রাজ্যসভার নির্বাচনে ‘নান অব দ্য অ্যাবাভ’ অর্থাৎ নোটায় ভোট দেওয়ার যে অধিকার ভোটারদের নির্বাচন কমিশন দিয়েছিল তা আজ খারিজ করে দিল সুপ্রিম কোর্ট। উল্টে নির্বাচন কমিশনের সমালোচনা করে সুপ্রিম কোর্ট জানিয়েছে, রাজ্যসভার নির্বাচনে কমিশন কখনওই ভোট না দেওয়াকে বৈধতা দিতে পারে না। কারণ তাতে আনুপাতিক প্রতিনিধিত্ব নষ্ট হচ্ছে।

কমিশন লোকসভা ও বিধানসভা ভোটে নোটা চালুর নির্দেশিকা জারি করেছিল ২০১৩ সালে। পরের বছর রাজ্যসভার নির্বাচনে ভোটার তথা বিধায়কেরা নোটায় ভোট দিতে পারবেন বলে আর একটি নির্দেশিকা জারি করে কমিশন। কিন্তু সম্প্রতি গুজরাতের রাজ্যসভা নির্বাচনের প্রেক্ষিতে নোটা বাতিলের দাবিতে সুপ্রিম কোর্টের দ্বারস্থ হন গুজরাত বিধানসভার মুখ্য সচেতক তথা কংগ্রেস নেতা শৈলেশ মনুভাই পারমার। তাঁর দাবি, এতে বিধায়ক কেনাবেচার সুযোগ তৈরি হয়েছে।

প্রধান বিচারপতি দীপক মিশ্রের নেতৃত্বাধীন তিন সদস্যের বেঞ্চ আজ শৈলেশের যুক্তি মেনে নিয়ে কমিশনের ওই নির্দেশিকা খারিজ করে দেয়। আদালতের বক্তব্য, ‘‘একটি সাংবিধানিক সংস্থা কেন এ ভাবে অসাংবিধানিক কাজ করবে। কোনও জনপ্রতিনিধি ভোট না দিলে তাঁর দল তাঁকে বহিষ্কার করবে। কিন্তু নোটা চালু করে ভোট না দেওয়াকে কেন বৈধতা দেবে কমিশন!’’

আরও পড়ুন: ভিডিয়ো বিতর্ক নিয়ে জবাব মোদীর দফতরের