জমি-জমা নিয়ে বিবাদ চলছিল। রবিবার কার্যত বোঝাপড়া করতেই মহিলা হাজির হয়েছিলেন তেলঙ্গানা রাষ্ট্রীয় সমিতির নেতার বাড়িতে। বেশ কিছু ক্ষণ কথা কাটাকাটি হয় তাঁদের মধ্যে। অভিযোগ, তখনই ওই মহিলা চটি ছুড়ে মারেন নেতার দিকে।

তাতেই মেজাজ হারান ইম্মাদি গোপী নামে টিআরএসের ওই নেতা। সরাসরি মহিলার বুকে লাথি মারেন তিনি। ইম্মাদি গোপী কেবল শাসক দল টিআরএসের নেতাই নন, স্থানীয় গ্রামীণ প্রশাসনের (ধরপল্লী মন্ডল) সভাপতিও।

নেতার লাথি মারার ভিডিয়ো ভাইরাল হয়ে যায় সোশ্যাল মিডিয়ায়। বিষয়টি নিয়ে পুলিশের কাছে অভিযোগ করেন ওই মহিলা। বেশ কয়েকটি ধারায় ওই নেতার বিরুদ্ধে মামলাও দায়ের করা হয়েছে। রবিবার ঘটনাটি ঘটে তেলঙ্গানার নিজামাবাদ জেলায়।

পুলিশ জানিয়েছে, মাস দশেক আগে গোপীর কাছ থেকে ৩৩ লাখ টাকা দিয়ে জমি কিনেছিলেন ওই মহিলা। কিন্তু, মহিলা ও তার পরিবারের অভিযোগ, এখনও পর্যন্ত সম্পত্তি তাঁদের দেননি ওই নেতা। উল্টে, জমির দাম বেড়ে গিয়েছে এই দাবিতে আরও ৫০ লাখ টাকা চান গোপী। আর তা নিয়েই বিবাদ চরমে ওঠে।

দেখুন ভিডিয়ো

 

মাঝে মধ্যেই এ নিয়ে বিবাদ লেগে থাকত। গত সপ্তাহেই হাতাহাতির ঘটনাও ঘটে। রবিবার ওই মহিলা তাঁর কয়েক জন আত্মীয়কে নিয়ে গোপীর বাড়িতে হাজির হন। চলে কথা কাটাকাটিও। তখনই মহিলা গোপীর দিকে জুতো ছোড়েন বলে অভিযোগ। তার পরই ওই নেতা মহিলার বুকে লাথি মারেন বলে অভিযোগ।

আরও পড়ুন: কমিটিতে এনে সাবেক শরিক মমতাকে খুশি করার চেষ্টা মোদীর!

অন্য দিকে, অভিযুক্ত নেতা মহিলা এবং তাঁর আত্মীয়দের দিকে অভিযোগের আঙুল তুলেছেন। গোপীর দাবি, ওই মহিলা এবং তাঁর পরিবারের লোকজন জোর করে তাঁর বাড়িতে ঢুকে পড়েন এবং বাড়ির ক্ষতি করেন।

আরও পড়ুন: জোট নিয়ে আহমেদ পটেল সঙ্গে কথা মমতার