তত ক্ষণে অনেকটা সময় গড়িয়ে গিয়েছিল।

আরও পড়ুন: ভবিষ্যতে ভারতের প্রধানমন্ত্রী! অমিত বলছেন, এমন কথা আবার কেন?

আরও পড়ুন: বিমার আওতায় মানসিক রোগও, তবে বাড়বে প্রিমিয়ামের অঙ্ক

গোরেগাঁও থেকে হিঙ্গোলির দূরত্ব ৪০ কিলোমিটার। হিঙ্গোলিতে পৌঁছনোর আগেই পথেই মৃত্যু হয় পূজার। পূজার পরিবারের অভিযোগ, স্বাস্থ্যকেন্দ্রে একটি অ্যাম্বুল্যান্সও ছিল না। সময়মতো অ্যাম্বুল্যান্স পেলে পূজাকে বাঁচানো যেত। কিন্তু সেটা সম্ভব হল না অ্যাম্বুল্যান্সের অভাবে! তাঁর পরিবার চিকিত্সায় গাফিলতি এবং রাজ্যের স্বাস্থ্য পরিষেবা নিয়ে অভিযোগ তুলেছেন। তাঁদের অভিযোগের ভিত্তিতে একটি মামলা দায়ের করেছে পুলিশ।