তিহাড় সংশোধনাগারে বসেও দেশের অর্থনীতি নিয়ে উদ্বিগ্ন পি চিদম্বরম। আর্থিক কেলেঙ্কারির দায়ে সিবিআই ৭৩ বছরের এই কংগ্রেস নেতাকে গ্রেফতার করার পরে আদালত তাঁকে ১৪ দিনের জন্য জেল হাজতে পাঠিয়েছে। সেখান থেকে ‘পরিবারের মাধ্যমে’ টুইটে তিনি দেশের এই অর্থনৈতিক দুরবস্থার জন্য নরেন্দ্র মোদী সরকারকে দায়ী করে প্রশ্ন ছুড়েছেন, ‘‘অর্থনীতির এই অধঃপতন রোধে সরকারের নির্দিষ্ট কোনও পরিকল্পনা আছে কি?’’ 

নিম্ন আদালতের জেল হেফাজতের রায়ের বিরুদ্ধে বুধবারই দিল্লি হাইকোর্টে আপিল করেছেন চিদম্বরম। জামিনের আবেদনও করেছেন। তাঁর বিরুদ্ধে আনা অভিযোগকে গুরুতর আখ্যা দিয়েছে নিম্ন আদালত। আদালতে তাঁর জেল হেফাজত চেয়ে সিবিআই দাবি করেছিল, প্রভাবশালী হিসেবে তদন্তে বাধা সৃষ্টি করতে পারেন চিদম্বরম। তবে বুধবার জামিনের আবেদনে তিনি বয়স এবং নিজের নয়টি অসুখের উল্লেখ করেছেন।

এ দিন টুইটে প্রাক্তন অর্থমন্ত্রী জানিয়েছেন— জেলে সাধারণ মানুষের সঙ্গে কথা বলার সুযোগ পেয়ে তিনি বুঝেছেন, বিচার পাওয়ার ক্ষেত্রে সব চেয়ে ক্ষতিগ্রস্ত হচ্ছেন তাঁরা। অর্থনৈতিক মন্দার মারও তাঁদের ওপর সব চেয়ে বেশি পড়ছে। গরিব ও মধ্যবিত্তের কাজের সুযোগ সঙ্কুচিত হচ্ছে, কাজ করে পর্যাপ্ত পারিশ্রমিক মিলছে না, ব্যবসা মার খাচ্ছে। চিদম্বরমের কথায়, ‘‘দেশের অর্থনীতি নিয়ে খুবই উদ্বেগে রয়েছি। সব চেয়ে ক্ষতি হচ্ছে গরিবদের।’’

আইএনএক্স মিডিয়াকে সরকারি ছাড়পত্র দেওয়ার ক্ষেত্রে চিদম্বরম অন্যায্য হস্তক্ষেপ করেছেন ও আর্থিক নয়ছয় করেছেন বলে আদালতে অভিযোগ এনেছে সিবিআই। চিদম্বরম এ দিন টুইটে দাবি করেছেন, কোনও অন্যায় তিনি করেননি।