• সংবাদ সংস্থা
সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে

কন্যাসন্তানকে জীবন্ত কবর দিতে গিয়ে ধৃত দাদু এবং কাকা

Girl Child
এ ভাবেই কম্বলে মুড়ে শিশুটিকে কবর দিতে গিয়েছিল অভিযুক্তরা। ছবি: টুইটার থেকে সংগৃহীত।

Advertisement

জীবিত অবস্থায় শিশুকন্যাকে কবর দিতে গিয়ে হাতেনাতে ধরা পড়ল দুই ব্যক্তি। অঘটন ঘটে যাওয়ার আগেই অবশ্য শিশুটিকে উদ্ধার করতে সক্ষম হয়েছে পুলিশ। ওই দুই ব্যক্তিকে গ্রেফতার করা হয়েছে। কন্যাসন্তান হওয়াতেই তারা এমন পদক্ষেপ করতে গিয়েছিল বলে সন্দেহ পুলিশের।

বৃহস্পতিবার হায়দরাবাদের জুবিলি বাস স্ট্যান্ডের কাছে এই ঘটনা ঘটে। স্থানীয় পুলিশ সূত্রে জানা গিয়েছে, ওই দিন সকালে অভিযুক্ত দু’জনের উপর নজর পড়ে এক অটোচালকের। হাতে ব্যাগ নিয়ে বাসস্ট্যান্ড সংলগ্ন মাঠের এক পাশে মাটি খুঁড়ছিল তারা।

অভিযুক্তদের গতিবিধি দেখে সন্দেহ হওয়ায় পুলিশে খবর দেন ওই অটোচালক। প্রায় সঙ্গে সঙ্গেই ঘটনাস্থলে হাজির হয় পুলিশের একটি দল। ব্যাগে কী আছে জানতে চাইলে অভিযুক্তরা জানায়, জটিল অস্ত্রোপচার চলাকালীন তাদের নাতনির মৃত্যু হয়েছে। কিন্তু বাসে-ট্রেনে মৃতদেহ আনা সম্ভব নয়। তাই কম্বলে মুড়ে, ব্যাগ করে আনা হয়েছে।

এই ভিডিয়োই ছড়িয়েছে সোশ্যাল মিডিয়ায়।

আরও পড়ুন: ‘গ্যাস চেম্বার’ দিল্লি! বাতাসের ভয়ানক অবনতিতে জরুরি অবস্থা জারি​

আরও পড়ুন: মহারাষ্ট্রে বিজেপিকে ছাড়াই সরকার গড়তে পারে শিবসেনা, হুঁশিয়ারি সঞ্জয় রাউতের​

কিন্তু ব্যাগ পরীক্ষা করতে গিয়ে পুলিশ দেখে, দিব্যি বেঁচে রয়েছে শিশুটি। ঘটনার সময় মোবাইলে তোলা ভিডিয়োতেও শিশুটিকে নড়াচড়া করতে দেখা গিয়েছে, যা ইতিমধ্যেই ছড়িয়ে পড়েছে সোশ্যাল মিডিয়ায়।

শিশুটিকে উদ্ধার করে স্থানীয় গাঁধী হাসপাতালে পাঠিয়েছে পুলিশ। গ্রেফতার করা হয়েছে অভিযুক্ত ওই দু’জনকে। তারা করিমনগর জেলার বাসিন্দা বলে জানা গিয়েছে। স্থানীয় থানার কনস্টেবল এস বেঙ্কট রামকৃষ্ণ জানিয়েছেন, ধৃতদের মধ্যে এক জন মেয়েটির দাদু, অপরজন কাকা। কন্যাসন্তান হওয়াতেই তারা এমন পদক্ষেপ করতে গিয়েছিল বলে প্রাথমিক তদন্তে পর উঠে এসেছে। বিষয়টি খতিয়ে দেখা হচ্ছে। জিজ্ঞাসাবাদ করা হচ্ছে ওই দু’জনকে।

সবাই যা পড়ছেন

Advertisement

সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে
আরও পড়ুন

সবাই যা পড়ছেন

আরও পড়ুন