• সংবাদ সংস্থা
সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে

স্ত্রীর কাছে করোনা সংক্রমণের গল্প ফেঁদে বান্ধবীকে নিয়ে সংসার, ইনদওরে পাকড়াও মুম্বইয়ের যুবক

elope
বাড়িতে কোভিডে আক্রান্ত হওয়ার গল্প ফেঁদে প্রেমিকাকে নিয়ে ইনদরওরে থাকছিলেন। গ্রাফিক- তিয়াসা দাস।

বাড়ির লোককে বলেছিলেন তিনি কোভিডে আক্রান্ত হয়েছেন। করোনাভাইরাস তাঁকে এতটাই কাবু করেছে, যে মরেও যেতে পারেন তিনি। ২৪ জুলাই স্ত্রীকে এ কথা জানানোর পর থেকেই আর খোঁজ মেলেনি নবি মুম্বইয়ের বাসিন্দা ২৮ বছরের ওই যুবকের। সম্প্রতি মধ্যপ্রদেশের ইনদওর থেকে তাঁকে খুঁজে বের করেছে পুলিশ। জানা গিয়েছে, বাড়িতে কোভিডে আক্রান্ত হওয়ার গল্প ফেঁদে প্রেমিকাকে নিয়ে ইনদরওরে থাকছিলেন।

পুলিশ জানিয়েছে, ২৮ বছরের ওই যুবকের নাম মণীশ মিশ্র। তিনি নবি মুম্বইয়ে থাকতেন। জওহরলাল নেহরু বন্দরে কাজ করেন। গত ২৪ জুলাই তিনি স্ত্রীকে ফোন করে বলেন, কোভিডে আক্রান্ত হয়েছেন তিনি। এই আক্রান্ত হওয়ার জেরে তিনি মরে যেতে পারেন বলেও স্ত্রীর কাছে আশঙ্কা প্রকাশ করেছিলেন। এর পরে আর খোঁজ পাওয়া যায়নি মণীশের।

এর পরে মণীশের পরিবারের পক্ষে ভাসি থানায় নিখোঁজ ডায়েরি করা হয়। মণীশের খোঁজ শুরু করে পুলিশ। বিভিন্ন কোভিড সেন্টার খুঁজেও তাঁর আক্রান্ত হওয়ার খবর পাওয়া যায়নি বলে জানিয়েছেন সিনিয়র অফিসার স়ঞ্জীব ধুমাল। এর পরে ফোনের লোকেশন ট্র্যাক করা হয়। সেখান থেকে জানা  যায়, মোবাইল বন্ধ করার আগে ভাসি এলাকায় ছিলেন তিনি। ধুমল জানিয়েছেন, ‘‘ভাসিতে গিয়ে আমরা মণীশের মোটর সাইকেল আর হেলমেট পেলেও তাঁকে পাইনি।’’

এর পরে আশপাশের এলাকার সিসিটিভি ফুটেজ খতিয়ে দেখে পুলিশ। সেই ছবি পার্শ্ববর্তী রাজ্যগুলির পুলিশকেও পাঠানো হয়। ধুমল বলেছেন, ‘‘আইরোলি এলাকার একটি সিসিটিভি ফুটেজ থেকে তদন্ত গতি পায়। সেখানে গাড়িতে এক মহিলার সঙ্গে মণীশকে যেতে দেখা গিয়েছিল। সেই সূত্র ধরেই আমরা জানতে পারি ইনদওরে রয়েছে মণীশ।’’

আরও পড়ুন: বাড়ি থেকে পালিয়ে অফিসার হয়ে ফিরলেন মেয়ে, বিয়ের চাপে ঘর ছেড়েছিলেন সাত বছর আগে

এর পর পুলিশের একটি দল গিয়ে তাঁকে মুম্বই ফিরিয়ে আনে। পুলিশ জানিয়েছে, ‘‘ইনদওরে প্রেমিকাকে সঙ্গে নিয়ে থাকছিলেন তিনি। অনেক দিন ধরেই তাঁর বিবাহ বহির্ভূত সম্পর্ক রয়েছে।’’ আপাতত স্ত্রীয়ের কাছে মণীশ ফিরে গিয়েছেন বলে জানিয়েছেন ওই অফিসার।

আরও পড়ুন: ২৪ ঘণ্টায় ৯৭৮৯৪ নতুন করোনা সংক্রমণ, মোট সুস্থ ৪০ লক্ষ পেরলো

সবাই যা পড়ছেন

সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে
আরও পড়ুন

সবাই যা পড়ছেন

আরও পড়ুন