• সংবাদ সংস্থা
সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে

মৃত্যুর পর ভাইরাল গানের ভিডিয়ো, ঋষভকে নিয়ে আবেগতাড়িত নেটাগরিকরা

rishav
হাসপাতালে বসেই গান গাইছে ঋষভ। ছবি ভিডিয়ো থেকে নেওয়া।

অসমের তিনসুকিয়া জেলার কাকোপোথারে থাকত ১৭ বছরের ঋষভ দত্ত। গিটার বাজিয়ে তার করা গান মুগ্ধ করত নেটাগরিকদের। ২০১৯-এর  শেষ থেকেই ইন্টারনেট সেনসেশনে পরিনত হয়েছিল সে। কিন্তু ১৭ বছরের ঋষভের শরীরে বাসা বেঁধেছিল মারণ রোগ। যার জেরে বেঙ্গালুরুর হাসপাতালে বৃহস্পতিবার মৃত্যু হয়েছে তার। এর পরই তার গাওয়া গানের ভিডিয়োগুলি ব্যাপক হারে ভাইরাল হয়েছে সোশ্যাল মিডিয়ার বিভিন্ন প্ল্যাটফর্মে। ঋষভের গানে মুগ্ধ নেটিজেনরা হাহাকার করছেন এ রকম একজন প্রতিভাবান গায়কের অকালমৃত্যুতে।

বছর দুয়েক আগে অ্যাপ্লাস্টিক অ্যানিমিয়া ধরা পড়ে ঋষভের। এই রোগে শরীরে পর্যাপ্ত পরিমাণ নতুন রক্তকণা তৈরি হয় না। ভেলোরের ক্রিশ্চিয়ান মেডিক্যাল কলেজে চিকিৎসা শুরু হয় তার। পরে বেঙ্গালুরুর একটি বেসরকারি হাসপাতালে চলছিল চিকিৎসা। অবশেষে বৃহস্পতিবার মৃত্যু হয় তার।

হাসপাতালে চিকিৎসাধীন থাকার সময় ঋষভের বিভিন্ন গানের ভিডিয়ো সোশ্যাল মিডিয়ায় শেয়ার করতেন আত্মীয় ও বন্ধুবান্ধবরা। সেখানে দেখা যাচ্ছে, চিকিৎসক-নার্সদের সামনেই গিটার বাজিয়ে গান করছে ঋষভ। ‘ইয়ে দিল হ্যায় মুশকিল’ ছবির ‘আচ্ছা চলতা হুঁ’ গানের ভিডিয়ো তার মৃত্যুর পর দেখা হয়েছে চার লক্ষ বারেরও বেশি। ১০ হাজারেরও বেশি শেয়ার হয়েছে সেই ভিডিয়ো। এ ছাড়াও আরও বেশ কয়েকটি গানের ভিডিয়ো ভাইরাল হয়েছে সোশ্যাল মিডিয়ায়। দেখুন ঋষভের গানের সেই ভিডিয়োগুলি—

rishav dutta

এই যে গীত গাই থকা ল'ৰাজন !তেওঁ আজি গীতটোত গাই থকাৰ দৰে সঁচাকৈয়ে আমাৰ মাজৰ পৰা গুচি গ'ল। তেওঁ ঋষভ দত্ত । ঘৰ তিনিচুকীয়াৰ কাকপথাৰত। দুৰাৰোগ্য ৰোগত আক্ৰান্ত হৈ বেংলুৰত মৃত্যু হয় ঋষভৰ। এটা সুন্দৰ কণ্ঠৰ অধিকাৰী ঋষভলৈ অযুত অশ্রুঞ্জলী..!

Posted by Monjit Gogoi on Thursday, 9 July 2020

আরও পড়ুন: ‘পুলিশ যা করেছে, বেশ করেছে’, বললেন বিকাশ দুবের বাবা

আরও পড়ুন: ৩০ বছর ধরে জঙ্গলের রাস্তায় রোজ ১৫ কিমি হেঁটে চিঠি পৌঁছে দেন এই পোস্টম্যান

ঋষভ দত্ত

ভাল মানুহৰ লগতে সদায় বেয়া কিয় হয় ? মৃত ঋষভৰ অন্য এটা ভিডিঅ' ! কেইদিনমান আগতে বহিঃৰাজ্যৰ চিকিৎসালয়ৰ কোঠাত হাঁহি ভালপোৱা ঋষভ চিকিসকসকলৰ বাবেও প্রিয় আছিল !

Posted by Monjit Gogoi on Thursday, 9 July 2020

সবাই যা পড়ছেন

সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে
আরও পড়ুন

সবাই যা পড়ছেন

আরও পড়ুন