আন্তর্জাতিক যোগ দিবসের ঠিক আগে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর যোগাভ্যাস করার যে ভিডিয়ো তোলা হয়েছিল, তার পিছনে একটি টাকাও খরচ হয়নি বলে জানাল প্রধানমন্ত্রীর সচিবালয়। বিরোধীদের অভিযোগ ছিল, প্রধানমন্ত্রীর শারীরিক কসরতের ভিডিয়োটি তুলতে খরচ হয়েছ‌ে ৩৫ লক্ষ টাকা। তবে তথ্যের অধিকার আইনে এ নিয়ে জানতে চাওয়া হলে প্রধানমন্ত্রীর সচিবালয় জানিয়েছে, সম্পূর্ণ নিখরচায় ভিডিয়োটি তৈরি হয়েছে।

এ বছরের যোগ দিবসের আগে সোশ্যাল মিডিয়ায় ‘হাম ফিট তো ইন্ডিয়া ফিট’ (আমি সুস্থ থাকলে ভারতও সুস্থ) নামে একটি প্রচার শুরু করেন কেন্দ্রীয় ক্রীড়ামন্ত্রী রাজ্যবর্ধন রাঠৌর। একাধিক কেন্দ্রীয় মন্ত্রী ও ক্রীড়াবিদেরা নিজেদের মতো করে ব্যায়াম কিংবা যোগাভ্যাসের ভিডিয়ো সোশ্যাল মিডিয়ায় পোস্ট করতে থাকেন। প্রধানমন্ত্রীর শারীরিক কসরতের ভিডিয়ো প্রকাশ্যে আসার পরে বিতর্ক শুরু হয়। কারণ, একটি ওয়েবসাইটে দাবি করা হয়, মোদীর ভিডিয়ো তৈরিতে খরচ হয়েছে ৩৫ লক্ষ টাকা। কংগ্রেস নেতা শশী তারুরও টাকার পরিমাণ নিয়ে মোদীকে নিশানা করেন। যদিও ওই দাবি অসত্য বলে জানিয়েছে প্রধানমন্ত্রীর সচিবালয়।

১৯ জুন তথ্যের অধিকার আইনে প্রধানমন্ত্রীর সচিবালয়ের কাছে এক ব্যক্তি জানতে চান, ওই ভিডিয়োটি তুলতে কত খরচ হয়েছে। ১৭ অগস্ট মোদীর দফতর জানিয়েছে, ভিডিয়োটি তোলা হয়েছে প্রধানমন্ত্রীর বাসভবনে। ভিডিওগ্রাফি করেছেন প্রধানমন্ত্রীর দফতরের চিত্রগ্রাহক। ফলে এটি তৈরিতে এক টাকাও খরচ হয়নি। সূত্রের খবর, ভুয়ো তথ্য ছড়ানোর অভিযোগে ওয়েবসাইটটির বিরুদ্ধে মামলা করেছেন এক আইনজীবী।